tahkik9 -blog


writer


 


বৈশাখী পূজা নয়, ঈদে মিলাদে হাবীবি উপলক্ষে ভাতা বোনাস চাই


বৈশাখী পূজা নয়, ঈদে মিলাদে হাবীবি উপলক্ষে ভাতা বোনাস চাই ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে হিন্দুয়ানী পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নয়, বরং ‘১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে বোনাস’ দিতে হবে। সম্প্রতি (১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ) খবরে এসেছে পহেলা বৈশাখে ‘বাংলা নববর্ষ ভাতা’



Image may contain: text বৈশাখী পূজা নয়, পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামই একমাত্র সার্বজননীন উৎসব।


****************************************************************************** সবাই বলে পহেলা বৈশাখ একটা সার্বজনীন উৎসব। ধর্ম যার যার আর উৎসব সবার। তাদের যুক্তি কতটূকু ঠিক। এমন উৎসব কি আমরা পালন করতে পারি যা আমাদের ধর্মের বিরুদ্ধে যায়? এমন উৎসব আমরা পালন করতে পারি না যা আমাদের ইসলাম ধর্মের



হিন্দুদের বৈশাখী পূজা উপলক্ষে বোনাস বাতিল করতে হবে |


=================================== ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে হিন্দুয়ানী পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নয়, বরং ‘১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে বোনাস’ দিতে হবে। সম্প্রতি (১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ) খবরে এসেছে পহেলা বৈশাখে ‘বাংলা নববর্ষ ভাতা’ নামে একটি উৎসব ভাতা চালু করতে যাচ্ছে সরকার। সরকারি



তাজিমী সিজদাহ করা সম্পুর্ণরূপে হারাম। নাউজুবিল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক ব্যতীত অন্য কাউকে সিজদা করা সম্পূর্ণ হারাম ও নাজায়েয এবং প্রকাশ্য শিরক-এর অন্তর্ভূক্ত। চাই সিজদায়ে তা’যীমী হোক অথবা সিজদায়ে উবূদিয়া। অথবা তাহিয়্যার (পবিত্রতার) জন্যই সিজদা করা হোক না কেন। অর্থাৎ মহান আল্লাহ পাক ব্যতীত অন্য কাউকে ইবাদতের উদ্দেশ্যে



নবাজাতক শিশুকে তাহনীক করানো সুন্নত। সুবহানাল্লাহ!


  باب تَسْمِيَةِ الْمَوْلُودِ غَدَاةَ يُولَدُ، لِمَنْ لَمْ يَعُقَّ عَنْهُ، وَتَحْنِيكِهِ حَدَّثَنِي إِسْحَاقُ بْنُ نَصْرٍ، حَدَّثَنَا أَبُو أُسَامَةَ، قَالَ حَدَّثَنِي بُرَيْدٌ، عَنْ أَبِي بُرْدَةَ، عَنْ أَبِي مُوسَى ـ رضى الله عنه ـ قَالَ وُلِدَ لِي غُلاَمٌ، فَأَتَيْتُ بِهِ النَّبِيَّ صلى الله



কুরবানীর ফযীলত


  হাদীছ শরীফ-এ উল্লেখ আছে, ‘ইয়াওমুন নহর অর্থাৎ কুরবানীর দিনসমূহে আদম সন্তান যতো কাজ করে তন্মধ্যে মহান আল্লাহ পাক উনার কাছে সবচেয়ে প্রিয় কাজ কুরবানীর পশুর রক্তপাত।’ হাদীছ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে, একদা হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা নূরে মুজাসসাম,



প্রত্যেক মুসলমানের জন্য পহেলা বৈশাখ পালন করা হারাম ও কুফরীঃ


প্রত্যেক মুসলমানের জন্য পহেলা বৈশাখ পালন করা হারাম ও কুফরীঃ প্রশ্নঃ পহেলা বৈশাখ পালন করা কেন হারাম ?? উত্তরঃ নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হিজরতের পর মদীনা শরীফ গিয়ে ঐ এলাকাবাসীর দুটি উৎসব বন্ধ করেছিলেন। একটি হচ্ছে, বছরের প্রথম দিন



ইমামে আযম ,ইমাম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহি আলাইহি উনার প্রতি বাত্বিল ফির্কাদের মুরজিয়া অপবাদের দলিলভিত্তিক জবাব।


বর্তমানে সালাফী,লা-মাজহাবীরা তাদের কিতাবাদি,ব্লগ,ফেসবুক আইডিতে প্রচার করে যাচ্ছে ইমাম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহি নাকি মুরজিয়া ছিলেন।নাউজুবিল্লাহ। তারা দলিল হিসেবে পেশ করে থাকে বড় পীর গাউসুল আযম রহমাতুল্লাহি আলাইহি উনার গুনিয়াতুত ত্বলিবিন ও ইমাম বুখারী রহমাতুল্লাহি আলাইহি উনার তারীখুল কবীর কিতাবের কাটছাট ,



প্রতি কদম মুবারক উনার নিচে স্বর্ণের প্লেট


২২ শে জুমাদাল উলা এক বিশেষ দিন, যেদিন হযরত খাদিজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম এর নিকাহ দিবস। বিবাহের জন্য নির্ধারিত দিনে আবূ তালিব স্বীয় ভাই হযরত হামযা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুসহ হাশিমী গোত্রের নেতৃস্থানীয়দের নিয়ে হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার বাড়িতে গমন করেন।



সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ


মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যে বরকতময় ক্ষণে যখন এই পৃথিবীতে তাশরীফ আনেন, সমস্ত মখলুকাতের জন্য তা অতি মুবারক শুভক্ষণ। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র



উম্মুল মু’মিনীন হযরত খাদীজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র সংক্ষিপ্ত জীবনী মুবারক ২


ঈমান আমল হিফাজত ও জান্নাতী হতে চাইলে অবশ্যই পড়বেন মাত্র ২মিনিট লাগবে।২২ শে জুমাদাল উলা মহাসম্মানিত নিসবাতুল আযীম শরীফ। সুবহানাল্লাহ। উম্মুল মু’মিনীন হযরত খাদীজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র সংক্ষিপ্ত জীবনী মুবারক ২ পবিত্র বিলাদত শরীফ, নাম মুবারক ও বংশ উনার



২২ শে জুমাদাল উলা শরীফঃমহাসম্মানিত নিসবাতুল আযীমি শরীফ। সুবহানাল্লাহ!


আপনি কি জানেন?না জানলে ২ মিনিট ধৈর্য ধরে পড়ুন। ২২ শে জুমাদাল উলা শরীফঃমহাসম্মানিত নিসবাতুল আযীমি শরীফ। সুবহানাল্লাহ! এই দিনে উম্মাহাতুল মুমীনিন হযরত খাদীজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম উনার সাথে সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমাম্মুল মুরসালীন, খতামুন্নাবিয়্যিন,নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হু্যূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া