Archive for the ‘ধর্মব্যবসায়ীদের মুখোশ’ Category

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন কথিত দাওয়াতে ইসলামীর হারাম টিভি-চ্যানেলের নাম মাদানী দেয়া প্রসঙ্গে (৩)


(পূর্ব প্রকাশিতের পর) নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার রওযা শরীফ পবিত্র মদীনা শরীফে তাই এটি পবিত্র স্থান, তদুপরি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মদীনা শরীফ উনাকে পবিত্র হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন কথিত দাওয়াতে ইসলামীর মাদানী চ্যানেল ওরফে কুফরী চ্যানেল প্রসঙ্গে-২


ইসলাম প্রচার-প্রসার হয়েছে ইসলাম উনার আঙ্গিকে, হারাম মাধ্যম ব্যবহার করে নয়। টিভি চ্যানেল ব্যবহার করতে গেলে বের্পদা হতে হয় অথচ র্পদা করা ফরয। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম) আপনি মু‘মিনা মহিলাদের বলে দিন,

ধর্মব্যবসায়ী সংগঠন ‘দাওয়াতে ইসলামী’র মাদানী চ্যানেল ওরফে কুফরী চ্যানেল প্রসঙ্গে-১


ইসলাম প্রচার-প্রসার হয়েছে ইসলাম উনার আঙ্গিকে, হারাম মাধ্যম ব্যবহার করে নয়। টিভি চ্যানেল ব্যবহার করতে গেলে প্রথমত হারাম ছবি তুলতে হয়, যা কাট্টা হারাম। হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “ঐ ব্যক্তিকে কঠিন শাস্তি দিবেন, যে ব্যক্তি

পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদেরকে রুখে দেয়া হোক


যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তাদের থেকে সাবধান। কেননা তারা মুসলমানদের চরম শত্রু। যারা পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্র করে থাকে তারাই মূলত দ্বীন ইসলাম উনার বিরোধী। ৯৮ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত দেশে কি করে মুসলমানদের বিরুদ্ধে, পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র

৯৮ ভাগ মুসলমান ও রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকারি ও বেসরকারি কর্মকর্তারা ইহুদী, মুশরিক, নাছারা অর্থাৎ বেদ্বীন-বদদ্বীনদের সুস্পষ্ট প্ররোচনায় ও উস্কানিতেই মুসলমান উনাদের ওয়াজিব ইবাদত পবিত্র কুরবানী নিয়ে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। নাউজুবিল্লাহ!


প্রতি বছরই পবিত্র কুরবানীর সময় নানা অজুহাতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের চেষ্টা করে কিছু ইসলামবিদ্বেষী মহল। তাই প্রতি বছরের মতো এবারেও পবিত্র কুরবানীতে বাধা সৃষ্টি করতে কিছু ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে মরিয়া হয়ে পড়েছে সরকারি প্রশাসন। তার মধ্যে একটি হচ্ছে- যানজটের মিথ্যা অজুহাতে পবিত্র

ওসীলা বিরোধী সালাফী ওহাবীদের মিথ্যাচারের জবাব


ওহাবী সালাফী বাতিল ফির্কারা বলে থাকে ওসীলা গ্রহণ করা হারাম। আল্লাহ পাক নাকি ওসীলা গ্রহণ করতে নিষেধ করেছেন। নাউযুবিল্লাহ !! কত বড় মিথ্যাবাদী এই ওহাবী ফির্কা। আল্লাহ পাকের বিরুদ্ধেও অপবাদ দিতেও তাদের কলিজা কাঁপে না। আসুন আমরা কুরআন শরীফ থেকে কতিপয়

দেওবন্দ: এ কালের নমরূদ


বর্তমানে মুসলমানদের ছুরতে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে যে ফিতনাগুলো (শিয়া, ওহাবী, খারিজী ইত্যাদি) বিরাজমান তার মধ্যে চরম ভয়ঙ্কর ফিতনা হচ্ছে কাদিয়ানী ফিতনা। মূলত, পাঞ্জাবের ‘কাদিয়ান’ নামক গ্রামে ১৮৩৫ সালে জন্মগ্রহণকারী ব্রিটিশের দালাল মির্জা গোলাম আহমদকে যদিও কাদিয়ানী মতবাদের প্রতিষ্ঠাতা বলা

আপনি জানেন কি?


(১) কোন্ দেশ সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার কথা বললেও অনুসরণ করে ইহুদী কাফিরদের? (২) কোন্ দেশ চাঁদ দেখে আরবী মাস শুরু করার কথা বললেও বাস্তবে আরবী মাস শুরু করে মনগড়া ভাবে? (৩) কোন্ দেশ সবসময় আগে চাঁদ দেখার মিথ্যা দাবি করে?

আপনি ‍কি জানেন লা’মাযহাবীরা কয় দলে বিভক্ত?


যারা মাযহাব অনুসরন করে তাদের লা’মাযহাবীরা বলে থাকে তোমরা নিজেদের চার ভাগে ভাগ করে নিয়েছো। কেউ হানাফী, কেই শাফেয়ী, কেউ মালেকী, কেউ হাম্বলী। কেন এই বিভক্তি… ইত্যাদি .. ইত্যাদি। আসলে যারা নিজেদের শরীরের দুর্গন্ধ সর্ম্পকে সচেতন না হয়ে অন্যকে নিয়ে ঘাঁটাঘাটি

তাবলীগওয়ালারা নিজেদের লোকদের বিরুদ্ধে কিভাবে প্রতিবাদ করবে?


তাবলীগ নাকি সারা বিশ্বে ইসলাম প্রচার করে। অথচ সারাবিশ্বের এমন কোনো দেশ নাই যেখানে মুসলমান উনাদের শহীদ করা হচ্ছে না কিম্বা নির্যাতন করা হচ্ছে না। যেখানে মুসলমান উনাদের জীবন বিপন্ন সেখানে এরা কার কাছে ইসলাম প্রচার করে? ফিলিস্তিনে প্রতিদিন শত শত

বাল্যবিবাহ নিষিদ্ধ করা, নির্দিষ্ট স্থানে পবিত্র কুরবানী করা, মেশিনে জবাই করা, ১৮ বছরের বয়সের নিচে কেউ জবাই করতে না পারা- উল্লেখিত সিদ্ধান্তগুলোর স্বপক্ষের ব্যক্তিবর্গ তারা সরকারি হোক অথবা বেসরকারি হোক তাদেরকে অবশ্যই পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ, পবিত্র ইজমা শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াস শরীফ থেকে দলীল পেশ করতে হবে। নচেৎ তাদের সবাইকে উল্লিখিত দলীলবিহীন মনগড়া ইসলামবিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য ইহকাল ও পরকাল অর্থাৎ উভয়কালেই কঠিন কাফফারা আদায় করতে হবে।


যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, ক্বইয়ূমুয যামান, জাব্বারিউল আউওয়াল, ক্বউইয়্যূল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি

‘বিদেশ থেকে ৬০ কোটি রুপি এসেছিল জাকির নায়েকের অ্যাকাউন্টে’


বিতর্কিত ভারতীয় বক্তা জাকির নায়েকের ব্যাংক হিসাবে গত তিন বছরে তিনটি দেশ থেকে প্রায় ৬০ কোটি রুপি জমা হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে বলে ভারতীয় পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। পত্রিকাটির এক প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার বলা হয়, ওই সব অর্থ পরে