রহমত -blog


...


রহমত
 


পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে সরকারি ছুটি বাতিল করা হোক


গণতান্ত্রিক অপরাজনীতির গ্যাঁড়াকলে স্থবির দেশের অর্থনীতি, থমকে গেছে জনজীবন। গত সোমবার শরীফ ধর্মব্যবসায়ী দল হেফাজতের হরতাল, মঙ্গল ও বুধবার ১৮ দলীয় জোটের হরতাল এবং গতকাল বৃহস্পতিবার ধর্মাশ্রয়ী সন্ত্রাসবাদী দল ছাত্রশিবিরের হরতাল আর শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি; সেই সঙ্গে আগামী রোববার



পহেলা বৈশাখের সরকারি ছুটি বাতিল করতে হবে


বাংলাদেশ শতকরা ৯৭ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশ। তাই এই দেশে পবিত্র দ্বীন ইসলাম প্রাধান্য পাবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বাস্তবে তার বিপরীত দেখা যাচ্ছে। পহেলা বৈশাখ আসলেই সারাদেশে মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবাই একাকার হয়ে উৎসব পালন করে বেড়ায়। তখন দেখে বুঝবার



মুসলমানগণের ঈমান আজ সঙ্কটাপন্ন, কে রক্ষা করবে তাদের?


মুসলমানগণের ঈমান আজ সঙ্কটাপন্ন। মুসলমানের চিরশত্রু ইহুদী-নাছারা ও মুশরিকরা চায় কী করে মুসলমানগণের ঈমান গ্রহণের পর বেঈমান করা যায়। নানা ফন্দি-ফিকির, ষড়যন্ত্র প্রতি মুহূর্তেই চলছে। এই আক্রমণ চলছে ছদ্মবেশে, সরাসরি এবং নানা চাতুর্যের মাধ্যমে। এমনি একটি আক্রমণের নাম ১লা বৈশাখ অনুষ্ঠান।



ইসলাম ধর্ম উনার নিয়ম নীতিই গ্রহণ করতে হবে


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “যে ব্যক্তি ইসলাম ধর্ম উনাকে ব্যতীত অন্য কোনো ধর্ম তালাশ করে বা করবে কখনো তার থেকে সেটা গ্রহণ করা হবে না এবং নিঃসন্দেহে সে ব্যক্তি পরকালে ক্ষতিগ্রস্থ হবে।” (পবিত্র



মিয়ানমারে বৌদ্ধ ভিক্ষুরাই মুসলিম গণহত্যা চালায়: রয়টার্স


মিয়ানমারে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের নেতৃত্বেই মুসলিম গণহত্যা চালানো হয় বলে এক বিশেষ প্রতিবেদনে জানিয়েছে রয়টার্স। ২০১১ সালে দীর্ঘ ৪৯ বছরের সেনাশাসনের অবসান হওয়ার পরপরই মুলত মুসলমানদের ওপর নির্যাতন শুরু হয়। নির্যাতনের পরিধি বাড়তে বাড়তে তা এখন গণহত্যায় পরিণত হয়েছে এবং দেশটির গণতান্ত্রিক



সব অশান্তি দূর করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চাইলে সরকার ও বিরোধীদলসহ সকলের উচিত- হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম উনার শরণাপন্ন হওয়া।


খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন বর্তমান যামানায় মহান আল্লাহ পাক উনার খাছ লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ। মহান আল্লাহ পাক তিনি উনাকে বর্তমান যামানায় পাঠিয়েছেন বিশ্ববাসীর হিদায়েত, মুক্তি ও শান্তির লক্ষ্যে। মহান আল্লাহ



বৈশাখ ও বাদশা আকবর


১লা বৈশাখ উদযাপনকারীরা বলে থাকে যে, ১লা বৈশাখ বাঙালীদের হাজার বছরের ঐতিহ্য। নাঊযুবিল্লাহ! বিষয়টি আলোচনা সাপেক্ষ: বাদশাহ আকবর যদিও মোঘলীয় এবং মুসলমান নাম নিয়ে ভারতের বাদশাহী মসনদ দখল করে। কিন্তু সে ছিল হিন্দুজাতির মদদদার এক বাদশাহ। সে মুরতাদ হয়ে দ্বীনে ইলাহীর



সাঈদীর ময়না পাখির খোঁজে মরিয়া ব্লগাররা!


যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডের শাস্তিপ্রাপ্ত জামাত নেতা মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর কথিত ময়না পাখি নামক বান্ধবীকে খুঁজে বের করার জন্য ব্লগাররা আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন। তারা চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় খুঁজে ফিরছে ময়না পাখিকে। একটি ফোনালাপের অডিও টেপের মাধ্যমে সাঈদী বিরোধীরা ফেইসবুকসহ ইন্টারনেটের



মুসলমান কিসের পিছনে ছুটছে। নিজের সর্বস্ব হারিয়ে সে তো নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে


হিন্দুদের ঘটপূজার দিন ১লা বৈশাখ ঢাকায় যেভাবে উদযাপন করা হলো- তাতে বুঝার উপায় নেই, এটা ৯৭ ভাগ মুসলমানের দেশ। ইসলাম আজ চরম বিপর্যয়ের সম্মুখীন। কোনো একজন মানুষকে দেখে বুঝার উপায় নেই- সে কোনো ধর্মাবলম্বী। মুখে দাড়ি নেই, মুসলমানের জন্য যা ফরয।