Archive for the ‘ভারত’ Category

আজকের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কেমন জাতি গঠন করতে চায়?


শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড- শিক্ষার গুরুত্ব বুঝানোর জন্য এই কথাটিই সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়। অর্থাৎ যে জাতি যতবেশী শিক্ষিত সে জাতি ততবেশী দৃঢ় মেরুদন্ডের অধিকারী। মেরুদন্ডের ব্যবহার সম্পর্কে আমরা সবাই কমবেশী জানি যে দেহের আকৃতি ধরে রাখার জন্য মেরুদন্ডের কোন বিকল্প নেই। কিন্তু আমরা

হিন্দুদের প্যাঁনপ্যানানিই হিন্দুদের শক্তির উৎস


গত এক দশক ধরে বাংলাদেশে প্রভাবশালী হয়ে উঠেছে হিন্দুরা। সরকার ও প্রশাসন উভয়ই হিন্দুদের তোয়াজ করতে ব্যস্ত। এরই সাইড ইফেক্ট গিয়ে পড়েছে মুসলমানদের উপর। দেশের মোট জনসংখ্যার ৯৫% এর বেশী হয়েও মুসলমানরা আজকে অবহেলিত, নির্যাতিত। হঠাৎ করে এমন কোন সিক্রেট ফর্মূলা পেয়ে গেল হিন্দুরা যার বদৌলতে

৪৭-এ ভারত ভাগ- ভারতীয় মালউনদের বৈষম্য ও পীড়নের খন্ড চিত্র


সালাউদ্দিন আবু আসাদ। পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানে ছিল আসাদের বাড়ি। ১৯৪৭ সালে ভারত ও পাকিস্তান ভাগের পর আসাদ চলে আসেন তৎকালীন পূর্ব-পাকিস্তানে। দেশভাগের ৭০ বছর উপলক্ষে সালাউদ্দিন আবু আসাদের কথা। ১৯৪৬ সালের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গে উগ্র হিন্দুদের সাম্প্রদায়িকতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছিল। মুসলমানদেরকে সেখানে

“Ghazwa Tul Hind” Allah’s promised Victory of Hindustan.


(1) FIRST HADEES OF HAZRAT ABU HURAIRAH (R.A.) The very first Hadees is related to Hazrat Abu Hurairah (R.A.). He says that my intimate friend Hazrat Muhammad (P.B.U.H.) told me that:       “ In this Ummah, the troops would be headed

”এখনতো চড় থাপ্পর দিচ্ছে আর কয়দিন পর মিয়ানমারের মত ধরে ধরে কোপাবে”


চেয়ারে বসে ডিউটি করায় পুলিশকে চড়-থাপ্পড়! পূজা চলাকালীন চেয়ারে বসে দায়িত্ব পালন করায় এক পুলিশ সদস্যকে চড়-থাপ্পড় দেয়ার অভিযোগে পূজা উদযাপন কমিটির এক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ টায় বন্দরের ২নং ঢাকেশ্বরী মন্দিরে পূজা চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি কি খাল কেটে কুমির এনেছেন ?????


যাদেরকে আমাদের প্রধানমন্ত্রী গনহারে প্রশাসনে নিয়োগ দিয়েছেন তারাই কি আজ প্রধানমন্ত্রীকে চায়না????? মনে প্রশ্ন যাগে!!! আজকের পত্রিকায় প্রকাশিত খবরটুকু নিচে দিয়ে দিলাম… প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ইঞ্জিনের নাট-বোল্ট ঢিলা থাকার ঘটনায় ফেঁসে যেতে পারেন বিমান পর্ষদ চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল (অব.) এনামুল বারী চৌধুরীসহ ১০

শেষ মুঘল বাদশাহ বাহাদুর শাহ জাফর থেকে ইন্দিরা গান্ধী: যেকোনো শাসকগোষ্ঠীর নির্বংশ হওয়ার জন্য কুরবানীর বিরোধিতা করাটাই যথেষ্ট (১)


