নুর আলম দেওয়ান -blog


...


নুর আলম দেওয়ান
 


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি হাক্বীক্বী মুহব্বত উনার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সাইয়্যিদুনা হযরত


এক ব্যক্তি ছিল, তার নাম ছিল বিশর। সে মুসলমান দাবি করতো, হাক্বীক্বত সে ছিল মুনাফিক। এই মুনাফিক বিশরের সাথে এক ইহুদীর সাথে গ-গোল হয়ে যায়। যখন গ-গোল হয়ে গেল, তখন মুনাফিক বিশরকে ইহুদী বললো, হে বিশর এটার বিচার বা ফায়ছালা করতে



২রা রজবুল হারাম শরীফ সাইয়্যিদুনা হযরত ক্বাসিম আলাইহিস সালাম বিছাল শরীফ গ্রহণ করেন


: এই দিনে সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত প্রথম আওলাদ সাইয়্যিদুনা হযরত ক্বাসিম আলাইহিস সালাম বিছাল শরীফ গ্রহণ করেন পৃথিবীর ইতিহাসে এক মহাস্মরণীয় এক দিন হচ্ছে ২রা রজবুল হারাম। এই দিনে



সন্ত্রাসীদের বইকে ‘জিহাদী বই’ না বলে ‘সন্ত্রাসী বই’ বলতে হবে


অমুসলিম তথা ইসলামবিদ্বেষীদের একটা বড় ধরনের কুট-কৌশল হলো পবিত্র ইসলামের বিভিন্ন বিষয়গুলোকে বিকৃত করা কটাক্ষ করা ও হেয় করে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে লেখালেখির মাধ্যমে প্রকাশ করা। তারই একটা ঘৃণ্য উদাহরণ হলো- উগ্র সন্ত্রাসীদের বইগুলোকে ‘সন্ত্রাসী বই’ বলে না বলে ‘জিহাদী বই’



দেশের চলমান ‘শিক্ষানীতি’ কিভাবে ইসলাম ও মুসলমানদের হতে পারে?


দেশের বর্তমান শিক্ষানীতি অনুযায়ী যে সকল পাঠ্যবই প্রণীত হয়েছে, সেখানে পড়ানো এমন কিছু বিতর্কিত বিষয় পড়ানো হচ্ছে যেগুলো কোনোভাবেই ইসলাম সমর্থন করে না। বরং ওই সকল পাঠবইয়ের গল্প, কবিতা, রচনাগুলো মুসলমানদের ঈমান ও মুসলমানিত্বকেই বিনষ্ট করে দিচ্ছে। পাঠ্যবইগুলোর অর্ন্তভুক্ত রচনা, কবিতা



হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার সুমহান কয়েকটি উপদেশ


  সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনাকে গ্রহণে অগ্রগামী, দুনিয়া বিরাগী, আখিরাতের প্রতি অনুরাগী, পরহেজগার, মহাজ্ঞানী, চিন্তাশীল, সম্মানিত দ্বীন উনার ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বনকারী, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আশিক, পবিত্র সুন্নত উনার একনিষ্ঠ অনুসারী, পদের মোহমুক্ত, ইবাদতগুজার, দানশীল-দানবীর,



দেওবন্দীরা কেন হিন্দু হবে না?


(১) দেওবন্দীরা (২০০৮ এবং ২০১১ সালে) ফতওয়া দেয় “গরু কুরবানী করা যাবে না, কারণ গরু হিন্দুদের দেবতা।” (নাউযুবিল্লাহ) (২) দেওবন্দ মাদরাসার ২৯তম বার্ষিকীতে কাট্টা গোঁড়া হিন্দু ঠাকুর রবি সঙ্করকে প্রধান অতিথি বানায়। নাঊযুবিল্লাহ! (৩) দেওবন্দ মাদরাসার ৩০তম বার্ষিকীতে তারা আরেক কাট্টা



হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম তিনি ছিলেন মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার


  হযরত আল্লামা জামী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বর্ণনা করেন, একদিন নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম উনাকে ডানে ও স্বীয় ছাহিবযাদা হযরত ইবরাহীম আলাইহিস সালাম উনাকে বামে বসিয়েছিলেন। এমতাবস্থায় হযরত জিবরীল আলাইহিস



ধর্মব্যবসায়ীদের মাদ্রাসাতে কুরবানী চামড়া দিলে তা আদায় হবে না


বর্তমানে অধিকাংশ মাদ্রাসাগুলোই হচ্ছে জামাতী, ওহাবী, খারিজী মতাদর্শের তথা সন্ত্রাসী তৈরির সূতিকাগার। ইসলামের দোহাই দিয়ে, ইসলামের নামে গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক স্বার্থ ও প্রতিপত্তি হাছিলের প্রকল্প। ইসলামের নামে নির্বাচন করার ও ভোটের রাজনীতি করার পাঠশালা- যা ইসলামে সম্পূর্ণ হারাম। কাজেই, জামাতী, খারিজী, তাবলীগী,



কারো উপর যদি পবিত্র হজ্জ ফরয ওয়াজিব হয় তবে তার জন্য একই সাথে পবিত্র রওজা শরীফ উনার জিয়ারত করতে


প্রতিবৎসর পবিত্র হজ্বের মৌসূম আসলেই ইহুদী নাছারাদের মদদপুষ্ট ওহাবী খারেজী ও বিদাতীদের ষড়যন্ত্র শুরু হয়ে যায় কি করে মুসলমানদের পবিত্র হজ্জকে নষ্ট করে দেয়া যায়। নাউযুবিল্লাহ! এই অসৎ উদ্ধেশ্যে তারা ইত:মধ্যে পবিত্র হারামাইন শরীফাইনে সিসিটিভি লাগিয়েছে, পুরুষ মহিলাদের জন্য পর্দার সাথে



নিঝুম দ্বীপ : যেখানে ত্রাণ যায় না কখনো ,,


বার বার প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার হওয়ার পরও সরকারি-বেসরকারি সংস্থার ত্রাণ পৌঁছায় না হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের ১৩ হাজার পরিবারের কাছে। দ্বীপবাসীদের অভিযোগ, বিগত বছরগুলোতে যে কয়টি প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাস তাদের উপর দিয়ে গেছে তার সবগুলোতে এখানকার লোকজন ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।



পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে জালটাকার দুষ্টচক্ররা আবার সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সাধারণের ভোগান্তি নিরসনে রাষ্ট্রযন্ত্রের আরো বেশি উদ্যমী এবং দ্বীন


গত শনিবার ও রোববার দু’দিন ধরে পরিচালিত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অভিযানে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর ও যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে ধরা পড়েছে নগদ ১০ কোটি টাকা ও জালনোট তৈরির সরঞ্জামসহ জড়িত নয়জন। দীর্ঘদিন ধরে জালটাকা তৈরি করে দেশ-বিদেশে রমরমা বাণিজ্য খুলে বসেছিল



শতকরা ৯৭ ভাগ মুসলমানদের এ দেশে প্রাণীর ছবি প্রদর্শিত হতে পারবে না


পবিত্র কুরআন শরীফ-এ খালিক্ব, মালিক, রব মহান আল্লাহ পাক তিনি সুস্পষ্টরূপে ঘোষণা করেছেন যে, “উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যে বিষয়ে বিরত থাকতে বলেছেন এবং যা ছেড়ে দিতে বলেছেন তা থেকে অবশ্যই বিরত থাকতে হবে বা ছেড়ে