তাজদীদ -blog


...


 


‘বাংলাদেশে আইএস আছে’ প্রমাণ করতে মরিয়া পশ্চিমা অপশক্তি


সোনায় সমৃদ্ধ বাংলাদেশের দিকে লোলুপ দৃষ্টি এখন গোটা বিশ্বের। একথা অনস্বীকার্য যে, বিশ্ব অর্থনীতি এখন মুখ থুবড়ে পড়ছে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও সাম্রাজ্যবাদী মার্কিন মুলুক আর চীন-জাপানের মতো একসময়কার কথিত ধনী দেশগুলো এখন অর্থ মন্দায় সুপার ফকির হয়ে কঙ্কালসার হয়ে ধুকে ধুকে



মুসলমান মাত্রই প্রত্যেক মালেকে নেছাব ব্যক্তির উপর যাকাত আদায় করা ফরয


নিত্যপ্রয়োজনীয় আসবাবপত্র, মাল-সামানা ইত্যাদি বাদ দিয়ে এবং কর্জ ব্যতীত নিজস্ব মালিকানাধীন সাড়ে সাত ভরি স্বর্ণ অথবা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা এক বছর কারো নিকট থাকলে তার উপর যাকাত ফরয। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “তোমরা যাকাত দ্বারা আপন



পবিত্র কুরআনের রেফারেন্স দিয়ে মৃত্যুদণ্ডের রায় উচ্চ আদালতে


নিউজ নাইন২৪ডটকম, ঢাকা: হত্যাকাণ্ড আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ বিধানটি এসেছে পবিত্র কুরআনের বানী থেকে। সঙ্গত কারণে পবিত্র কুরআনের আয়াতের রেফারেন্স দিয়েই সাবেক ব্রিটিশ হাইকশিনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর হামলার পূর্ণাঙ্গ রায় পর্যবেক্ষণ করা হলো উচ্চ আদালতে। রায়ে তিন সন্ত্রাসীকে মৃত্যুদণ্ড ও দুজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।



পাকিস্তান সরকার স্কুলে পবিত্র কুরআন শরীফ শিক্ষা বাধ্যতামূলক করেছে, আমাদের দেশে নয় কেন?


পাকিস্তানের সকল সরকারি স্কুলে পবিত্র কুরআন শিক্ষা দেয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মুহম্মদ বলিগুর রহমান বলেছেন, সকল পাবলিক স্কুলে শিশু শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের নাজেরা (দেখে দেখে) কুরআন শিখানো হবে। আর ৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে ১০ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের



বাংলাদেশের ভূমিকম্প মুসলমানদের কুফরি-শিরকি থেকে তওবা করে ফিরে আসার ইঙ্গিত


মুসলমানদের জন্য হারাম হিন্দুয়ানী পহেলা বৈশাখের আগের দিন ভূমিকম্পে কেঁপেছিলো বাংলাদেশ। রাতের আধারে ঘর থেকে বের হয়ে পড়েছিলো অসংখ্য মানুষ। ‘আল্লাহ আল্লাহ’ বলে চিৎকার করে নিজের অজান্তেই মহান আল্লাহ পাক উনাকে ডেকেছিলো কতো মানুষ বলার অপেক্ষা রাখেনা। বিপদের সময় কিংবা মৃত্যুর



কথিত মুক্ত চিন্তা ও প্রধানমন্ত্রী


ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধচারণ করে যারা নিজেদের বিজ্ঞানমনস্ক বা মুক্তচিন্তক বলে দাবি করে সেইসব বিজ্ঞানীদের এক হাত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর কথাগুলো আমার ভালো লেগেছে। তিনি বলেছেন- ‘ফ্যাশন দাঁড়িয়ে গেছে ধর্মের বিরুদ্ধে কিছু লিখলেই তারা মুক্তচিন্তার ধারক! কিন্তু আমি এখানে কোনও মুক্ত চিন্তা



রাজধানী ফাঁকা, বর্ষবরণে এবার উপস্থিতি কম


আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, বৈশাখের ছুটিসহ তিন দিনের ছুটি ও প্রচণ্ড গরমের কারণে এবার লোকজনের উপস্থিতি অন্যবারের চেয়ে কম। বৃহস্পতিবার রমনা পার্কে বেড়াতে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে আইজিপি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, রাজধানীসহ সারা