আমাদের পাক-ভারত উপমহাদেশে এমন বহু শাসক রয়েছে, যাদের পতন হয়েছে কুরবানীর বিরোধিতা করার কারণে। গরু কুরবানীর বিরোধী শাসকদের মধ্যে হিন্দু যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে ‘উলামায়ে সূ’ বা ধর্মব্যবসায়ীদের দ্বারা বিভ্রান্ত মুসলমান শাসকগোষ্ঠী। তাদের সবাইকেই ক্ষমতাচ্যুত হতে হয়েছে, কিন্তু হিন্দুর চেয়ে মুসলমান

সরকারী কর্মকর্তাদেরকে স্মরণ রাখতে হবে যে, তাদের জন্য সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার কোনো আদেশ ও নিষেধের উপর হস্তক্ষেপ করার কোনো অধিকার নেই।


প্রতি বছরই পবিত্র কুরবানীর সময় নানা অযুহাতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের চেষ্টা করে কিছু ইসলাম বিদ্বেষী মহল। তাই প্রতি বছরের মতো এবারেও পবিত্র কুরবানীতে বাধা সৃষ্টি করতে কিছু ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে মরিয়া হয়ে পড়েছে প্রশাসন। তার মধ্যে একটি হচ্ছে পরিবেশ দুষণের মিথ্যা অজুহাতে

ইসলাম বিরোধী তর্জ-তরীক্বা প্রত্যাহার করে মুসলমানদেরকে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ মুতাবিক কুরবানী করার সুযোগ দিন


  বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন সরকারের সম্মানিত কুরবানী ও ইসলাম বিদ্বেষী অপপ্রচার তাদের খুদ কুঁড়া লোভী কিছু পত্র-পত্রিকা ও টেলিভিশন চ্যানেলের ভাঙ্গা ও বিরক্তিকর রেকর্ড মুসলিম জনগণ ও মতের তোয়াক্কা না করে একটানা প্রচার করেই চলেছে। সরকারি ও চিহ্নিত বেসরকারি মহলের কুরবানীবিদ্বেষী ডামাঢোলের

কুরবানী নিয়ে মেয়রের বিতর্কিত পদক্ষেপ: এত প্রতিবাদ হচ্ছে, তারপরও সরকারের নির্লিপ্ততা রহস্যজনক


নিজের কিছু স্বার্থ আদায়ের জন্য মানুষ কতই না ভান ধরে, কতভাবে কাকুতি করে, তারপরও নিজের স্বার্থ উদ্ধার করাই চাই চাই। সবচাইতে আশ্চর্য হতে হয় তখন- যখন স্বার্থ আদায়কারী ব্যক্তি অকৃতজ্ঞের মতো উপকারীকে অস্বীকার করে বসে। আমাদের দেশের সরকারের আচরণকে অনেকেই এর

যতই তোমরা ‘কেউ-কেউ’ করো, কুরবানী নিয়ে তোমাদের কোনো চক্রান্তই সফল হবে না। ইনশাআল্লাহ


বেশ কয়েক বছর থেকেই তো তোমরা চক্রান্ত করে যাচ্ছো, কিন্তু একটিও কি সফল হয়েছে? ইনশাআল্লাহ এই বাংলার মাটিতে পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে তোমাদের কোনো চক্রান্ত ষড়যন্ত্রই সফল হবে না। যালিম শাসক গৌরগোবিন্দ কিন্তু শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি। এভাবে কুরবানী নিয়ে আরো অনেকেই

যারা কুরবানীর হাটকে ‘অবৈধ’ ‘অবৈধ’ বলে চেঁচাচ্ছে, এদের চিনে রাখুন…


এই দেশটাকে মনে হয় তাদের কাছে ইজারা দেয়া হয়েছে। দেশপ্রেম যেন তাদের উথলে উঠছে। যখন রাজধানীর বুকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ হাসপাতালগুলোতে আসা যাওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে বৈশাখী মেলা হয়, হিন্দুদের রথযাত্রা হয়, গণজাগরণ মঞ্চ হয়, তখন তাদের এই দেশপ্রেম কোথায় থাকে?