প্রভাতের সূর্য -blog


...


প্রভাতের সূর্য
 


উম্মু আবীহা, আন নূরুর রবি‘য়াহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত আওলাদ আলাইহিমাস সালাম উনাদের সম্পর্কে সম্মানিত সুসংবাদ


সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, عن على كرم الله وجهه قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم أتانى ملك فقال يا محمد إن الله تعالى يقول لك إنى قد امرت شجرة طوبى أن تحمل الدر والياقوت والمرجان



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পরেই হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের বিষয় উল্লেখ


প্রায় সমস্ত সীরাত বা জীবনী গ্রন্থসমূহ পাঠে দেখা যায় যে, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পর হযরত খুলাফায়ে রাশিদীন আলাইহিমুস সালাম উনাদের অতঃপর হযরত আশারায়ে মুবাশ্শারা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের



প্রতিদিন বারবার পড়ার মধ্যে অবশ্যই লক্ষ-কোটি শিক্ষা রয়ে গেছে


একটি বিশেষ বাক্য বা কথা কমবেশি প্রায় আমরা সবাই জানি। ‘মহান আল্লাহ পাক উনার কোনো কাজই হিকমত থেকে খালি নয়’। এ বাক্যটি ঈমানদার-মুসলমান মাত্রই বিশ্বাস করেন। আমরা প্রতিদিন প্রতি রাকয়াতের শুরুতেই যে একটি বিশেষ সূরা শরীফ পাঠ করে থাকি উনার নাম



মুসলমান উনাদের পোশাকের হুকুম


পোশাক যে অনেক বড় নিয়ামত তা বর্ণনা করে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “হে মানুষেরা! আমি তোমাদের জন্য পোশাকের ব্যবস্থা করেছি, তোমাদের দেহের যে অংশ প্রকাশ করা দূষণীয় বা নিষেধ তা ঢাকার জন্য এবং তা সৌন্দর্যেরও উপকরণ। বস্তুত তাকওয়ার



সৃজনশীল-এর দোহাই দিয়ে জাতিকে পঙ্গু করার ষড়যন্ত্র: ৫২ শতাংশের বেশি শিক্ষক এখনো সৃজনশীল বোঝে না


দেশে অর্ধেকের বেশি (৫২.০৫%) মাধ্যমিক শিক্ষক কথিত সৃজনশীল পদ্ধতি বোঝেই না। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তরের একাডেমিক পরিদর্শন প্রতিবেদন তা-ই বলছে। চলতি ২০১৭ সালের গত মে মাসে ১৮ হাজার ৫৯৮টি মাধ্যমিক স্কুলে পরিদর্শন করে মাউশি তা জানতে পেরেছে। তা



গণতন্ত্র হলো সকল হারাম কাজের মূল


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, হালাল স্পষ্ট, হারাম স্পষ্ট। আর উছূলের কিতাব উনার মধ্যে রয়েছে, হালাল থেকে হালালই বের হয় আর হারাম থেকে হারামই বের হয়। এখন এই গণতন্ত্রের মূলে রয়েছে হারাম। যেটা আমরা দেখতে পাই, এ গণতন্ত্রের



চতুর্থ খলীফা সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার বিশেষ খুছুছিয়াত তথা বৈশিষ্ট্য এবং গুণাবলী মুবারক


শেরে খোদা, ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার খুছুছিয়াত ও গুণাবলী মুবারক বহুবিধ। প্রথমত তিনি হচ্ছেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার



শহরের বাইরে কুরবানী উনার হাট হলে গরু আনতে অনেক কষ্ট হবে


ঢাকা উত্তরের প্রায় প্রতিটি কুরবানী উনার হাট-ই মেট্রোপলিটনের সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত, যাদের অবস্থান অনেকটা দুর্গম এলাকায় এবং সেখান থেকে গরু কিনে বাসায় নিয়ে আসা যথেষ্ট কষ্টসাধ্য ও খরচের ব্যাপারও বটে। ঢাকা শহরে মতো একটি মেগাসিটিতে হাটসমূহের এত দূরবর্তী অবস্থান সত্যিই কষ্টদায়ক



আশ্চর্য হলেও সত্য এ কেমন ’’ মা ”


১. গরু হচ্ছে পুংলিঙ্গ। অর্থাৎ মেল। এখন এই গরুকে মা ডাকা হয় কোন যুক্তিতে? ২.গাভী দুধ দেয়। সেই দুধ বিক্রি করে পয়সা কামায়। এ কেমন সন্তান যে তার মায়ের দুধ বিক্রি টাকা কামায়? ৩.একটা নির্দিষ্ট সময় পরে গাভী দুধ দেয়ার ক্ষমতা



পবিত্র কুরবানীর সময় বেশি দিন ছুটি প্রদান অর্থনৈতিকভাবেও লাভজনক


আমাদের দেশে একটি রীতি একরকম প্রচলিত হয়ে গেছে যে, পবিত্র কুরবানীর সময় তিন দিন ছুটি দেয়া হয়। সম্ভবত ব্রিটিশ বেনিয়ারা এটা জারি করেছিল কিন্তু অদ্যাবধি তার কোনো সংস্কার করা হয়নি। শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলমান উনাদের দেশে এটার সংস্কার করার দরকার ছিল।



পবিত্র কুরবানী নিয়ে ইসলামবিদ্বেষী মহলের চক্রান্ত অব্যাহত


পবিত্র কুরবানী নিয়ে এদেশে ঘাপটি মেরে থাকা কিছু ইসলামবিদ্বেষী মহল প্রতি বছরই নানা ধরনের চক্রান্ত করে যাচ্ছে। যেমন বিগত বছরগুলোতে যেসব ষড়যন্ত্র করেছিলো তার কিছু নমুনা এখানে তুলে ধরা হলো- ২০০৭ সালে ভারত নিয়ন্ত্রিত মিডিয়াগুলোতে প্রচারণা চালানো হয়- ‘কুরবানী না করে



পবিত্র মসজিদ শরীফ উনার মধ্যে নামায পড়ার নামে টুল বা চেয়ারে বসা বিদয়াত


ইদানীং বিশেষ করে বেশ কয়েক বৎসর যাবৎ দেখা যাচ্ছে- খালিক মালিক্ব রব মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর পবিত্র মসজিদ শরীফ উনার মধ্যে নামায পড়ার নামে কতিপয় মুসল্লী বিশেষ করে সমাজের প্রভাবশালী ব্যক্তি ও মসজিদ কমিটির লোকজনের কেউ কেউ টুল কিংবা চেয়ারে