এবার নববর্ষে পান্তা-ইলিশ বর্জন করেছে বাঙালি


অন্যান্য বারের মতো আজ পহেলা বৈশাখের প্রথম সকালে রমনা ও এর আশেপাশের এলাকায় পান্তা-ইলিশের বেচাকেনার তেমন কোনো চিত্র লক্ষ্য করা যায়নি। উৎসবে যোগ দেয়া মানুষের মধ্যেও পান্তা ইলিশ খাওয়ার  আগ্রহ লক্ষণীয় ছিলো না। বৃহস্পতিবার রমনা, মৎস্যভবন এলাকায় ঘুরে পান্তা-ইলিশের তেমন কোনো



বর্তমান কুফরী শিক্ষানীতি ‘আইন’ হিসেবে বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে; এই শিক্ষানীতি বাতিলে তীব্র প্রতিবাদ জানান


যে শিক্ষানীতি (২০১০) এর আলোকে প্রণীত হয়েছে হিন্দুত্ববাদী ও নাস্তিক্যবাদী সিলেবাস সেই শিক্ষানীতিটিই এখন ‘আইন’ হিসেবে জারি করে চিরস্থায়ী করার ব্যবস্থা করছে সরকারের অন্তরালে আরেক হিন্দুত্বাবাদী ছায়া সরকার। এজন্য সেই ষড়যন্ত্রমূলক শিক্ষানীতিটিই এখন ‘শিক্ষা আইন-২০১৬’ হিসেবে প্রণয়ন করা হচ্ছে। বাংলাদেশের প্রত্যেক



এক হারামখোর ধর্মব্যবসায়ী ওলামায়ে সূ’র পহেলা বৈশাখকে হালাল করার চেষ্টা ও তার বিভ্রান্তিকর বক্তব্যের দাঁতভাঙ্গা জবাব


ইসলাম অপব্যাখ্যাকারী মদের ব্যবসায়ী দৈনিক যুগান্তরে ইসলামী পাতায় হারাম পহেলা বৈশাখকে হালাল করার জন্য মিথ্যা ফতওয়া : প্রত্যেক বক্তব্যের খণ্ডনমূলক জবাব গত বছর দৈনিক যুগান্তরে ইসলামী পাতায় ভ্রান্ত যুক্তি দিয়ে হারাম পহেলা বৈশাখকে হালাল করার অপচেষ্টা করা হয়েছিলো। (http://www.jugantor.com/islam-and-life/2015/04/10/247269)। এখানে লেখকের



পহেলা বৈশাখের বোনাসের নেপথ্যে ‘র’-‘মোসাদ’ চক্রের খোলা মাঠে মগজ ধোলাইয়ের ঘৃণিত অপপ্রয়াস


ভারতবর্ষে মুঘল সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর সম্রাটরা হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে কৃষি পণ্যের খাজনা আদায় করতো। —– খাজনা আদায়ে সুষ্ঠুতা প্রণয়নের লক্ষ্যে মুঘল সম্রাট আকবর বাংলা সনের প্রবর্তন করে। সে মূলত প্রাচীন বর্ষপঞ্জিতে সংস্কার আনার আদেশ দেয়। সম্রাটের আদেশ মতে তৎকালীন বাংলার বিখ্যাত



ধর্মীয় শিক্ষা থেকে দূরে সরার পরিণতি: বাড়ছে বিয়ে বহির্ভূত গর্ভবতী ও ভ্রুণহত্যা


১৭ বছরের মেয়েকে নিয়ে তন্ন তন্ন করে একটা নিম্নমানের ক্লিনিক খুঁজে বের করেছেন উচ্চ-মধ্যবিত্ত পরিবারের এক মা। মা-মেয়ে হাজির হয়েছেন শ্যামলী রিং রোডের এক সাইনবোর্ড সর্বস্ব ক্লিনিকে। ক্লিনিক না বলে, ভাড়া বাসা বলা যায়। বাড়িওয়ালা জানেন না সেখানে কী হয়। সাবেক