Sunflower -blog


রহমত, দয়া, দান, ইহসান কামনায়


 


পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ উপলক্ষে রোযা রাখার এবং তওবা করার গুরুত্ব ও ফযীলত


পবিত্র রমাদ্বান শরীফ উনার রোযা ফরয হওয়ার পূর্বে পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ উনার রোযাই ফরয ছিল। কাজেই পবিত্র রমাদ্বান শরীফ উনার রোযার পরই হচ্ছে এ রোযার স্থান। এ সম্পর্কে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে- “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু



সারা বিশ্বের মুসলমান একটি দেহ স্বরূপ। দেহের এক স্থানে আঘাত পেলে যেমন তা সারাদেহে সঞ্চালিত হয়


সারা বিশ্বের মুসলমান একটি দেহ স্বরূপ। দেহের এক স্থানে আঘাত পেলে যেমন তা সারাদেহে সঞ্চালিত হয়, তেমনি একটি মুসলিম দেশ দুর্ভিক্ষপীড়িত হলে সারা মুসলিম বিশ্বে তা আলোড়িত হবার কথা। কিন্তু সোমালিয়ায় খাদ্যের অভাবে মুমূর্ষু শিশুদের রাস্তায় ফেলে যাচ্ছে মায়েরা, খাদ্যের খোঁজে



নূরে মুজাস্‌সাম, হাবীবুল্লাহ, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন্‌নাবিয়্যীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর দুনিয়াবী হায়াত মুবারকের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা।


পবিত্র মক্কা শরীফে ১। ৫৭০ খ্রিস্টাব্দ রজব মাসের প্রথম জুমুয়ার রাতে (লাইলাতুর রাগাইব) নূরে মুজাস্‌সাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিতা আম্মা হযরত আমিনা আলাইহাস্‌ সালাম-এর রেহেম শরীফে তাশরীফ আনেন। ২। হযরত খাজা আব্দুল্লাহ্‌ আলাইহিস্‌ সালাম-এর বিছাল শরীফের



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম মাস


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম মাস উনার পহেলা রাতে নিশ্চিতভাবে দোয়া কবুল হয়।’ ইয়াওমুস সাবতি বা শনিবার পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম মাস উনার চাঁদ দেখা গেলে সে



ওরা হেফাজতে ইসলাম নয়, হেফাজতে জামাত ও হেক্বারতে ইসলাম। ওরা তালেবান, ওরা সন্ত্রাসী, ওরা পবিত্র দ্বীন ইসলাম ও পবিত্র


সব প্রশংসা খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য; যিনি সকল সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ মুবারক ও সালাম মুবারক। হেফাজতে ইসলামের ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি



“নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন”


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম মাস মহান আল্লাহ পাক উনার খাছ মাস। যে ব্যক্তি শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম মাস উনাকে সম্মান করবে, সে দুনিয়া ও আখিরাতে সম্মানিত হবে।’ সুবহানাল্লাহ!



এতো হরতাল কার স্বার্থে!


হরতাল আর হরতাল! দেশ অচল হতে চলেছে! হরতাল কী জন্য? কার জন্য? হরতাল কী জনস্বার্থে, নাকি ক্ষমতায় আসার লোভে? যারা ক্ষমতায় আসার আগেই হরতাল দিয়ে জনজীবন অতিষ্ঠ করে তুলছে তারা ক্ষমতায় গিয়ে দেশ ও জাতির কী কল্যাণ করবে? হরতাল আসলে জনগণের



বিশ্বব্যাংক আসলে কি? ========== ?


বিশ্বব্যাংক আসলে কি? ========== যদি বলা হয় বিশ্বব্যাংক কিংবা আইএমএফ হচ্ছে ভুয়া আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সংস্থা কিংবা মাফিয়া চক্র- এতে অধিকাংশ মানুষ বিভ্রান্ত হলেও যারা অন্তর্দৃষ্টি, দূরদৃষ্টি এবং প্রজ্ঞাসম্পন্ন তারা প্রথমেই বিষয়টি সর্বাংশে সঠিক বলে মেনে নিবে। বিষয়টি এতোই গভীর ষড়যন্ত্র যে,



বাংলাদেশের গুটিকয়েক হিন্দুর জন্য আবার আলাদা ভূখণ্ড দিতে হবে!


বাংলাদেশের গুটিকয়েক হিন্দুর জন্য আবার আলাদা ভূখণ্ড দিতে হবে! এটাকি মামুর বাড়ির আবদার! বাংলাদেশে অবস্থানকারী মাত্র ২ শতাংশেরও কম হিন্দুর জন্য স্বাধীন ভূখ- দাবি করে ‘মামুর বাড়ি আবদার’ করে বসেছে ভারতীয় হিন্দুরা। গত ১৭/০৪/২০১৩ ঈসায়ী তারিখে প্রকাশিত আসাম রাজ্যের একটি বাংলা



সারা বিশ্বের মুসলমান একটি দেহ স্বরূপ


সারা বিশ্বের মুসলমান একটি দেহ স্বরূপ। দেহের এক স্থানে আঘাত পেলে যেমন তা সারাদেহে সঞ্চালিত হয়, তেমনি একটি মুসলিম দেশ দুর্ভিক্ষপীড়িত হলে সারা মুসলিম বিশ্বে তা আলোড়িত হবার কথা। কিন্তু সোমালিয়ায় খাদ্যের অভাবে মুমূর্ষু শিশুদের রাস্তায় ফেলে যাচ্ছে মায়েরা, খাদ্যের খোঁজে



সরকারকে বলছি- হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার জীবনী মুবারক সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করুন


হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত হচ্ছে ‘ঈমান’। উনাদেরকে অনুসরণ-অনুকরণ করা সকল মুসলমানের জন্য ফরয-ওয়াজিব। তাই সকল মুসলমানের জন্য উনাদের জীবনী মুবারক জানাও ফরয-ওয়াজিব। সাইয়্যিদাতুন নিসা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্যতম।