Archive for the ‘ইসলাম ও জীবন’ Category

উম্মাতের শ্রেষ্ঠতম কোনো ব্যক্তির বড় থেকে বড় কোনো নেক আমলও সর্বনিম্ন সাহাবীর ছোট হতে ছোট কোনো আমলের সমতুল্য হতে পারে না


সুলতান মাহমূদ গজনবী উনার আয়াজ নামে প্রিয় এক গোলাম ছিল, আয়াজের ছেলের নাম ছিল মুহম্মদ।তাকে তিনি নাম ধরেই ডাকতেন। একদিন হাম্মামখানায় ‘হে আয়াজের ছেলে পানি নিয়ে এসো’ বলে ডাক দিলেন।এতে আয়াজ আরজ করলেন , হযুর কি গোস্তাখি হলো যে ছেলের নাম

চুলে তেল দেয়া, আচঁড়ানো, সিথি করা, আয়না দেখা প্রত্যেকটি-ই সুন্নত !


মাথার চুলে তেল দেয়া, আচঁড়ানো এবং সিথি করা প্রত্যেকটি-ই সুন্নত। তেলের মধ্যে যয়তুনের তেল ব্যবহার করা খাস সুন্নত। আর পুরুষ হোক মহিলা হোক প্রত্যেকের জন্যই মাথার মধ্য দিয়ে এবং ডান দিক দিয়ে মাথা আচঁড়ানো সুন্নত। উম্মুল মু’মিনীন হযরত আয়েশা সিদ্দীকা আলাইহাস

মহিলা জামাত নিষিদ্ধ


মহিলাদের নামাজের জন্য মসজিদে গমন নাজায়িয, মহিলাদের নামাজের উত্তম জায়গা হচ্ছে নিজের ঘরের গোপন প্রকোষ্ঠ। মহিলাদের নামাজের জন্য মসজিদে গমন নাজায়িয , বরং হাদীস শরীফে আছে মহিলাদের নামাজের উত্তম জায়গা হচ্ছে নিজের ঘরের গোপন প্রকোষ্ঠ। অথচ এক শ্রেনীর অজ্ঞ লোক সাহাবায়ে

প্রকৃত আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াত উনাদের ছহীহ আক্বীদা উনাদের সংক্ষিপ্তসার আক্বাইদসমূহ


প্রকৃত আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াত উনাদের ছহীহ আক্বীদা উনাদের সংক্ষিপ্তসার আক্বাইদসমূহ প্রকৃত আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াত উনার আক্বীদা ও আমল, ইলমে ফিকাহ: ১. মহান আল্লাহ পাক, মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সমস্ত

:::::::::ক্বিয়ামত::::::::::


অন্যান্য মাখলূকাতের মধ্যে পাহাড় সবচেয়ে শক্তিশালী।কারণ কোনো কোনো পাহাড় পাথরের তৈরি আর কোনো কোনো পাহাড় লোহার মত শক্ত পদার্থ দিয়ে তৈরি।এ পাহাড় দিয়ে মহান আল্লাহ পাক পৃথিবীকে স্থির করেন।অর্থাৎ পৃথিবী যখন সৃষ্টি করা হয়েছিল তখন পৃথিবী দুলতেছিলো।এ দোদুল্যমান অবস্থা থেকে পৃথিবীকে

মহাসম্মানীত যাকাত ব্যবস্থা


*** ১. যাকাত অর্থ কি? যাকাত অর্থ বরকত বা বৃদ্ধি, পবিত্রতা বা পরিশুদ্ধি। অর্থাৎ যাকাতের সাথে যারা সংস্লিষ্ট হবেন তাদের বরকত ও বৃদ্ধি হবে এবং পবিত্রতা ও পরিশুদ্ধি হাছিল হবে। কোথায় হবে? মালী, জীসমানী এবং রূহানী। ‘মালী’ হচ্ছে মাল-সম্পদ। মাল-সম্পদে বরকত

শবে বরাত


শবে বরাত কি ? শব অর্থ রাত্রি বা রজনী,বরাত অর্থ ভাগ্য = ভাগ্য রজনী । শবে বরাত শব্দটি ফারসী । হাদীস শরীফ উনার ভাষায় লাইলাতুন নিছফি মিন শাবান । সম্মানীত কুরআন শরীফ উনার ভাষায় লাইলাতুম মুবারাকা = বরকত পূর্ণ রজনী ।

আজ দিবাগত রাতটিই সুমহান বরকতময় মহাসম্মানিত মহাপবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার বরকতপূর্ণ রাত।


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “পবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার বরকতময় রাতে আমি মহান আল্লাহ পাক উনাকে সর্বোত্তমভাবে দেখেছি।” অর্থাৎ, সরাসরি দীদার মুবারক লাভ করেছি। সুবহানাল্লাহ। আজ দিবাগত রাতটিই সুমহান বরকতময় মহাসম্মানিত মহাপবিত্র মি’রাজ

আচ্ছা! বৃষ্টি এলে রাসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কি করতেন?


  তিনি কিন্তু মোটেই বৃষ্টি থেকে দূরে সরে যেতেন না বরং প্রচণ্ড খুশি হতেন। খুব সাবধানতার সাথে উনার পবিত্র জিসিম মুবারকের কিছু অংশ উন্মুক্ত করে বৃষ্টির পরশ বুলাতেন। (সুবহানাল্লাহ) হযরত আনাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেন – “আমরা যখন রাসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি

বৈশাখী পূজা নয়, ঈদে মিলাদে হাবীবি উপলক্ষে ভাতা বোনাস চাই


বৈশাখী পূজা নয়, ঈদে মিলাদে হাবীবি উপলক্ষে ভাতা বোনাস চাই ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে হিন্দুয়ানী পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নয়, বরং ‘১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে বোনাস’ দিতে হবে। সম্প্রতি (১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ) খবরে এসেছে পহেলা বৈশাখে ‘বাংলা নববর্ষ ভাতা’

Image may contain: text বৈশাখী পূজা নয়, পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামই একমাত্র সার্বজননীন উৎসব।


****************************************************************************** সবাই বলে পহেলা বৈশাখ একটা সার্বজনীন উৎসব। ধর্ম যার যার আর উৎসব সবার। তাদের যুক্তি কতটূকু ঠিক। এমন উৎসব কি আমরা পালন করতে পারি যা আমাদের ধর্মের বিরুদ্ধে যায়? এমন উৎসব আমরা পালন করতে পারি না যা আমাদের ইসলাম ধর্মের

হিন্দুদের বৈশাখী পূজা উপলক্ষে বোনাস বাতিল করতে হবে |


=================================== ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে হিন্দুয়ানী পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নয়, বরং ‘১২ই রবীউল আউওয়াল শরীফ উপলক্ষে বোনাস’ দিতে হবে। সম্প্রতি (১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ) খবরে এসেছে পহেলা বৈশাখে ‘বাংলা নববর্ষ ভাতা’ নামে একটি উৎসব ভাতা চালু করতে যাচ্ছে সরকার। সরকারি