মালিক ভরসা -blog


...


মালিক ভরসা
 


ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র দ্বীন ইসলাম গ্রহণ


পবিত্র তাফসীরে তাবারী শরীফ উনার মধ্যে উল্লেখ আছে- নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত নুবুওওয়াত আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশের দশ বছর পূর্বে সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। উনার পবিত্র বিলাদতী



আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সিবত্বতু মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম, জান্নাতী মেহমান, সাইয়্যিদাতুল উমাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত শাহ


সিবত্বতু মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম, জান্নাতী মেহমান, সাইয়্যিদাতুল উমাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত শাহ নাওয়াসী আর রবি’য়াহ আলাইহাস সালাম তিনি হচ্ছেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস



লআকরামুল আউওয়ালীন ওয়াল আখিরীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং উনার মহাসম্মানিত হযরত আহলু


إِنَّ شَانِئَكَ هُوَ الْأَبْتَرُ অর্থ: “আপনার শান মুবারক বিরোধীরাই নির্বংশ তথা লাঞ্চিত ও অপমানিত।” (পবিত্র সূরা কাওছার শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ-৩) অর্থাৎ যে বা যারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি যথাযথ তা’যীম প্রদর্শন করবে



সুন্নত উনার গুরুত্ব সম্পর্কে


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যে সমস্ত পবিত্র বিষয়টি মহান আল্লাহ পাক হালাল করেছেন, সেগুলো তোমরা হারাম করো না। এ বিষয়ে তোমরা সীমালঙ্ঘন করোনা। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক সীমালঙ্ঘনকারীদের পছন্দ করেন না। এই সম্মানিত আয়াত শরীফ নাযিল হওয়ার জন্য



প্রসঙ্গ: সমস্ত কাফিররা মুসলমানদের বিরুদ্ধে এক! মুসলমান ও দ্বীন ইসলামের বিরুদ্ধে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্যজোট পরিষদ এক হতে পারলো।


মহান আল্লাহ পাক তিনি যে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেছেন- মুসলমানদের প্রধান শত্রু ইহুদী অতঃপর মুশরিক অর্থাৎ সমস্ত বিধর্মীরা মুসলমাদের শত্রু। আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- “সমস্ত কাফিররা মুসলমানদের বিরুদ্ধে এক”। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান



ভোলাহাটে ব্যাপকভাবে ঈদে মীলাদে হাবীবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালিত


কুল-কায়িনাতের সর্বশ্রেষ্ঠ ঈদ সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা সুমহান সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরেও যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা, ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে গত ইয়াওমুল জুমু’য়াতে দেশের



পথশিশুদের নিয়ে রাষ্ট্রপ্রধানের বক্তব্য জাতির জন্য আশার আলো


“কোনো শিশু রাস্তায় জীবনযাপন করবে না। আমরা ১৬ কোটি লোকের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি। তাই, প্রায় ৩৪ লাখ পথ শিশুকে খাওয়ানোর সক্ষমতা সরকারের রয়েছে।” সম্প্রতি রাষ্ট্রপ্রধানের এমন বক্তব্যে গোটা জাতি ব্যাধিমুক্তির প্রশান্তি অনুভব করেছে। কেননা পথশিশুরা আমাদের জাতির কান্না। বাংলাদেশকে একটি



মহিমান্বিত ২রা মুহররমুল হারাম শরীফ। আবু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, যবিহুল্লাহ, খয়রুল বাশার, সাইয়্যিদুল আরব, আবুল বাশার, ছহিবু


মহিমান্বিত ২রা মুহররমুল হারাম শরীফ। আবু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, যবিহুল্লাহ, খয়রুল বাশার, সাইয়্যিদুল আরব, আবুল বাশার, ছহিবু নূরে মুজাসসাম হযরত খাজা আব্দুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করার সুমহান দিন। উম্মাহর উচিত এ দিনের মা’রিফত অর্জন



ভারতের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকায় শত শত ফেনসিডিল কারখানা। উৎপাদিত হয় কোটি কোটি বোতল ফেনসিডিল। দেশ আজ মাদকে সয়লাব। বাড়ছে


দেশজুড়ে নিয়ন্ত্রণহীন মাদকাসক্তির বিস্তৃতি ক্রমেই হয়ে উঠেছে সর্বগ্রাসী। এই ভয়াল মাদকাসক্তি তারুণ্য, মেধা, বিবেক, লেখাপড়া, মনুষ্যত্ব- সবকিছু ধ্বংস করে দিচ্ছে। বিনষ্ট করে দিচ্ছে স্নেহ-মায়া, ভালোবাসা, পারিবারিক বন্ধন পর্যন্ত। মাদকাসক্ত সন্তানের হাতে বাবা-মা, ঘনিষ্ঠ স্বজন নির্মম হত্যাকা-ের শিকার হচ্ছে, নেশাখোর পিতা মাদক



ভারতে বেকারত্ব চরমে: উত্তর প্রদেশে ৩৬৮ পিওন পদে প্রার্থী ২৩ লাখ, ডক্টরেটরাও দরখাস্ত করছে!


ভারতের জনবহুল উত্তর প্রদেশে চরম বেকারত্ব চলছে। রাজ্য সরকার সম্প্রতি বিধানসভা সচিবালয়ের জন্য পিওন পদে লোক নিতে বিজ্ঞপ্তি জারি করে। প্রার্থী তালিকায় রয়েছে ইঞ্জিনিয়ার, ডক্টরেটরা! ৩৬৮টি শূন্য পদের জন্য মাধ্যমিক পাস এবং সাইকেল চালাতে জানা প্রার্থীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র চাওয়া হয়।



পবিত্র কুরআন শরীফ এবং পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের দৃষ্টিতে পবিত্র কুরবানী


  খ্বালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- انا اعطينك الكوثر فصل لربك وانحر অর্থ: “হে আমার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আমি আপনাকে কাওছার বা বহু কল্যাণ হাদিয়া করেছি। অতএব, আপনি আপনার



শাহনাওয়াসীদ্বয়ের কিরণ


[…ওই ফযরের আযানের সুমধুর সূরে শাহনাওয়াছী বলে আওড়ে কী কহে গুণগুণ করে !…] শাহযাদীর আলো নিয়ে ছড়িয়ে রশ্মির রাশি শাহদামাদজীর হুজরায় এলেন দুই শাহনাওয়াছী ॥ রাঙান মোদের- দৃষ্টিতে মায়ায় জড়ান- ছোঁয়াতে আলোর বানে চমকায় হাবীবী ধারার হুজরা, খুশির প্লাবনে সবে দুরূদে