রাতের তারা -blog


...


 


ভিনদেশী উপজাতি সন্ত্রাসীরা নয়, সৃষ্টির শুরু থেকে মুসলমানগণ উনারাই বাংলাদেশসহ সারা কায়িনাতের আদিবাসী -৯


এদেশে খ্রিস্টানদের বয়স চারশত বছরের মতো। পর্তুগিজ নৌদস্যু ভাস্কো-দা-গামা ১৪৯৮ সালে ভারতের কালিকট বন্দরে পৌঁছে। পরে ইটালিয়ান, স্পেনিশ, ফরাসি, ওলন্দাজ খ্রিস্টানরাও ভাগ্যান্বেষণে এদেশে আসে। ১৬০০ সালের ২৪ আগস্ট আসে ব্রিটিশ খ্রিস্টান উইলিয়াম হকিন্স। সম্রাট জাহাঙ্গিরের দরবারে ব্যবসার অনুমতি চাইলে সম্রাট মঞ্জুর



কুরবানী নিয়ে সরকারের নতুন নিয়ম চাপিয়ে দেয়া সংবিধান পরিপন্থী এবং আইন যদি সবার জন্য সমান হয়, তবে সরকারও হবে


সরকারের একটি মহল অনেকটা জোর করেই কুরবানী সংক্রান্ত কিছু কালাকানুন জনগণের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে। বলা হচ্ছে- এবার কুরবানীর পশুর হাটের সংখ্যা গতবারের তুলনায় কমানো হবে, কিছু হাট রাজধানীর বাইরে স্থানান্তর করা হবে। আরো বলা হচ্ছে, যার যার স্বাধীন মতো কুরবানী করা



বড়ই আজব মূল্যায়ন সভ্যতার লেবাসধারী পশ্চিমা অসভ্য ও তাদের দোসরদের। শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশ থেকে এসব


শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশ বাংলাদেশ। এদেশের প্রধানমন্ত্রী মুসলমান। রাষ্ট্রপতি মুসলমান। সেনাবাহিনী প্রধান মুসলমান। নৌবাহিনী প্রধান মুসলমান। পুলিশ বাহিনী প্রধান মুসলমান। বিজিবি বাহিনীর প্রধান মুসলমান। কথা হলো- এতসব মুসলমানপ্রধানের দেশে কি করে মুসলমানদের ঈমান-আমলের খিলাফ সর্বোপরি মহান আল্লাহ পাক উনার



আসুন জেনে নেই ভারতের কোন কোন অঙ্গরাজ্যে গরু জবাই করলে কিংবা কুরবানী করলে কি কি শাস্তি


আমাদের পার্শ্ববর্তী হিন্দু নিয়ন্ত্রিত দেশ ভারতের বহু প্রদেশে গরু জবাই নিষিদ্ধ। যদিও সেখানে মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকই হচ্ছে মুসলমান। তবে ৮টি প্রদেশ ব্যাতীত অন্যান্য প্রদেশগুলোতে গরু জবাইয়ে রয়েছে কঠোর শাস্তির বিধান। আসুন, জেনে নেই কোন কোন প্রদেশে জবাইয়ের জন্য মুসলমানদের কেমন



আসুন জেনে নেই ভারতের কোন কোন অঙ্গরাজ্যে গরু জবাই করলে কিংবা কুরবানী করলে কি কি শাস্তি


আমাদের পার্শ্ববর্তী হিন্দু নিয়ন্ত্রিত দেশ ভারতের বহু প্রদেশে গরু জবাই নিষিদ্ধ। যদিও সেখানে মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকই হচ্ছে মুসলমান। তবে ৮টি প্রদেশ ব্যাতীত অন্যান্য প্রদেশগুলোতে গরু জবাইয়ে রয়েছে কঠোর শাস্তির বিধান। আসুন, জেনে নেই কোন কোন প্রদেশে জবাইয়ের জন্য মুসলমানদের কেমন



বুড়িগঙ্গার তীরে এত হাজার হাজার অবৈধ স্থাপনা থাকতে পবিত্র মসজিদগুলোর দিকে চোখ পড়লো কেন? নাকি সরকারি কর্মকর্তারা নিজেদের অপকর্ম


সম্প্রতি খবরে এসেছে, বাংলাদেশের নৌমন্ত্রী শাহজাহান খান বলেছে, “রাজধানীর চারপাশের নদীর তীরে অবস্থিত মসজিদ, মন্দির, শ্মশানসহ অবৈধ ৩০টি ধর্মীয় স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। এ ব্যাপারে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নাসির আরিফ মাহমুদকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে।



প্রসঙ্গ: পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে সরকারি চাকরিজীবীদের ২০ শতাংশ বোনাস! এ কি আকবরের দীন-ই-এলাহীর আধুনিক সংস্করণ? ৯৮ ভাগ মুসলমান


  সম্প্রতি খবরে এসেছে পহেলা বৈশাখে ‘বাংলা নববর্ষ ভাতা’ নামে একটি উৎসব ভাতা চালু করতে যাচ্ছে সরকার। সরকারি চাকরিজীবীদেরকে তাদের মূল বেতনের ২০ শতাংশ হিসেবে এই বোনাস দেয়া হবে। (সূত্র: দৈনিক সকালের খবর, ১০.০৯.২০১৫) এখানে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন আসে- সারা বছরে এত



কুরবানীর পশু জবাইর স্থান নির্দিষ্ট করা- সরকারের মারাত্মক একটি ভুল ও অপরিপক্ক সিদ্ধান্ত




মানব বন্ধন।


বিশেষ প্রতিবেদন – ৯ আগস্ট, ২০১৫ ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি ইসলামিক দলের উদ্যোগে ১৭ দফা দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক বিশাল মানববন্ধন দাবিসমূহ:- সূত্র: দিনকাল। * পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মানহানীকর কার্টুন প্রদর্শনী ও



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হযরত আহলে বাইত শরীফ ও হযরত


আজ সুমহান পবিত্র বরকতময় ২২শে শাওওয়াল শরীফ- আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত নাক্বীবাতুল উমাম আলাইহাস সালাম ও আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম উনাদের পবিত্র নিকাহ বা শাদী মুবারক দিবস। তাই সকলের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- উনাদের পবিত্র নিকাহ



ঢাকা থেকে পশুর হাট স্থানান্তর: মুসলমান উনাদের বিরুদ্ধে নতুন চক্রান্ত




পানি সমস্যার অন্যতম সমাধান ‘নদী ড্রেজিং’


‘ভারত বাঁধ দিয়ে পানি বন্ধ করে দিচ্ছে’- এ খবরে আঁৎকে উঠেছেন অনেকেই। তবে যথারীতি দেশের গণতান্ত্রিক সরকার নিশ্চুপ ও বোবা। এমন একটি খবরে জনগণের আঁৎকে উঠাটাই স্বাভাবিক। কারন বাংলাদেশমুখী নদীগুলোতে ভারত বাঁধ দিলে বাহ্যিক দৃষ্টিতে দেশের চাষাবাদসহ অন্যান্য বিষয়ে বড় ধরণের