zajiba ahmad -blog


mamduh


 


প্রত্যেকটি পিতা-মাতা তার সন্তানের জন্য এভাবে দোয়া করে যে, আয় মহান আল্লাহ পাক! আমার সন্তান কে আমার চেয়ে


প্রত্যেকটি পিতা-মাতা তার সন্তানের জন্য এভাবে দোয়া করে যে, আয় মহান  আল্লাহ পাক! আমার সন্তান কে আমার চেয়ে বড় করে দিন। এটা সমস্ত পিতা-মাতার একটা আদত। পিতা-মাতা যে দোয়া করে থাকেন সন্তানের জন্য তা নির্ঘাত কবুলযোগ্য। উনারা যদি অন্তর থেকে দোয়া



একদিনই লেখালেখি করলে কি নারীর অধিকার, নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত হয়ে যাবে?


‘নারী দিবস’ একদিন হবে কেন? একদিনই লেখালেখি করলে কি নারীর অধিকার, নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত হয়ে যাবে? তা কিন্তু নয়, ৩৬৫ দিনই নারীর মর্যাদা থাকতে হবে। শুধু তাই নয়, আমরা আশা করি পরিবারে, সমাজে, দেশে, পৃথিবীর সর্বত্রই সার্বক্ষণিক নারীরা স্ব-স্ব বৈশিষ্ট্যে উদ্ভাসিত



সরকারকে অবিলম্বে ইসলামবিরোধী এ শিক্ষানীতি পরিবর্তন করতে হবে।


শিক্ষা একটি জাতির জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ এবং স্পর্শকাতর বিষয়। শিক্ষানীতির সঙ্গে এদেশের ৯৯ ভাগ জনগোষ্ঠী মুসলমান উনাদের ভবিষ্যৎ জড়িত। এ কারণেই শিক্ষানীতি আইন প্রণয়নের সময় ব্যক্তি বা দলীয় চিন্তা ও দৃষ্টিভঙ্গির বিপরীতে এদেশের ৯৯ ভাগ জনগোষ্ঠী মুসলমান উনাদের চিন্তা চেতনা, আস্থা



নারীদের ‘সমধিকার


আফসুস! নারীদের ‘সমধিকার’ সম্পর্কেই নারী সমাজ আজ সজাগ নয়! ‘সমধিকার’ শব্দের অর্থটাই তারা বুঝতে পারে না। তথাকথিত নারীরা মনে করে, সমধিকার বলতে একজন পুরুষ যা করতে পারে একজন নারী তাদের পাশে থেকে তাই করবে। বরং তাদের এ ধারণাই ভুল, মিথ্যা এবং



পথে যেতে যেতে হঠাৎ চোখ আটকে গেল একটি দৃশ্য দেখে


পথে যেতে যেতে হঠাৎ চোখ আটকে গেল একটি দৃশ্য দেখে । একজন মা এবং তার ১৩ কি ১৪ বছরের একটি মেয়েকে সাথে নিয়ে কোথাও যাচ্ছে । কিন্তু আমার চোখ আটকে যাওয়ার কারণ হল মা বোরখা পড়েছে আর সাথের মেয়েটিকে পড়িয়েছে টাইট



মুসলমানের কি ঈমানী বল নষ্ট হয়ে গেছে নাকি সব কাপুরুষ হয়ে গেছে?


