Archive for the ‘বিভাগবিহীন’ Category

আপন মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে অন্য দেশের সাথে এ কেমন বন্ধুত্ব?


আপন মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে অন্য দেশের সাথে এ কেমন বন্ধুত্ব? সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “স্বদেশের প্রতি মুহব্বত পবিত্র ঈমান উনার অঙ্গ।” বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান

ভিন্নমত: এদেশে দেবোত্তর সম্পত্তি বলতে কিছু আছে কি? চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের নামে মুসলমানদের থেকে ছিনিয়ে নেয়া সম্পত্তি ফিরে পেতে উদ্যোগ কোথায়?


ভিন্নমত: এদেশে দেবোত্তর সম্পত্তি বলতে কিছু আছে কি? চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের নামে মুসলমানদের থেকে ছিনিয়ে নেয়া সম্পত্তি ফিরে পেতে উদ্যোগ কোথায়? ব্রিটিশরা এই উপমহাদেশে আসার পূর্বে ৯৯ ভাগ জমির মালিক ছিল মুসলমানগণ। মুসলমানদের আরদালি ছিল সমস্ত বিধর্মীরা। বিধর্মীদের ইসলামী লিবাস ও ফার্সী

“মসজিদ ভাঙ্গিয়া মন্দির গড়িব”- এটিই বিধর্মীদের জাতিগত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য!


“মসজিদ ভাঙ্গিয়া মন্দির গড়িব”- এটিই বিধর্মীদের জাতিগত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য! “কেহ চিৎকার করিতে লাগিল, “মার, মার নেড়ে মার।” কেহ গাহিল, “হরে মুরারে মধুকৈটভারে!” কেহ গাহিল, “বন্দে মাতরম।” কেহ বলে, “ভাই, এমন দিন কি হইবে, মসজিদ ভাঙ্গিয়া রাধামাধবের মন্দির গড়িব?” (আনন্দমঠ, তৃতীয়

দেশে এখন ইসলামবিরোধিতা প্রকাশ্যেই হচ্ছে!! এর জন্য দায়ী কে?


দেশে এখন ইসলামবিরোধিতা প্রকাশ্যেই হচ্ছে!! এর জন্য দায়ী কে? আজ থেকে কয়েক বছর আগেও যেটা এদেশে কল্পনা করা হয়নি- আজ সেটাই হচ্ছে। কিছুুদিন আগে একটি জাতীয় পত্রিকার সম্পাদক প্রকাশ্যে আযানের বিরুদ্ধে কটূক্তি করেছে। এর আগেও একবার নাস্তিকদের কবি শামসুর সেও আযানকে

ভারতে মুসলমানরা কেন বিধর্মীদের তাঁবেদারি করছে? বিধর্মীপ্রীতিতে উৎসাহদাতা ধর্ম ব্যবসায়ীরাই এর মূল কারণ?


ভারতে মুসলমানরা কেন বিধর্মীদের তাঁবেদারি করছে? বিধর্মীপ্রীতিতে উৎসাহদাতা ধর্ম ব্যবসায়ীরাই এর মূল কারণ? বর্তমানে উগ্র বিধর্মীরা লাফালাফি-ঝাপাঝাপি করলেও ইতিহাস থেকে প্রমাণিত যে, ভারতবর্ষ মুসলমানরাই সাজিয়েছিলো প্রায় ৭০০ বছর শাসন করে। কিন্তু মুসলমানদের এই সকল অবদান ভুলে গিয়ে অকৃতজ্ঞ বেইমান বিধর্মীরা আজ

খেয়াল-খুশিমত যাচ্ছেতাই করে বেড়ানো মুসলমানদের কাজ নয়!


খেয়াল-খুশিমত যাচ্ছেতাই করে বেড়ানো মুসলমানদের কাজ নয়! পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- “দুনিয়া হচ্ছে মুসলমানদের জন্য কারাগার, আর কাফিরদের জন্য হচ্ছে বালাখানা।” অর্থাৎ কাফির-মুশরিক ইহুদী নাছারা মূর্তিপূজারী, বৌদ্ধ, নাস্তিকরা যা ইচ্ছা তাই করতে পারে, তাদের যা মনে হয়,

আসছে রমজান মাসে এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন পরিবর্তন করুন!


