সন্ধাতারা -blog


...


সন্ধাতারা
 


আসমাউর রিজাল, জারাহ ওয়াত তা’দীল, উছুলে হাদীছ শরীফ উনার অপব্যাখ্যা করে অসংখ্য ছহীহ হাদীছ শরীফ উনাকে জাল বলছে ওহাবী


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার ইমামদের ব্যাবহৃত পারিভাষিক ভাষা সমূহের পার্থক্য: হাফিয ইবনে কাছীর রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন, বিশেষ বিশেষ ইমাম উনাদের বিশেষ বিশেষ পরিভাষা রয়েছে, সেগুলো জেনে রাখা আবশ্যক। (ইখতেছারু উলুমিল হাদীছ ১০৫ পৃষ্ঠা) সকল ইমাম উনাদের ব্যবহৃত পরিভাষা একই রকম



চালু করুন যাকাত, ইনকাম ট্যাক্স নয়


প্রিয় পাঠক! আপনারা একটু ফিকির করে দেখুন- ইনকাম ট্যাক্সের কারণে মানুষদের ফরয যাকাতের গুরুত্ব নষ্ট হচ্ছে। অথচ আমরা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার জীবনী মুবারক পড়লে জানতে পারি- যাকাতের কত গুরুত্ব ও তাৎপর্য রয়েছে। হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম তিনি



সুমহান পবিত্র ১১ই যিলক্বদ শরীফ: সাইয়্যিদুল উমাম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত শাহ নাওয়াসা ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন জগৎ


মহান মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, আস্ সাফফাহ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম এবং গুলে মুবিনা, নূরে মাদীনা, নূরে জাহান সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনাদের লখতে জিগার, নিবরাসাতুল উমাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত শাহযাদী ছানী ক্বিবলা আলাইহাস সালাম



মুশরিকরা জাতে মাতাল তালে বেঠিক- বলেই ইসলাম ও মুসলিম বিদ্বেষে কমতি করেনা!


বিধর্মী বিজাতী ইহুদী মুশরিকরা কোন কালে কখনোই সভ্য মুসলমান উনাদের বন্ধু ছিলো না, বন্ধু হতে পারে না। এই বিষয়টি পবিত্র কুরআন শরীফ ও সুন্নাহ শরীফ উনাদের মাঝে বিশদভাবে অত্যন্ত পরিষ্কার ভাষায় বলে দেয়া হয়েছে। তারপরও দ্বীন ইসলাম হতে বিমুখ হয়ে পড়া



কে সন্ত্রাসী? মুসলমান নাকি কাফিররা??


আজকাল নাস্তিকরা খুব ভাব ধরে, দাবি করে- তারা খুব নিরীহ, কখনোই কারো কোনো ক্ষতি করেনি। মুসলমানরা নাকি খারাপ, মুসলমানরা নাকি সন্ত্রাসী। নাউযুবিল্লাহ! অথচ ইতিহাস কিন্তু বলে ভিন্ন কথা। ইতিহাস বলে, নাস্তিকরা যখনই কোনো দেশের ক্ষমতায় গেছে, কিংবা আক্রমণের সুযোগ পেয়েছে, তারা



নতুন সূর্য


কূল কায়িনাত আজ অন্ধকারচ্ছন্ন বিদয়াত বেশরায় পরিপুর্ণ পাপ পংকিলতায় তমাচ্ছন্ন ঘোর অন্ধকার রাত। কে আসবেন ধরার মাঝে অন্ধকার ত্বরাতে? পশু-পাখি সব করে কলরব কখন প্রভাত হবে? নাশিতে অন্ধকার ধরার মাঝে কখন আলকিত হবে? নানা ফিরকার পাতানো ফাঁদে দিশেহারা আজ সব। উথাল



মৃদু মৃদু হাওয়ায় রহমত ঝরে পরে


মৃদু মৃদু হাওয়ায় রহমত ঝরে পরে মামদুহ মোদের ইহসান করেন বারে বারে আম্মা মোদের ইহসান করেন বারে বারে।। হায় মোদের জিন্দেগি চলে ভূলের পথে দুনিয়ার ধোকায় আজ পড়ি বারে বারে।। এসেছেন এসেছেন মামদুহজী এসেছেন এসেছেন এসেছেন আম্মাজী এসেছেন। আশায় নিরাশায় মোদের



জান্নাত নসীব হয়


মৃদু মৃদু হাওয়া বয় সারা কায়িনাতময় পাখ-পাখালিরা খুশিতে মশগুল রয় ঈদী সাজে সজ্জিত হয়। আসমান হতে রহমত ঝরে ঈদে বিলাদতে নাওয়াসীদ্বয়ে খুশিতে তুলি মোরা তাকবীর ধ্বনি মীলাদ শরীফ পড়ি মোরা সকলে মিলি। মামদূহজী করিলেন ইরশাদ মুবারক সাইয়্যিদাতাল উমামী বিলাদত শরীফে যারা