নীলাভ আকাশ -blog


...


নীলাভ আকাশ
 


হিজরী ও শামসী ক্যালেন্ডারই মুসলমানদের অনুসরণ করা উচিত


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি চন্দ্র ও সূর্যের ঘূর্ণন বা আবর্তনের সাথে রাত-দিনের বা তারিখের পরিবর্তনের বিষয়টি নির্ধারণ করে দিয়েছেন। যার কারণে চন্দ্রের হিসাব অনুযায়ী-প্রবর্তন করা হয়েছে হিজরী সন ও ক্যালেন্ডার। আর সূর্যের হিসাব অনুযায়ী প্রবর্তন করা হয়েছে



সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র জীবনী মুবারক


উম্মুল মু’মিনীন হযরত খাদীজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম উনার বিছাল শরীফ মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন, وَلَا أَن تَنكِحُوا أَزْوَاجَهُ مِن بَعْدِهِ أَبَدًا অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিছাল শরীফ (বিদায়)-এর পর উনার



হাবীবী নূরে গড়া আপনারা, মামদূহজীর নূরে নূরানী আপনারা


নূরে মদীনা, গুলে মুবিনা, উম্মুল খইর, ত্বহিরা, ত্বইয়িবা শাহ নাওয়াসীদ্বয় সাইয়্যিদাতাল উমাম ॥ নানাজান হলেন ইমামুল উমাম নানীজান হলেন উম্মুম উমাম পিতাজী হলেন শাফিউল উমাম মাতাজী হলেন নক্বীবাতুল উমাম খালাজান হলেন নিবরাসাতুল উমাম মামাজান হলেন খলীফাতুল উমাম আপনারা তো হলেন সাইয়্যিদাতাল



মুবারক ৯ই রমাদ্বান শরীফ


৯ই রমাদ্বান, ৯ই রমাদ্বান আজ ঈদের দোলা, দোলছে নিরালা আসমান আর যমীন, খুশিতে বিলীন পেয়ে নূরী চাঁন। নিয়ে নূরী মাক্বাম, খলীফাতুল উমাম যুগের সেরা ওলী, হয়ে ফুলকলি সূরভী ছড়ান। ফুটে হাসনাহেনা, বলে ছিফত ছানা তিনি আউলিয়া তাজ, হলেন খোদায়ী নাজ সবার



বদর জিহাদে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের চরম তাওয়াক্কুলপূর্ণ জযবাধারী বক্তব্য


দ্বীন ইসলামের সর্বপ্রথম এই জিহাদের ময়দানে যখন একদিকে ৩১৩/৩১৫ জন মুসলিম মুজাহিদ; বিপরীতে ১ হাজার কাফির সৈন্য। সেই উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্তে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুম উনারা নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি যে বেমেছাল তাওয়াক্কুলের পরিচয় দিয়েছেন তা