Archive for the ‘ধর্মব্যবসায়ীদের মুখোশ’ Category

যুগে যুগে উলামায়ে ‘সূ’ পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার চরম ক্ষতি করেছে


যুগে যুগে উলামায়ে ‘সূ’ পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার চরম ক্ষতি করেছে । শের শাহ শূরীর নিকট পরাজিত সম্রাট আকবরের পিতা হুমায়ূন যখন সপরিবারে পলায়ন করছিল তখন বর্তমান পাকিস্তানের অমরকোটে এক রাজপ্রাসাদে আকবরের জন্ম। প্রথম জীবনে লেখাপড়ার সুযোগ না পেলেও বৈরাম খাঁর

সন্ত্রাসী ইহুদীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের নিকৃষ্ট দালাল সউদী ওহাবী বাদশাহদের গোঁমর ফাঁস!


বহুদিন যাবৎ মুসলিম অধ্যুষিত ফিলিস্তিনে ধারাবাহিক গণহত্যা চালাচ্ছে সন্ত্রাসী ইহুদীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল। সর্বশেষ ২০১৪ সালের নভেম্বর মাস থেকে তারা আরো একধাপ এগিয়ে মুসলিম নিধন অভিযানে নামে। নৃশংস এই গণহত্যা সবার চোখের সামনে ঘটলেও, এর বিরুদ্ধে বলার মত যেন কেউ নেই!

সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বিরোধিতাকারীরা পঁচে-গলে আকৃতি বিকৃতি হয়ে মারা যাবে ॥ এর নিকৃষ্ট উদাহরণ শায়খুল হদস আজিজুল হক, যা তার ছেলে নিজ মুখেই স্বীকার করেছে


সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বিরোধিতাকারীরা পঁচে-গলে আকৃতি বিকৃতি হয়ে মারা যাবে ॥ এর নিকৃষ্ট উদাহরণ শায়খুল হদস আজিজুল হক, যা তার ছেলে নিজ মুখেই স্বীকার করেছে যারা সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ১১ দফা দাবিতে- আওয়ামী ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩ ইসলামী দলের বিশাল মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত


(১). মীর কাসেমসহ কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী সরকারকে দেশ ও জাতীর পক্ষ থেকে তথা দ্বীনপ্রাণ মুসলমান ও আলিম উলামাদের পক্ষ থেকে আন্তরিক মোবারকবাদ। বাংলার ইহুদী রাজাকার সাঈদীরও ফাঁসির ব্যবস্থা করতে হবে। (২). বশহীদ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

ওহাবী সউদী সরকারের চাঁদের তারিখ হেরফের ॥ ফের চুরিতে ধরা পড়লো সউদী ওহাবী সরকার


ইহদী বংশদ্ভুদ সৌদি ওহাবীরা হজ্জ নষ্ট করার জন্য চাঁদের তারিখ নিয়ে যে ষড়যন্ত্র করেছে সেটা হাতে নাতে ধরা পরে গেলো। দেখুন তাদের ওয়েবসাইটে ০২/০৯/২০১৬ জুমুয়াবার প্রথমে তারিখ দিয়েছেলো যিলহজ্জ উনার ১ তারিখ (http://bit.ly/2c9knZL) কিন্তু ১ তারিখ দিলে ১১ সেপ্টেম্বর ঈদ হয়,

সৌদি রাজ পরিবার ইহুদীদের চাচাচো ভাই


হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওজা শরীফের দিকে কুনজরে তাকানো একমাত্র ইহুদীদের পক্ষেই সম্ভব। আর সৌদি রাজ পরিবার হচ্ছে সবাই ইহুদী বংশধর। তারা ইহুদী সেটা সৌদি বাদশাহ ফয়সালের নিজের মুখেই শুনুন- “সউদী বাদশাহ ফয়সাল (শাসনকাল ১৯৬৪-৭৫) ওয়াশিংটন পোস্টের

শক্ত হাতে নস্যাৎ করা হোক কুরবানীর বিরুদ্ধে সব ষড়যন্ত্র। বন্ধ করা হোক কুরবানীর নামে যত সব শয়তানী। ‘পবিত্র কুরআন-সুন্নাহ বিরোধী কোনো আইন পাস হবে না’- এ প্রতিশ্রুতির সরকারের জন্য ত্বরিৎ ও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ জরুরী।


সৃষ্টির শুরু হতে যে চারটি মাসকে মহাপবিত্রতা দান করা হয়েছে তার মধ্যে পবিত্র যিলহজ্জ মাস অন্যতম। যা পবিত্র হারাম মাস ও পবিত্র কুরবানী করার মাস হিসেবে সমাদৃত। কুরবানী শব্দটি এসেছে ‘কুরব’ থেকে; যার অর্থ- নৈকট্য, সান্নিধ্য ও নিকটবর্তী হওয়া। কুরবানী করার

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন কথিত দাওয়াতে ইসলামীর হারাম টিভি-চ্যানেলের নাম মাদানী দেয়া প্রসঙ্গে (৩)


(পূর্ব প্রকাশিতের পর) নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার রওযা শরীফ পবিত্র মদীনা শরীফে তাই এটি পবিত্র স্থান, তদুপরি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মদীনা শরীফ উনাকে পবিত্র হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন কথিত দাওয়াতে ইসলামীর মাদানী চ্যানেল ওরফে কুফরী চ্যানেল প্রসঙ্গে-২


ইসলাম প্রচার-প্রসার হয়েছে ইসলাম উনার আঙ্গিকে, হারাম মাধ্যম ব্যবহার করে নয়। টিভি চ্যানেল ব্যবহার করতে গেলে বের্পদা হতে হয় অথচ র্পদা করা ফরয। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম) আপনি মু‘মিনা মহিলাদের বলে দিন,

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন ‘দাওয়াতে ইসলামী’র মাদানী চ্যানেল ওরফে কুফরী চ্যানেল প্রসঙ্গে-১


ইসলাম প্রচার-প্রসার হয়েছে ইসলাম উনার আঙ্গিকে, হারাম মাধ্যম ব্যবহার করে নয়। টিভি চ্যানেল ব্যবহার করতে গেলে প্রথমত হারাম ছবি তুলতে হয়, যা কাট্টা হারাম। হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “ঐ ব্যক্তিকে কঠিন শাস্তি দিবেন, যে ব্যক্তি

পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদেরকে রুখে দেয়া হোক


যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তাদের থেকে সাবধান। কেননা তারা মুসলমানদের চরম শত্রু। যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তারাই মূলত দ্বীন ইসলাম উনার বিরোধী। ৯৮ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত দেশে কি করে মুসলমানদের বিরুদ্ধে, পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র

৯৮ ভাগ মুসলমান ও রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তারা ইহুদী, মুশরিক, নাছারা অর্থাৎ বেদ্বীন-বদদ্বীনদের সুস্পষ্ট প্ররোচনায় ও উস্কানিতেই মুসলমান উনাদের ওয়াজিব ইবাদত পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। নাউজুবিল্লাহ!


প্রতি বছরই পবিত্র কুরবানীর সময় নানা অজুহাতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের চেষ্টা করে কিছু ইসলামবিদ্বেষী মহল। তাই প্রতি বছরের মতো এবারেও পবিত্র কুরবানীতে বাধা সৃষ্টি করতে কিছু ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে মরিয়া হয়ে পড়েছে সরকারি প্রশাসন। তার মধ্যে একটি হচ্ছে- যানজটের মিথ্যা অজুহাতে পবিত্র