রিয়াদুজ্জামান -blog


...


 


সবার রিযিকের মালিক মহান আল্লাহ পাক তিনি; যা কুদরতী বিষয়


ومامن دابة فى الارض الاعلى الله رزقها অর্থ: “যমীনে যত প্রাণী আছে সবার রিযিকের মালিক মহান আল্লাহ পাক তিনি।” (পবিত্র সূরা হুদ শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-৬ ) হযরত সুলাইমান আলাইহিস সালাম তিনি একবার বললেন, মহান আল্লাহ পাক আমি সমস্ত মাখলুককে এক



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র শান মুবারক উনার খিলাফ বুখারী শরীফে একটি জাল


বুখারী শরীফ, মুসলিম শরীফ নাম শুনলে পৃথিবীবাসীর কাছে আর যেন কোন দলীলই প্রয়োজন হয়না। এখানে যা আছে চোখ বুজে মানুষ মেনেও নেয়। যেহেতু হাদীছ শরীফ উনার কিতাব সেহেতু মেনে নিবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আক্বীদার ক্ষেত্রে উছূল হচ্ছে যখন এমন কোন বর্ণনা



মহান আল্লাহ পাক উনার খালিছ ওলী হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ছিলেন পবিত্র সুন্নত মুবারক জিন্দাকারী পাশাপাশি


মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার প্রিয়তম হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মাধ্যমে আসমানী ওহী প্রেরণের অবসান ঘটিয়েছেন। এরপর মানুষকে প্রশিক্ষিত ও নিবিষ্ট করার দায়িত্বে যুগে যুগে নিয়োজিত থাকেন ওয়ারাছাতুল আম্বিয়াগণ তথা



মুসলমানগণের ইবাদত-বন্দেগী নষ্টকরণে সউদী ওহাবী ইহুদী শাসকদের প্রতারণা


সউদী সরকার তবৎড় সড়ড়হ অনুযায়ী নতুন চন্দ্রমাস শুরু করে, যা শরীয়তসম্মত নয়। কারণ শরীয়তে চাঁদ চাক্ষুষ দেখা শর্ত। মূলত, তবৎড় সড়ড়হ অনুযায়ী সউদী ওহাবী ইহুদী সরকার চন্দ্র তারিখ ঘোষণা করার করণে এই তারিখ অনুযায়ী কেউ যদি রোযা শুরু করে, তবে যে



সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন,


প্রথম শাদী মুবারক: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত খিদমত মুবারক-এ আসার পূর্বে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার শাদী মুবারক হয়েছিলো ‘উবাইদুল্লাহ ইবনে জাহাশের সাথে। তখন ‘সাইয়্যিদাতুনা



বরকতময় পবিত্র শাবান মাসকে আরো রহমত মুবারক দিয়ে শুভোষিত করতে তাশরীফ নিলেন সাইয়্যিদুল উমাম আছ ছালিছ আলাইহিস সালাম ঈদ


মুবারক হো মহাসম্মানিত মহাপবিত্র ২রা শা’বান শরীফ: মুজাদ্দিদে আ’যমী হুজরা শরীফে জান্নাতী ইমাম হয়ে তাশরীফ মুবারক নিলেন সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদুল উমাম আছ ছালিছ আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ! হিজরী চান্দ্রবর্ষের অষ্টম মাস হলো ‘শাবান শরীফ’। এই মাসটি বিশেষ মর্যাদা ও ফযীলতপূর্ণ। সুতরাং এ



মুসলিম এই দেশে মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর মসজিদকে ভাঙ্গার দুঃসাহস দিলো কে?


বাংলাদেশ মুসলিমপ্রধান দেশ। আর ঢাকা শহরকে বলা হয় মসজিদের শহর। অথচ এই মুসলিম দেশে মসজিদের শহর ঢাকায় একের পর এক মসজিদ ভাঙ্গা শুরু হয়েছে। নাউযুবিল্লাহ! (১). ঢাকার মুহম্মদপুরে মসজিদ ভেঙ্গে রবীন্দ্রপূজারী গায়িকা রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে জমি দেবে সরকার। সে সেখানে রবীন্দ্র



শাহরুল্লাহিল হারাম, সম্মানিত ও পবিত্র ‘রজবুল আছম’ শরীফ মাস উনার ফাযাইল-ফযীলত মুবারক এবং আমলসমূহ


যিনি খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- إِنَّ عِدَّةَ الشُّهُورِ عِندَ اللَّـهِ اثْنَا عَشَرَ شَهْرًا فِي كِتَابِ اللَّـهِ يَوْمَ خَلَقَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ مِنْهَا أَرْبَعَةٌ حُرُمٌ ۚ অর্থ: “নিশ্চয়ই আসমান ও



সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, আত্বওয়ালু ইয়াদান, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আস সাবিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহ মুবারক


পরিচিতি মুবারক: সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, আত্বওয়ালু ইয়াদান সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আস সাবিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত ও পবিত্র নাম মুবারক হযরত যয়নব আলাইহাস সালাম। কুরাইশ গোত্রের বনু আসাদ বংশে উনার বিলাদত শরীফ। উনার সম্মানিত পিতার নাম হযরত জাহাশ আলাইহিস সালাম,



সাইয়্যিদাতু নিসায়ি, আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা, সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুল উলা আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত মহাপবিত্র বিলাদতী শান মুবারক


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুল উলা আলাইহাস সালাম তিনি আমার অন্যতম সর্বশ্রেষ্ঠ বানাত অর্থাৎ মেয়ে।” সুবহানাল্লাহ! সুমহান বেমেছাল ফযীলতপূর্ণ বরকতময় ২১শে জুমাদাল উখরা শরীফ। সুবহানাল্লাহ!



বাল্যবিবাহ নিয়ে প্রশাসনের অতি-তৎপরতা সমাজে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করছে


গত কয়েকদিন আগে পত্র-পত্রিকা বিশেষ করে ইহুদী-নাছারাদের দোসর অনলাইন পত্রিকাগুলো একটি খবর খুব হাইলাইট করে প্রচার করেছে। যেন বিশাল এক রাজ্য জয় করার মতো খবর। খবরটির মূল বিষয় ছিলো- মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার আটিগ্রামে বাল্যবিয়ে করানোর দায়ে মোশারফ হোসেন নামে এক কাজী



ইহুদী-নাছারা, মুশরিক-বৌদ্ধ, মজুসী-মুশরিকদের সর্বপ্রকার ষড়যন্ত্র থেকে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘অধিকাংশ আহলে কিতাব তথা কাফির-মুশরিকরা চায়- তোমরা পবিত্র ঈমান আনার পর তোমাদেরকে হিংসা বা শত্রুতাবশতঃ কাফির বানিয়ে দিতে।’ নাউযুবিল্লাহ! ইহুদী, মুশরিক, বৌদ্ধ, মজুসী, নাছারা প্রকৃতপক্ষে সমস্ত বিধর্মীরা মুসলমানদের চরম শত্রু।। তাই তারা সূক্ষ্মকৌশলে মুসলমানদের