মেঘমালা -blog


...


 


গাউছুল আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার মতো ওলীআল্লাহগণই ইবলিস শয়তানের ধোঁকা থেকে সর্বাবস্থায় নিরাপদ


কিতাবে বর্ণিত আছে, সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি যখন কঠিন ইবাদত, রিয়াজত-মুজাহাদার সর্বোচ্চ সোপানে অধিষ্ঠিত, ঠিক সে সময় উনার সম্মুখে একটি আলোর ঝলক উদ্ভাসিত হলো, সেখান হতে একপ্রকার আকৃতিও জাহির হলো। সেই আকৃতি আওয়াজ করে বলে উঠলো, ‘হে আল্লাহ



রজবুল হারাম মাস উনারই ১৩ তারিখ পবিত্র মক্কা শরীফ-এ ¬পবিত্র কা’বা শরীফ উনার অভ্যন্তরে পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, হযরত উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একবার সকাল বেলা সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কালো পশমের



মুসলমান হারাম-নাজায়িয ও বেদ্বীনী-বদদ্বীনী কাজে মশগুল থাকার কারন


সম্মানিত ইসলামী তর্জ-তরীক্বা এবং পর্বগুলোকে গুরুত্ব না দেয়া এবং পালন না করার কারণেই মুসলমান হারাম-নাজায়িয ও বেদ্বীনী-বদদ্বীনী কাজে মশগুল হয়ে থাকে। নাউযুবিল্লাহ! মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট একমাত্র মনোনীত দ্বীন হচ্ছেন সম্মানিত ও



চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যকে ‘প্রডাক্ট অব দি ইয়ার’ ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রপ্তানি পণ্যের বাজার বহুমুখী করার ওপর গুরুত্বারোপ করে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যকে ২০১৭ সালের জন্য ‘প্রডাক্ট অব দি ইয়ার’ (জাতীয়ভাবে বার্ষিক পণ্য) ঘোষণা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘উদীয়মান চামড়া শিল্পখাতের অন্তর্নিহিত সকল সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর উদ্দেশে আমি আগামী ২০১৭



কৃষি নির্ভর বাংলাদেশের প্রতি ষড়যন্ত্রীরা সবচেয়ে বড় সুযোগ নিতে উদগ্রীব বীজ-এর ক্ষেত্রে। বীজ নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে তাই সরকারকেই সমধিক


মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম উনার আবির্ভাব স্থল হিসেবে এ বাংলাদেশকে মহান আল্লাহ পাক তিনি অনন্য উর্বরা ভূমি হিসেবে তৈরি করেছেন। এদেশের মাটিতে সোনা ফলে। এদেশের উন্নতিকল্পে তাই কৃষি তথা কৃষি অর্থনীতি সমুন্নত করার বিকল্প নেই। পাশাপাশি স্মরণ



নওমুসলিম রুশ গুপ্তচর লিতভিনেনকো হত্যায় পুতিনের ‘সম্মতি’ ছিল : যুক্তরাজ্য


সাবেক কেজিবি গুপ্তচর নওমুসলিম অ্যালেক্সান্ডার লিতভিনেনকোকে তেজস্ক্রিয় বিষপ্রয়োগে হত্যা করার পেছনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সম্মতি ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। মৃত এই গুপ্তচরের উপরে অনুসন্ধান শেষে এমন ধারনাই পোষণ করেছেন যুক্তরাজ্য। গত ইয়াওমুল খামিস (বৃহস্পতিবার) ব্রিটিশ বিচারক রবার্ট ওয়েন এ



আল হাদী, আলুল্লাহ, আকরামুল উম্মাহ, ছালিছুল ক্বওম, খলীফায়ে ছালিছ, আমীরুল মু’মিনীন হযরত উছমান যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম উনার সুমহান


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “ইজ্জত ও সম্মান হচ্ছে কেবলমাত্র মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন উনার জন্য এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জন্য আর যারা ঈমানদার



প্রসঙ্গ: সাইয়্যিদাতুল উমাম, আওলাদে রসূল, ওলীয়ে মাদারযাদ, হযরত শাহ নাওয়াসী ছালিছা ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ দিবস।


প্রসঙ্গ: লখতে জিগারে মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবাতুল্লাহ, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতুল উমাম, আওলাদে রসূল, ওলীয়ে মাদারযাদ, হযরত শাহ নাওয়াসী ছালিছা ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ দিবস। উনার শান-মান সম্পর্কে অবগত হওয়া এবং উনাদের তা’যীম-তাকরীমে তথা সার্বিক খিদমতের আঞ্জামে নিবেদিত হওয়া



বাংলাদেশ মুসলমানদের; নাকি হিন্দুদের? কথিত জন্মাষ্টমীতে গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাঘাট বন্ধ করে হিন্দুদের মিছিল! কিন্তু মুসলমানদের কুরবানীতে এত চুলকানী কেন?


  খবরে এসেছে- ঢাকা শহরে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে হিন্দুরা দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল করে। মিছিলের কারণে ঢাকা শহরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। (সূত্র: দৈনিক কালেরকণ্ঠ, ০৬.০৯.২০১৫) বাংলাদেশে মাত্র ২ ভাগেরও কম সংখ্যক হিন্দু, তথাপি তারা যেখানে সেখানে রাস্তাঘাট বন্ধ করে দিয়ে মিছিল



টুঙ্গিপাড়া নওমুসলিম রোগী খুন: হিন্দু হলে কি খুনিরা বিচারের ঊর্ধ্বে থাকে ?


কিছুদিন আগে বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় এক নওমুসলিম তরুণীকে এক হিন্দু ডাক্তার ও হিন্দু নার্স মিলে ষড়যন্ত্র করে হত্যা করেছে। অথচ এখনও সেই হিন্দু ডাক্তার ও নার্সের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ। উল্টো এ সাম্প্রদায়িক হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে টুঙ্গিপাড়ার ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা সোচ্চার হলে



সুমহান ৫ই শা’বান ও ১৫ই শা’বান এ মুবারক দিবস দুটি যে কারণে আরো বরকত ও রহমতপূর্ণ


সাইয়্যিদু শাবাবি আহলি জান্নাহ ইমামুছ ছানী সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম ও সাইয়্যিদু শাবাবি আহলি জান্নাহ ইমামুছ ছালিছ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম উনারা ছিলেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার



পবিত্র মি’রাজ শরীফ উপলক্ষে রোযা রাখার ও রাতে ইবাদত করার ফযীলত


পবিত্র মি’রাজ শরীফ বিশ্বের সকল মুসলমান উনাদের জন্য খুবই তাৎপর্যমন্ডিত এবং ফযীলতপূর্ণ দিন। যে ব্যক্তি পবিত্র মি’রাজ উনার দিনে অর্থাৎ পবিত্র ২৭ তারিখে রোযা রাখবে মহান আল্লাহ পাক তিনি তাকে পাঁচ বছর রোযা রাখার ফযীলত দান করবেন। সুবহানাল্লাহ! পবিত্র রজবুল হারাম