সূচনা -blog


সুচনা............................................................উপসংহার ।


 


আফদ্বালুল আউলিয়া, ইমামে রব্বানী, গাউছে সামদানী, নূরে মুকাররম, বদরুদ্দীন হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার প্রতি সুসংবাদ


১। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আফদ্বালুল আউলিয়া, ইমামে রব্বানী, গাউছে সামদানী হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে সুসংবাদ দিয়ে বলেন, “আপনি ইলমে কালাম উনার মুজতাহিদ।” ২। আফদ্বালুল আউলিয়া,



আফদ্বালুন নাস বা’দাল আম্বিয়া সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার প্রতি মুহব্বত পবিত্র ঈমান এবং বিদ্বেষ পোষণ করা


আফদ্বালুন নাস বা’দাল আম্বিয়া সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার প্রতি মুহব্বত পবিত্র ঈমান এবং বিদ্বেষ পোষণ করা কুফরী! পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “তোমরা আমার হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদেরকে মুহব্বত কর। কেননা উনারা



কেউ যদি নিজেকে ঈমানদার দাবি করতে চান, উনার জন্য ফরযে আইন হচ্ছেন ‘মসজিদ ভাঙ্গার বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিবাদ করা এবং


কেউ যদি নিজেকে ঈমানদার দাবি করতে চান, উনার জন্য ফরযে আইন হচ্ছেন ‘মসজিদ ভাঙ্গার বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিবাদ করা এবং সম্মানিত মসজিদ হিফাযতে সার্বিকভাবে অংশগ্রহণ করা’ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যে ব্যক্তি মহান



আসল সন্ত্রাসী কারা? নিঃসন্দেহে বিধর্মী-কাফিররা!


আসল সন্ত্রাসী কারা? নিঃসন্দেহে বিধর্মী-কাফিররা! ১. হিটলার ১ কোটি ১০ লক্ষ মানুষকে হত্যা করেছিলো। সে কিন্তু মুসলিম ছিলো না, ছিলো খ্রিস্টান। ২. জোসেফ স্টালিন ২ কোটি মানুষকে হত্যা করেছিলো। সেও মুসলমান ছিলো না। নাস্তিক দাবি করতো। ৩. মাওসেতুং ১.৪-২ কোটি মানুষকে



আফসোস! তাদের জন্য যারা হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্মানিত লক্বব মুবারকগুলো না জানার কারণে উনাদেরকে চিনতে পারেনা;


সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে ডাকা বা আহবান মুবারক করার সর্বোত্তম আদব মুবারক বজায় রাখা মহান আল্লাহ পাক উনারই সম্মানিত নির্দেশ মুবারক। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, وَلِلّهِ الأَسْمَاء الْحُسْنَى فَادْعُوهُ بِهَا وَذَرُواْ الَّذِينَ يُلْحِدُونَ فِي أَسْمَآئِهِ



আজ খুশির ঈদ


খোশ আমদেদ, খোশ আমদেদ, আজকে খুশির ঈদ খুশিতে তাই সালিক-সালিকার চোখে নাই নীঁদ। আজ অফুরন্ত নিয়ামত শরীফ সালিক-সালিকা পাবে আজিমুশ শান মাহফিল মুবারকে শরীক যারা হবে। আজ খুশিতে আত্মহারা সকল হুর-গেলমান পালন করছি সকলে সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ আবাদুল আবাদান। আজ ঈদে



অশান্তি কেন এই দুনিয়ায়?????????


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ظهر الفساد فى البروالبحربما كسبت ايدى الناس. অর্থ: “পানিতে ও স্থলে যত অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা ঘটে তা মানুষের হাতের অর্জিত ফলাফল।” (পবিত্র সূরা রুম শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-৪১) সম্মানিত দ্বীন ইসলাম হচ্ছেন শান্তির দ্বীন।



আজ সুমহান পবিত্র বরকতময় ২২শে শাওওয়াল শরীফ- আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত নাক্বীবাতুল উমাম আলাইহাস সালাম ও আওলাদে রসূল,


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হযরত আহলে বাইত শরীফ ও হযরত আওলাদে রসূল আলাইহিমুস সালাম উনারা আসমান ও যমীনের নিরাপত্তা দানকারী।’ সুবহানাল্লাহ! তাই সকলের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- উনাদের পবিত্র নিকাহ বা



মালালার ঘটনা পুরোটাই নাটক, জন্ম হাঙ্গেরিতে ধর্ম খ্রিস্টান


বহুল আলোচিত পাকিস্তানি কিশোরী মালালা ইউসুফজাই আসলে পাকিস্তানিই নয়। তার জন্ম হাঙ্গেরিতে। মালালা নামটিও নকল,তার আসল নাম জেইন। এমনকি তার বর্তমান বাবা-মা’ও আসল নয়। তার প্রকৃত বাবা-মা দুজনই খ্রিস্টান মিশনারিজের সদস্য। তারা মালালাকে বর্তমান পাকিস্তানি পিতা-মাতাকে উপহার হিসেবে দিয়ে যান। তবে



চাঁদের তারিখ হেরফের – ২৮ রোজায় ঈদের চাঁদ দেখতে বললেন সৌদি সুপ্রিম কোর্ট


এ বছর সৌদি আরবে রমজান ২৮ দিনেই শেষ হতে পারে। এ জন্য গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চাঁদ দেখতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান সৌদি সুপ্রিম কোর্ট। চাঁদ দেখা গেলে আজ বুধবার সৌদি আরবে ঈদুল ফিতর উদ্‌যাপন হওয়ার কথা। এ ক্ষেত্রে ঈদের পরদিন আরেকটি



শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করতে যাচ্ছেন বলিউড নায়িকা মমতা কুলকার্নি


বলিউডের একসময়কার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী মমতা কুলকার্নি দীর্ঘদিন ধরেই মিডিয়া থেকে অনেকটাই দূরে অবস্থান করছেন। মিডিয়া সংশ্লিষ্ট কোনো কাজও করছেন না বলে তেমন কোনো আলোচনাতেও নেই তিনি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে শুধু ভারতীয় মিডিয়া নয়, তার আশপাশের মিডিয়াতেও মমতা কুলকার্নিকে নিয়ে আলোচনায়



মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড


একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। মুজাহিদের বিরুদ্ধে আনা ৭টি অভিযোগের মধ্যে ১, ৩, ৫, ৬ ও ৭ নম্বর অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে এবং ২ ও ৪ নম্বর অভিযোগ প্রসিকিউশন প্রমাণ করতে