রাতের তারা -blog


...


 


চিকিৎসা বিজ্ঞানের দৃষ্টিতেও বাল্যবিবাহ উপকারী; সমাজে অনৈতিকতা ছড়িয়ে দেয়াই বাল্যবিবাহ বিরোধীদের মূল লক্ষ্য


অল্প বয়সে বিবাহ ব্যাপারে পৃথিবীর সকল ধর্মের মানুষ এখন যেন দায়ভার সম্মানিত ইসলাম উনার উপর চাপিয়ে দেবার প্রতিযোগিতায় নেমেছে। আর এই অসুস্থ প্রচারণার শিকার হয়ে আজ এমনকি মুসলিমরাও এর বিরুদ্ধে বলতে শুরু করেছে অথবা নানাভাবে একে পাশ কাটিয়ে যেতে চাইছে। নাউযুবিল্লাহ!



জাহান্নামের ভয়াবহ আযাবের কথা কি ভুলে গেছেন?


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিত মি’রাজ শরীফ উনার রাতে জাহান্নাম পরিদর্শনকালে জাহান্নামীদের এক দলকে দেখতে পেলেন তাদের মুখ রক্তে পরিপূর্ণ, তারা কঠিন আযাবে পতিত এবং কঠিন আযাবে আবদ্ধ। এরা হচ্ছে মহান আল্লাহ পাক উনার নামে



পবিত্র কুরবানী উনার পশুর চামড়া যথাস্থানে দিতে হবে। যেখানে সেখানে বা যেকোনো প্রতিষ্ঠানে দেয়া যাবে না।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা নেক কাজে ও পরহেযগারীতে পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য করো। বদ কাজে অর্থাৎ পাপে ও শত্রুতায় পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য করো না।’ পবিত্র কুরবানী উনার পশুর চামড়া যথাস্থানে দিতে হবে। যেখানে সেখানে বা যেকোনো প্রতিষ্ঠানে দেয়া



পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম ১০ দিনের ইবাদত অশেষ ফযীলত লাভের মহান উপলক্ষ্য


আরবী পবিত্র যিলক্বদ শরীফ মাস উনার পরই শুরু হবে পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস। আর এ পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাসটি অত্যন্ত ফযীলতপূর্ণ একটি মাস। এ মাসের প্রথম দশদিন হলো বান্দা-বান্দির জন্য অশেষ নিয়ামত তথা অজস্র রহমত, বরকত, সাকিনা লাভের মহান এক উপলক্ষ্য।



লকডাউন কখনো কাউকে মৃত্যু থেকে রক্ষা করতে পারে না, তাই করোনা থেকে বাচঁতে লকডাউন দেয়া সম্পূর্ণ অযৌক্তিক এবং বোকামীও


খলিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, كُلُّ نَفْسٍ ذَائِقَةُ الْمَوْتِ অর্থ:“প্রত্যেক প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।” (পবিত্র সূরা আলে ইমরান শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ১৮৫) মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ



উম্মতগণ অবশ্যই নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামা উনার নাম মুবারকে পবিত্র কুরবানী করবে


পবিত্র কুরবানী উনার আদেশ করে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, فصل لربك وانحر আপনার রব মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টির জন্য নামায আদায় করুন এবং তারপরে পবিত্র কুরবানী করুন। কাজেই এ আদেশ মুবারক দ্বারাও প্রমাণিত হয় যে, পবিত্র কুরবানী



ভিন দেশের অন্ধ অনুসরন ৯৮ ভাগ মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ কখনোই করতে পারে না। তথাকথিত ‘সীমিত আকার’ কোটি কোটি মানুষের


আন্তর্জাতিক সমীক্ষা অনুসারে বাংলাদেশে ৬ কোটি কর্মক্ষম লোক রয়েছে যারা শ্রমিক, রিক্সাচালক ইত্যাদি বিভিন্ন পেশায় যাদেরকে মূলত ডেইলী লেবারের সংজ্ঞায় ফেলা যায়। সমীক্ষা অনুসারে, এদের হাতে খাবারের টাকা থাকে মাত্র ৩ দিনের। এরপর এদের না খাবার পালা। সরকার যেভাবে মসজিদে যেতে



যে জাতি বা গোষ্ঠী পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ তথা সম্মানিত শরীয়াহ উনার খিলাফ- অশ্লীল-অশালীন কাজে প্রকাশ্যভাবে


ছিহাহ সিত্তাহ উনার অন্যতম বিশুদ্ধ পবিত্র হাদীছ শরীফ গ্রন্থ “ইবনে মাজাহ শরীফ” ৪০১৯ নং পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত আছে- عَن حَضْرَتْ عَبْدِ اللهِ بْنِ عُمَرَ رَضِىَ اللهُ تَعَالٰى عَنْهُ قَالَ: أَقْبَلَ عَلَيْنَا رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَقَالَ



পবিত্র যাকাত প্রদানকারীর সীমাহীন ফাযায়িল-ফযীলত


ক) কবর, হাশর, মীযান, পুলছীরাত সব জায়াগায় তথা দুনিয়া ও আখিরাতে প্রশান্তির কারণ: এ সম্পর্কে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- خُذْ مِنْ اَمْوَالِـهِمْ صَدَقَةً تُطَهّرُهُمْ وَتُزَكّيْهِمْ بِـهَا وَصَلّ عَلَيْهِمْ اِنَّ صَلاتَكَ سَكَنٌ لَّـهُمْ وَاللهُ سَـمِيْعٌ عَلِيْمٌ. অর্থ: (ইয়া রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!)



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মুহব্বত ও আনুগত্য প্রকাশের সবচেয়ে বড়


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালাম পাক উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক ফরমান, “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি লোকদেরকে বলে দিন যদি তারা মহান আল্লাহ পাক উনাকে মুহব্বত করে, তবে যেন আপনার আনুগত্য প্রদর্শন করে।” উল্লেখ্য,



গোল্ডেন রাইস (জিএমও শস্য) চাষ করার বুদ্ধিদাতা খলনায়করা দেশ ও জাতির শত্রু


বিশ্বব্যাপী নিষিদ্ধ জিএমও ক্রপ্স (জেনেটিক্যাল মডিফাইড খাদ্য শস্য) বাংলাদেশের মতো খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ একটি দেশে কী করে অনুমোদিত হতে পারে, তা সত্যিই আশ্চর্যের বিষয়। আমাদের দেশে এই আত্মঘাতী বীজ বাণিজ্যিকিকরণের পেছনে কে বা কারা কাজ করছে তাদেরকে চিহ্নিত করা ও খুঁজে বের



মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ইসলামী শরীয়ত উনার ফতওয়া অনুযায়ী ছোঁয়াচে রোগ বা সংক্রামক রোগ বলতে কিছু নেই। ছোঁয়াচে রোগ বিশ্বাস


স্বয়ং যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি নিজেই ঘোষণা মুবারক দিয়েছেন ‘ছোঁয়াচে বলতে কোন রোগ নেই’: যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, لَيْسَ عَلَى الْأَعْمَى حَرَجٌ وَلَا عَلَى الْأَعْرَجِ حَرَجٌ وَلَا عَلَى الْمَرِيضِ حَرَجٌ