আসছে রমজান মাসে এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন পরিবর্তন করুন! বাংলাদেশে এইচএসসি পরীক্ষা একটি বড় ও গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা। কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে, এবারের এইচএসসি পরীক্ষা ফেলানো হয়েছে মুসলমানদের ধর্মীয় গুরুত্বপূর্ণ মাস রমজানে। রমজান মাসের সম্ভাব্য তারিখ ২৩শে এপ্রিল থেকে ২৩শে মে, ২০২০। অপরদিকে

এদেশের মুসলমানরা আর কতদিন হিন্দুঘেঁষা মিডিয়ার (দালাল সাংবাদিকদের) তৈরি রবীন্দ্র ঠগীয় গোলকধাঁধাঁয় ঘুরপাক খাবে?


এদেশের মুসলমানরা আর কতদিন হিন্দুঘেঁষা মিডিয়ার (দালাল সাংবাদিকদের) তৈরি রবীন্দ্র ঠগীয় গোলকধাঁধাঁয় ঘুরপাক খাবে? রবীন্দ্র ঠগ ব্রিটিশদের সহযোগী দালাল ছিল, যা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু যা অধিকাংশ লোকই জানে না, তা হলো- ব্রিটিশরা তাদের এই দালালটির খ্যাতি-বৃদ্ধির জন্য নিয়োগ করেছিল কিছু

এদের আসল পরিচয় কি আপনার জানা আছে?


এদের আসল পরিচয় কি আপনার জানা আছে? ১) বঙ্কিমচন্দ্র: আমাদের দেশের পাঠ্যবইগুলোতে তার রচনা থাকবেই। সাথে থাকবে ‘সাহিত্য সম্রাট’সহ আরো নানারকম প্রশংসার ফুলঝুড়ি। অথচ পাঠক! এই বঙ্কিমই হলো সেই ব্যক্তি, যে কিনা তার রচনায় লিখেছে- “..বল হরে মুরারে! হরে মুরারে! উঠ!

ভারতে টাকা পাচার করাটা হলো বিধর্মীদের পুরনো স্বভাব!


ভারতে টাকা পাচার করাটা হলো বিধর্মীদের পুরনো স্বভাব! বিধর্মীরা বাংলাদেশ থেকে টাকা পাচার করে, সুযোগ পেলে নিজেরাই পাচার হয়। এটা কোনো নির্যাতনের ফল নয়, এটা হলো তাদের আড়াইশ বছর ধরে চলে আসা স্বভাব। যখন বাংলাদেশ স্বাধীন হয়নি তখন তাদের বাপদাদারাও এদেশকে

আসল সন্ত্রাসী কারা? নিঃসন্দেহে বিধর্মী-কাফিররা!


আসল সন্ত্রাসী কারা? নিঃসন্দেহে বিধর্মী-কাফিররা! ১. হিটলার ১ কোটি ১০ লক্ষ মানুষকে হত্যা করেছিলো। সে কিন্তু মুসলিম ছিলো না, ছিলো খ্রিস্টান। ২. জোসেফ স্টালিন ২ কোটি মানুষকে হত্যা করেছিলো। সেও মুসলমান ছিলো না। নাস্তিক দাবি করতো। ৩. মাওসেতুং ১.৪-২ কোটি মানুষকে

পবিত্র সূরা ফাতিহা উনার মধ্যেই বিধর্মীদের থেকে দূরে থাকতে আদেশ করা হয়েছে!


পবিত্র সূরা ফাতিহা উনার মধ্যেই বিধর্মীদের থেকে দূরে থাকতে আদেশ করা হয়েছে! পবিত্র সূরা ফাতিহা শরীফ এমন একটি সূরা শরীফ, যেই সূরা শরীফ পাঠ ছাড়া কোনো নামায হয় না। বিশেষ করে মুসলমানেরা দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়ে থাকে। এ পাঁচ ওয়াক্ত