Archive for the ‘জানা-অজানা’ Category

যে ঘরে প্রানীর ছবি থাকে সেখানে নামাজ হবেনাঃ-


  হাদীস শরীফে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-   ﻋﻦ ﺍﺑﻦ ﻋﺒﺎﺱ ﺭﺿﻲ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ ﺍﻧﻪ ﻛﺮﻩ ﺍﻟﺼﻠﻮﺓ ﻓﻲ ﺍﻟﻜﻨﻴﺴﺔ ﺍﺫﺍ ﻛﺎﻥ ﻓﻴﺤﻬﺎ ﺗﺼﺎﻭﻳﺮ   অর্থ : হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রদ্বিয়াল্লাহু আনহু যে ঘরে প্রনীর ছবি থাকতো, সে ঘরে নামাজ পড়া মাকরুহ

শানে হয়রত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম


মোদের মালিকা, ছানী মালিকা মোদের মালিকা, শাহী মালিকা নিছবতে নছবে, সিরতে-ছূরতে ক্বায়িম-মাক্বামে আপনি কুবরা আম্মাজান মামদূহজী উনার মধ্যমণি সাইয়্যিদাহ আম্মাজীর নয়নের মণি মোদের শাহযাদী, ছানি শাহযাদী মোদের শাহযাদী, নূরী শাহযাদী। ইলিম আমলে, সুন্নাহ পালনে আপনি যে শ্রেষ্ঠা, আপনি যে শ্রেষ্ঠা ইলাহী

শানে হয়রত আর-রবি‘আ আলাইহাস সালাম


খোদায়ী রহমত হয়ে তাশরীফ কায়িনায় নূরে হাবীবী সাইয়্যিদা নববী হুজরায় রব্বানা করেন ফালইয়াফরহূ শানে হাবীবী নাওয়াসী মামদূহু আর-রবি‘আ আর-রবি‘আ আর-রবি‘আ আলাইহাস সালাম আর-রবি‘আ আর-রবি‘আ আর-রবি‘আ আলাইহাস সালাম রসূলী পেয়ারা খোদায়ী হুসনা, নিয়ামত বাটেন সদা নূরে জামিলা জান্নাতের মালিকা শাহ নাওয়াসী ত্বহিরা,

সরকার সার্কুলার জারী করেছে সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মঙ্গলশোভাযাত্রার নামে হিন্দুদের পূজার অনুষ্ঠান করতে, নাউযু‌বিল্লাহ! নাউযু‌বিল্লাহ! নাউযু‌বিল্লাহ!


৯৮ভাগমুসলমা‌নের এই দেশের সরকার সাহস পেল কি করে সরকার সার্কুলার জারী করেছে সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মঙ্গলশোভাযাত্রার নামে হিন্দুদের পূজার অনুষ্ঠান করতে, নাউযু‌বিল্লাহ! নাউযু‌বিল্লাহ! নাউযু‌বিল্লাহ! মুসলমানরা কি সবাই সরকা‌রের ম‌তো হিন্দু হ‌য়ে‌ গে‌ছে? হিন্দু‌দের খু‌শি‌তে সরকার খু‌শি। হিন্দুদের কা‌ছে সরকা‌রের বি‌বেক

পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ হলো মহান আল্লাহ পাক উনার মাসঃ


খালিক্ব মালিক রব আল্লাহ পাক সুবহানাহূ ওয়া তায়ালা তিনি এবং কুল-কায়িনাতের নবী ও রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের ঘোষণাকৃত চারটি হারাম বা সম্মানিত মাস উনাদের মধ্যে একটি হলো পবিত্র

মুসলমানদের ১৩০ ফরজের বিবরণ


ফরজের সংখা নিয়ে আলিম-উলামা, ইমাম-মুজতাহিদ, ফক্বিহ-মুহাদ্দিছগণের মধ্যে কিছু মতভেদ রযেছে। তবে অধিকাংশ উলামায়ে কিরামের মতামতের ভিত্তিতে ১৩০ ফরজের  বর্ণনা দেয়া হলো :   (ক). মুসলমানের পাচ রোকনে ৫ ফরজ: ১। কালিমা ২। নামাজ ৩। রোজা ৪। হজ্জ ৫। যাকাত।   (খ).

