মেঠোপথ -blog


...


মেঠোপথ
 


খায়রুল কুরুনে পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালনের দলীল দেখে নিন। খলীফা হারুনুর রশীদের যামানায় মীলাদ শরীফ


আল্লামা সাইয়্যিদ আবু বকর মক্কী আদ দিময়াতী আশ শাফেয়ী রহমতুল্লাহি আলাইহি (১৩০২ হিজরী) উনার বিখ্যাত কিতাব “ইয়নাতুল ত্বলেবীনে” বর্ণনা করেন, أنه كان في زمان أمير المؤمنين هارون الرشيد شاب في البصرة مسرف على نفسه وكان أهل البلد ينظرون إليه بعين التحقير



জাহান্নামের আমল ততটুকু করুন যতটুকু শাস্তি আপনি সহ্য করতে পারবেন


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “যে ব্যক্তি এক জাররা পরিমাণ নেকী করবে, তার বদলা সে পাবে। আবার এক জাররা পরিমাণ পাপ কাজ করবে, তার শাস্তিও সে পাবে।” (পবিত্র সূরাতুল যিলযাল শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-৭, ৮) নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আগমন উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করে আবু লাহাব ফায়দা পেলে মু’মিন


বিশ্বখ্যাত ঐতিহাসিক আল্লামা হযরত ইয়াকুব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ‘তারীখে ইয়াকুবী’ গ্রন্থের ১ম খন্ড ৩৩০ পৃষ্ঠায় লিখেন- قال رسول الله، بعد ما بعثه الله: رأيت أبا لهب في النار يصيح العطش العطش فيسقي في نقر إبهامه. فقلت: بم هذا؟ فقال: بعتقي ثويبة



সিবতু মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম, ইমামু আহলি বাইত, ক্বায়িম-মাক্বামে ইমামুছ ছানী আলাইহিস সালাম সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদুল উমাম আলাইহিস সালাম


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, اِنَّـمَا يُرِيْدُ اللهُ لِيُذْهِبَ عَنْكُمُ الرِّجْسَ اَهْلَ الْبَيْتِ وَيُـطَـهِّـرَكُمْ تَطْهِيْرًا. অর্থ: “হে মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম, নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি চান আপনাদের থেকে সমস্ত প্রকার অপবিত্রতা দূর করে আপনাদেরকে পবিত্র



কাফির-মুশরিকরা ধ্বংস হবেই হবে। ইনশাআল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘যদি তোমরা অর্থাৎ মুসলমানগণ পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের উপর ইস্তিকামত থাকো এবং হাক্বীক্বী মুত্তাক্বী হও, তবে কাফির-মুশরিক অর্থাৎ বিধর্মীদের কোনো ষড়যন্ত্রই তোমাদের কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।’ সুবহানাল্লাহ! বর্তমানে মুসলমানগণ



রাজধানীতে হকার্স পুনর্বাসন অলীক স্বপ্ন, সমস্যার একমাত্র সমাধান হতে পারে ঢাকা বিকেন্দ্রীকরণ


রাজধানীর হকারদের পুনর্বাসন করতে না পেরে হকার সমস্যা নিয়ে সিটি করর্পোরেশন প্রশাসনের লেজে গোবরে অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। রাজধানীতে যানজট কমানোর জন্য হকার যেমন একটি পুরনো সমস্যা তদ্রুপ এ সমস্যা সমাধানে হকার পুনর্বাসনও বহু দিনের পুরনো দাবি। কিন্তু কোনো সরকার আজ পর্যন্ত



ভাষ্কর্য্য এবং মুর্তি একই জিনিষ


নাস্তিক-ইসলামবিদ্বেষিরা এবং তাদের দালাল মিডিয়া, এমনকি তথাকথিত বুদ্ধুজীবি, মন্ত্রী এমপিরাও প্রতিমা, ভাস্কর্য ও মূর্তিকে আলাদা আলাদা বলতে চায়।তারা বলতে চায়” প্রতিমা হল মানুষ যার আরাধনা উপাসনা করে, ইহকালে-পরকালে মঙ্গল চায়, ভুলের ক্ষমা চায় ইত্যাদি। ভাস্কর্য্য হল মানুষসহ কোনো প্রাণী বা কোনো



ডটবাংলা ডোমেইন উদ্বোধন, ফি হাজার টাকা


ডটবাংলা ডোমেইনকে বাংলাদেশের বিজয় বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল ইয়াওমুস সাব্ত (শনিবার) দুপুর ১২টায় গণভবন থেকে ডিজিটাল কনফারেন্সের মাধ্যমে ডটবাংলা ডোমেইনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ২১ ডিসেম্বর-২০১৬ ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগকে চিঠি দিয়ে চূড়ান্ত



যৌতুকের তথ্যচিত্র


যৌতুকই হচ্ছে বাংলাদেশে নারী নির্যাতনের অন্যতম কারণ। বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা যায় গৃহ-বিবাদের ২০ থেকে ৫০ ভাগের জন্য দায়ী হচ্ছে যৌতুক । যৌতুকের জন্য নারীরা স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের কাছে মানসিক ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও অত্যাচারের শিকার। ২০১০ সালে Bangladesh Society for



বাংলাদেশে কখন ও কীভাবে যৌতুক প্রথার প্রচলন শুরু হয়


মুসলিম নিয়ম অনুযায়ী পাত্রীকে মোহরানা পরিশোধ করতে হয়। কিন্তু বর্তমানে উল্টো পাত্রী পক্ষকে যৌতুক দিতে বাধ্য করা হচ্ছে! ১৯৭০ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে যৌতুক নামক প্রথা অপরিচিত ছিল। সমীক্ষায় দেখা যায়, বাংলাদেশে ১৯৪৫-১৯৬০ সালে যৌতুকের হার ছিল ৩%। ১৯৮০ সালে আইনগতভাবে যৌতুক



উম্মুল মু’মিনীন হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার ব্যবসা বাণিজ্য


ব্যবসা-বাণিজ্য: উম্মুল মু’মিনীন হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার ব্যবসা বাণিজ্য নিয়ে সীরাতগ্রন্থসমূহে বিভিন্ন বক্তব্য পাওয়া যায়। যা লিপিবদ্ধ করলে কলবর অনেক বড় হয়ে যাবে। সংক্ষিপ্তাকারে মূলকথা হলো, উম্মুল মু’মিনীন হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার পিতা খুওয়াইলিদ ছিলেন পুরো আরব জাহানের বড়



হযরত খাদিজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম উনার শাদী মুবারক


প্রথম শাদী মুবারক: উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার প্রথম শাদী মুবারক নিয়ে ঐতিহাসিকগণ বিভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন। তবে সর্বাধিক বিশুদ্ধ, মশহূর, দলীল ভিত্তিক, নির্ভরযোগ্য এবং সর্বোচ্চ প্রণিধানপ্রাপ্ত মতে, তামীম গোত্রের আবু হালাহ হিন্দ নাব্বাশ ইবনে জুরারা উনার সাথে