একবার আমি এক হাসপাতালে গিয়েছিলাম ডাক্তার দেখাতে । বসার মত কোন জায়গা পাচ্ছিলাম না। হঠাৎ চোখে পরলো একটা চেয়ার খালি কিন্তু পাশে এক হিন্দু মহিলা বসা, যেহেতু আর কোন সিট খালি নাই তাই কিচ্ছু করার নেই বসে পরলাম। আমি বসতেই ঐ



শা’বান মাসের চৌদ্দ তারিখ দিবাগত রাতটিই হচ্ছে বরকতপূর্ণ রাত অর্থাৎ শবে- বরাতের রাত


শা’বান মাসের চৌদ্দ তারিখ দিবাগত রাতটিই হচ্ছে বরকতপূর্ণ রাত অর্থাৎ শবে- বরাতের রাত যেই রাতটিতে মহান আল্লাহ পাক উনার দরবারে আমলনামা পেশ করা হয় এবং বান্দার রুযী-রোযগার, হায়াত-মউত ইত্যাদি বহু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের ফায়ছালা করা হয়। যেমন এ প্রসঙ্গে সূরা দুখান-এর ৪নং



কবে উঠবে সেই দিগন্তের সূ্র্য যেদিন সঠিক আক্কীদা ভূক্ত সিলেবাস দ্বারা পাঠ্যপুস্তকে শিক্ষাদান করা হবে ।


বর্তমান শিক্ষা সিলেবাস  তথা পাঠ্যপুস্তকে শিক্ষাদানের নামে কোমলমতি মুসলিম শিশু-কিশোরদের এমন সব বিষয় শেখানো হচ্ছে, যা সত্যিই বিষ্ময়কর। এসব বিষয় পড়ে   কোমলমতি মুসলিম শিক্ষার্থীরা সঠিক আক্বীদা থেকে ভ্রষ্ট হচ্ছে, নষ্ট হচ্ছে ঈমান-আক্বীদা।  একটি মুসলিম রাষ্ট্রে  পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে মুসলিম শিক্ষার্থীদের কী শেখানো



স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নিয়ে এখানকার পিতা-মাতারা বড়ই উদগ্রীব থাকে


স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নিয়ে এখানকার পিতা-মাতারা বড়ই উদগ্রীব থাকে। কারণ একাকী ছেলে কিম্বা মেয়েকে বাইরে ছাড়তে রাজি নন। এমনকি ঘরে ছেলে-মেয়েকে রেখেও পিতা-মাতারা দুশ্চিন্তা করতে থাকে টেলিভিশনে, ইন্টারনেটে মোবাইল, কম্পিউটারের মাধ্যমে হারাম ছবি দেখা থেকে। আর এই হারাম ছবি তোলা, দেখা



ইনসাফের ঝলক


  স্পেনের শাসনকর্তা একদিন রাজধানীর নিকটে একটি মনোরম স্থান দেখতে পেয়ে সেখানে তার প্রাসাদ নির্মাণ করতে চাইলেন। জমির মালিক ছিলেন একজন বৃদ্ধা । সে সেখানে একটি কুটিরে বাস করতো ।  সুলতান বৃদ্ধাকে উপযুক্ত মূল্য দিতে চাইলেন কিন্তু বৃদ্ধা তা গ্রহণ করতে



শুধু একদিন মা দিবস পালন করে হ্বক আদায় করা সম্ভব না ।


মা-বাবাকে মুহব্বত করে না এমন ব্যক্তি পাওয়া যাবেনা কোথাও । মা যে সন্তানকে দুধ পান করান তার এক ফোঁটা দুধের হ্বক আদায় করা কোন সন্তানের পক্ষে সম্ভবনা। তাহলে শুধু একদিন মা দিবস অথবা বাবা দিবস ঘটা করে পালন করে এক দিন



দ্বীনি শিক্ষা অর্জন করুন। সুখী পরিবার গড়ে তুলুন।


পারিবরিক বন্ধন সে মধুর একটা বন্ধন। বাবা- মা,  ভাই- বোন, স্বামী- স্ত্রী, সবাই মিলে একত্রে বসবাস করা, একে অপরকে মুহব্বত করা, একে অপরের আদেশ-নিষেধ শুনা– এরই মধ্যে রয়েছে মহান আল্লাহ পাক উনার কুদরত মুবারক উনার বহিঃপকাশ। মহান আল্লাহ পাক তিনি রহিম,