ঈশ্বর গুপ্ত মুসলিমবিদ্বেষিতা


আমরা জানি ঈশ্বর গুপ্ত যুগ সন্ধিক্ষণের কবি। অর্থাৎ প্রাচীন ও আধুনিক কাব্য প্রতিভা ঈশ্বর গুপ্তকে আশ্রয় করেছে। তার জন্ম ১৮১২ খ্রীস্টাব্দে। ১৫ বছর বয়সে বিয়ে করে তবে পতড়বী দুর্গামণি দেবীর সঙ্গে সে আজীবন সংসার করেনি। আশুতোষ দেবের ভাষায় “ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত কোন

বঙ্কিমচন্দ্র মুসলিমবিদ্বেষিতা


  অখণ্ড ভারতবর্ষে যখন ইংরেজের রাজত্ব তখন তাদের প্রয়োজন হয়েছিল একদল লেখক, কবি, সাহিত্যিক, নাট্যকার, ঐতিহাসিক ও বিশ্বস্ত কর্মচারীর। ইংরেজ জাতি তা সংগ্রহ করেছিল হিন্দু সম্প্রদায় হতে। ঐ হিন্দু লেখকগোষ্ঠীর গুরু হিসেবে ধরা যেতে পারে ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তকে। কারণ তার জন্যই বলা

অত্যাচারী, যালিম রবীন্দ্র পরিবারের কুখ্যাত ইতিহাস


কলকাতা জোড়াসাঁকো ঠাকুর বংশের প্রতিষ্ঠাতা দ্বারকানাথের দাদা নীলমণি ঠাকুর। সে প্রথমে ইংরেজদের অধীনে চাকুরী করে সাহেবদের সুনজরে পড়ে এবং উন্নতির দরজা খুলতে থাকে । এঁরা কিন্তু বরাবরই ঠাকুর পদবীধারী নয়, পূর্বে এঁরা ছিল কুশারী। পূর্বপুরুষ পঞ্চানন কুশারী যখন শ্রমিকের কাজ করতেন

রবীন্দ্রনাথের বাড়িতে নিয়মিত মুসলিমবিদ্বেষি আসর বসত


মুসলিম বিদ্বেষী বঙ্কিমচন্দ্রকে অত্যন্ত সমীহ করত রবীন্দ্রনাথ। কারণ তার জানা ছিল যে, বঙ্কিম ব্রিটিশরাজের এক নম্বর বাছাই করা ব্যক্তি। সে বঙ্কিম রচিত চরম সাম্প্রদায়িকতাদুষ্ট আনন্দমঠে রচিত ‘বন্দে মাতরম’ গানে সুর দেয় এবং নিজে গেয়ে বঙ্কিমকে শোনায় (রবীন্দ্র জীবনী, ১ম খণ্ড, পৃ.

”এখনতো চড় থাপ্পর দিচ্ছে আর কয়দিন পর মিয়ানমারের মত ধরে ধরে কোপাবে”


চেয়ারে বসে ডিউটি করায় পুলিশকে চড়-থাপ্পড়! পূজা চলাকালীন চেয়ারে বসে দায়িত্ব পালন করায় এক পুলিশ সদস্যকে চড়-থাপ্পড় দেয়ার অভিযোগে পূজা উদযাপন কমিটির এক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ টায় বন্দরের ২নং ঢাকেশ্বরী মন্দিরে পূজা চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা

বিনা খরচে বিদায় করুন এলার্জি


মানবজীবনে এলার্জি কতোটা ভয়ঙ্কর তা যিনি ভুক্তভোগী শুধু তিনিই জানেন। এর উপশমের জন্য কতোজন কতো কিছুই না করেন। তবুও সুরাহা হয় না। কতো সুস্বাদু খাবার চোখের সামনে দেখে জিহ্বাতে পানি আসলেও এলার্জি ভয়ে তা আর খাওয়া হয় না। এজন্য বছরের পর