Archive for the ‘হিন্দু’ Category

রবীন্দ্রদের যে চেহারা প্রকাশ করা হয় তা ব্রিটিশের বানানো


বাঙালিরা আবেগপ্রবণ, তাই বলা হয়- হুজুগে বাঙালি। মুসলমানগণ কি সঙ্কীর্ণমনা হিন্দুত্ববাদী কবি-সাহিত্যিকদের আসল রূপ চিনে? সত্যি চিনতে পারলে তাদের নিয়ে হৈ চৈ করার বদলে একরাশ ঘৃণা প্রকাশ করতো। বঙ্গভঙ্গ রোধে ব্রিটিশ পাচাটা রবীন্দ্র নামক কথিত ‘কবি’ ছিল অত্যন্ত সক্রিয়। বাংলা ভাগ

হিন্দুত্ববাদী বিজেপি নেতা: ‘কাশ্মীর যাও, সুন্দরীদের বিয়ে কর’


কাশ্মীরে গিয়ে সেখানকার সুন্দরী কাশ্মীরি মুসলিম তরুণীদের বিয়ের জন্য বিজেপির হিন্দু কর্মীদের পরামর্শ দিলো উত্তরপ্রদেশের বিজেপি দলীয় এক বিধায়ক। প্রদেশের মুজাফফরনগরে দলীয় সমাবেশে অংশ নিয়ে বিক্রম সাইনি বলেছে, সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল হওয়ায় এখন বিজেপির হিন্দু কর্মীরা কাশ্মীরি সুন্দরী তরুণীদের বিয়ে

ভারতের উগ্র মূর্তিপূজারী-বিধর্মীদের আস্ফালনের কারণেই তারা অতিসত্বর নিশ্চিহ্ন হবে ইনশাআল্লাহ


ভারতের উগ্র সাম্প্রদায়িক মূর্তিপূজারী-বিধর্মীরা নানাধরণের উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে বেড়াচ্ছে এবং নির্বাচনে মূর্তিপূজারী-বিধর্মীদের ভোট পাওয়ার লক্ষ্যে ভারতের মুসলমানদের উপর যুলুম-নির্যাতন সীমা ছাড়িয়ে গেছে। তারই ধারাবাহিকতায়, বিশ্ব মূর্তিপূজারী-বিধর্মী পরিষদের নেতা প্রবীণ তোগাড়িয়া রাজকোটে একটি জনসভায় বলেছে, মূর্তিপূজারী-বিধর্মীপ্রধান এলাকা ছেড়ে মুসলমানদের চলে যেতে হবে।

মুলায়ম সিং এর ডিগবাজী এবং পুনরায় তথাকথিত “ভালো হিন্দু”দের মুখোশ উন্মোচন


গতকাল রাতে খবরে দেখলাম যে – উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিং নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করেছে এবং তাকে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চায়। তার এই বক্তব্যে বিষয়টি ছাপিয়ে গোটা উত্তরপ্রদেশে ছড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি।   এনডিটিভি লিঙ্ক –

পোলট্রি মুরগীর মতো মুসলমান !!!


আজ সকালে নিউজে দেখলাম – গত শনিবার রাতে আসামের তিনসুকিয়া জেলার ডুমডুমাতে ২ জন বাঙালী মুসলিমকে ( ইদ্রিস আলী ও শেখ মুহম্মদ) গলা কেটে খুন করেছে রাজু গোর নামে এক হিন্দু ( পদবী অনুযায়ী বোঝা যায় যে মারোয়াড়ী)। তাদের ২ জনকে

বয়লিং ফ্রগ সিনড্রোম ও মুসলিমদের প্রতিবাদহীনতা


একটা ব্যাঙকে যদি আপনি একটি পানি ভর্তি পাত্রে রাখেন এবং পাত্রটিকে উত্তপ্ত করতে থাকেন তবে ব্যাঙটি পানির তাপমাত্রার সাথে সাথে নিজের শরীরের তাপমাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখতে থাকে। ব্যাঙটি লাফ দিয়ে ওই পাত্র থেকে বেরোনোর পরিবর্তে পানির উত্তাপ সহ্য করতে থাকে।  

