সকাল-বিকাল -blog


...


 


কাইয়্যুমে আউওয়াল হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ফাযায়িল-ফযীলত ও সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহ উমরী মুবারক


কাইয়্যুমে আউওয়াল হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি এমনই একজন উলিল আমর বা নায়িবে রসূল উনার সম্পর্কে স্বয়ং আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ বর্ণনা করেছেন। যেমন তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,



সাবধান হে যুবক! মুসলমানদেরকে খেলাধুলার প্রতি ঝুঁকিয়ে দেয়া কাফিরদের একটি চক্রান্ত


পত্রিকার পাতা খুললেই দেখা যায়- যুবক-যুবতীরা হারাম খেলায় মাতাল। এমন নেশায় আসক্ত যে মহাসম্মানিত শরীয়ত উনার হুকুম পর্দা, ছতর ঢাকার প্রতি গুরুত্ব দেয় না; বরং বেহায়াপনা, বিবস্ত্রপনা, মদ ইত্যাদি হাজারো হারাম অনুষঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে। মহাসম্মানিত শরীয়ত উনার ফরয হুকুম নামায, রোযা,



সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার মুবারক বিলাদত শরীফ


ওলীয়ে মাদারজাদ, আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদ মুহম্মদ সালাহুদ্দীন আলাইহিস সালাম উনার অধস্তন মুবারক তৃতীয় পুরুষ আওলাদুর রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদ মুহম্মদ আব্দুস সবূর আলাইহিস সালাম উনার সঙ্গে ইতোপূর্বে উল্লিখিত ‘পাকু-া’ গ্রামের হযরতুল আল্লামা মুহম্মদ আব্দুল লতীফ খান ছাহিব আলাইহিস সালাম



ক্বলবের সৌন্দর্যই আসল সৌন্দর্য


মানুষ বাহ্যিকভাবে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন পোশাক দ্বারা নিজেকে সাজিয়ে নিজের সুন্দর ছুরত প্রকাশ করে থাকে। পোশাক অপরিষ্কার হলে তা টাকা পয়সা খরচ করে পরিচ্ছন্ন করে। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু মানুষ তার আভ্যন্তরীণ স্বভাব-চরিত্র সম্পর্কে উদাসীন। অথচ পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ



বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত পরিচিতি মুবারক 


আফযালুন নিসা ওয়ান নাস বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত পরিচিতি মুবারক আফযালুন নিসা ওয়ান নাস



খায়রুল কুরনে পবিত্র সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ পালনের আরও কিছু দলীল 


খলীফা হারুনুর রশীদের যামানায় পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ করার জন্য এক ব্যক্তি ওলী আল্লাহ হিসাবে আখ্যায়িত হলেন। সুবহানাল্লাহ। আল্লামা সাইয়্যিদ আবু বকর মক্কী আদ দিময়াতী আশ শাফেয়ী রহমতুল্লাহি আলাইহি (ওফাত: ১৩০২ হিজরী) উনার বিখ্যাত “ইয়নাতুল ত্বলেবীন” কিতাবে বর্ণনা করেন, أنه كان



ফাসেক-ফুজ্জার লোকদের অনুসরণ করা জায়িয নেই


আমরা প্রত্যেকেই কাউকে না কাউকে অনুসরণ করে থাকি। তবে বাজার দরে সবাইকে অনুসরণ করা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম, সম্মানিত শরীয়ত উনার সম্পূর্ণ খিলাফ ও গুনাহের কাজও বটে। কেননা মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত কালাম পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক



মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মহাসম্মানিত সিলসিলা মুবারক এবং ইলমে তাছাউফ উনার সম্মানিত সিলসিলা মুবারক উনাদের


ইলমে তাছাউফ উনার সম্মানিত সিলসিলা মুবারক: একজন ওলীআল্লাহ তিনি উনার সম্মানিত বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করার পূর্বে উনার সম্মানিত মূল নিয়ামত মুবারক উনার খাছ মুরীদকে হাদিয়া করে যান। তিনি আবার উনার খাছ মুরীদকে, তিনি আবার উনার খাছ মুরীদকে। এইভাবে ইলমে তাছাউফ



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত পিতা-মাতা আলাইহিমাস সালাম উনারা পবিত্র দ্বীনে হানিফ উনার


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আনুষ্ঠানিক নুবুওওয়াত ঘোষণার বহু পূর্বে এবং সাইয়্যিদুনা হযরত ঈসা রূহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার থেকে প্রায় পাঁচশত বছর পরে উনার সম্মানিতা পিতা-মাতা আলাইহিমাস সালাম উনারা উভয়েই



কিতাবে বর্ণিত সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কতিপয় সম্মানিত মশহূরলক্বব মুবারক এবং এই সম্পর্কে কিছু


شيبة الحمد (শায়বাতুল হামদ) চরম প্রশংসাকারী ও চরম প্রশংসিত শায়বাহ আলাইহিস সালাম: হযরত শাহ আব্দুল হক্ব মুহাদ্দিছ দেহলভী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনার বিশ্বখ্যাত কিতাব ‘মাদারেজুন নুবুওওয়াহ শরীফ’ উনার মধ্যে উল্লেখ করেন যে, সাইয়্যিদুনা হযরত জাদ্দু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে



হক্কানী ওলীআল্লাহগন উনারাই প্রকাশ্যে বাহাছের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে থাকেন


শিরক করা কবিরা গুনাহ তা সকলেরই জানা। সুতরাং ওলীআল্লাহগণ শিরকসহ যাবতীয় হারাম থেকে বেঁচে থেকে সমস্ত সুন্নাতগুলো পালন করে থাকেন। সেই সুন্নত মুবারকসমূহ পালনের ধারাবাহিকতায় পবিত্র ও সম্মানিত লক্বব মুবারক পালন করার কারণে হিংসার বশবর্তী হয়ে কিছু ওহাবী, খারেজী, বাতিল ফেরক্বার



আন্ধা ভারতের মাঝে কত গান্জা খাওয়া রীতি!!


আন্ধা ভারতের অবস্থা যে কত খারাপ তা স্বচক্ষে না দেখলে বুঝা যাবে না। কত মানুষ না খেয়ে মরতেছে তার হিসাব নাই। আর যত অদ্ভূত আর ধর্মীয় গোঁড়ামীর আবাসস্থল। পশুর চেয়ে নিকৃষ্ট স্বভাববের কথা না বললেই নয়। এমননি একটা উদাহরন নিচে দেয়া