সাকরাইন পূজা: হিন্দুয়ানী অপসংস্কৃতির স্লো পয়জনিং


সাকরাইন উৎসব, মূলত পৌষসংক্রান্তি, ঘুড়ি উৎসব নামেও পরিচিত, বাংলাদেশে শীত মৌসুমের বাৎসরিক উদযাপন, ঘুড়ি উড়িয়ে পালন করা হয়। সংস্কৃত শব্দ ‘সংক্রান্তি’ ঢাকাইয়া অপভ্রংশে সাকরাইন রূপ নিয়েছে। পৌষ ও মাঘ মাসের সন্ধিক্ষণে, পৌষ মাসের শেষদিন সারা ভারতবর্ষে সংক্রান্তি হিসাবে উদযাপিত হয়। #মকর

মুসলমানরা তো হিন্দুদের খুশি করার জন্য দ্বীন ও ঈমান ত্যাগ করেছে, তবুও কি হিন্দুরা শত্রুতা করা ছেড়ে দিয়েছে ???


মুসলমানরা হিন্দুদের খুশি করতে তাদের ঈমান ও আমল সবকিছু ছেড়ে দিলেও হিন্দুরা কখনোই শত্রুতা করা বন্ধ করে নি, বরং তারা মুসলিম মুক্ত ভারত ও হিন্দু রাষ্ট্র ভারতের স্বপ্ন দেখেছে।   মুসলমানরা একে একে হিন্দুদের ধর্মীয় ও সামাজিক রীতি গ্রহণ করেছে ,

পিরিয়ডের সময় মেয়েদের বাড়ি থেকে বের করে দেয় হিন্দুরা


ভারতের সমস্ত রকম মিডিয়াতে একটি খবর এখন ভীষণভাবে প্রচারিত হয়, সেটা হল – কোর্টের রায় সত্বেও কেরালার শবরীমালা মন্দিরে পিরিয়ড হওয়ার বয়সী কোন মেয়েকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।   এর কারণ কেউ খুঁজতে চেয়েছেন কি ?   আমি জানিয়ে দিই এর

আজকের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কেমন জাতি গঠন করতে চায়?


শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড- শিক্ষার গুরুত্ব বুঝানোর জন্য এই কথাটিই সর্বাধিক ব্যবহৃত হয়। অর্থাৎ যে জাতি যতবেশী শিক্ষিত সে জাতি ততবেশী দৃঢ় মেরুদন্ডের অধিকারী। মেরুদন্ডের ব্যবহার সম্পর্কে আমরা সবাই কমবেশী জানি যে দেহের আকৃতি ধরে রাখার জন্য মেরুদন্ডের কোন বিকল্প নেই। কিন্তু আমরা

হিন্দুদের প্যাঁনপ্যানানিই হিন্দুদের শক্তির উৎস


গত এক দশক ধরে বাংলাদেশে প্রভাবশালী হয়ে উঠেছে হিন্দুরা। সরকার ও প্রশাসন উভয়ই হিন্দুদের তোয়াজ করতে ব্যস্ত। এরই সাইড ইফেক্ট গিয়ে পড়েছে মুসলমানদের উপর। দেশের মোট জনসংখ্যার ৯৫% এর বেশী হয়েও মুসলমানরা আজকে অবহেলিত, নির্যাতিত। হঠাৎ করে এমন কোন সিক্রেট ফর্মূলা পেয়ে গেল হিন্দুরা যার বদৌলতে

“হিন্দু পুলিশ ডি চরম খারাপ”


গুরুত্বপূর্ণ  কাজে গিয়েছিলাম শরীয়তপুর নড়িয়ায়৷কাজ শেষে যখন নড়িয়া থেকে ভোজেশ্বর ফিরে আসছিলাম তখন একটি অটোতে উঠলাম৷ বসেছি সামনের সিটে ড্রাইভারের পাশেই৷ আমি স্বভাবতই গাড়িতে উঠলে চুপ করে থাকতে পারি না৷যাকে পাশে পাই তার সাথেই গল্প জোড়ে দেই৷আমার পাশে বসা ড্রাইভারের সাথেই