দৈনন্দিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ


মহান আল্লাহ পাক কালাম পাকে ইরশাদ মুবারক করেন, ان الصلوة تنهى عن الفحشاء والمنكر অর্থ: নিশ্চয়ই নামাজ (মানুষকে) সকল অশালীন ও নিষিদ্ধ কাজ থেকে বিরত রাখে। অর্থাৎ কোন ব্যক্তি যদি হাক্বীক্বীভাবে নামাজ আদায় করে, তাহলে তার পক্ষে কোন প্রকার গুণাহন কাজে 

সম্মানিত ইলম উনার গুরুত্ব ও ফযীলত


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার অসংখ্য নিয়ামতসমূহ উনার মধ্যে সম্মানিত ইলম মুবারক হচ্ছেন অন্যতম। প্রবাদ বাক্যে রয়েছে ইলমহীন ব্যাক্তি পশুর সমান। কিতাবে আরও উল্লেখ রয়েছে জ্ঞানহীন বন্ধুর চেয়ে জ্ঞানী শত্রুও ভালো। ইলম অর্জন করা ছাড়া জিন ইনসান খালিক্ব মালিক 

উপজাতি সন্ত্রাসীদের যুলুম-নির্যাতন খবরে আসে না। কিন্তু বাঙালিদের সামান্য কিছুতেই হৈচৈ কেন?


বাঙালী কর্তৃক উপজাতীয় নারী নির্যাতনের বিষয়ে উপজাতী সন্ত্রাসীদের প্রচার- প্রপাগাণ্ডা, প্রতিবাদ মিছিল, বিক্ষোভ সমাবেশের আড়ালে, পাহাড়ে দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে উপজাতি কর্তৃক বাঙ্গালী নারী সম্ভ্রমহানির ঘটনা। ১. ২০১২ সালের ১৩জুন মাটিরাঙ্গা উপজেলার পলাশপুর জোন সদরের কাছাকাছি দক্ষিণ কুমিল্লা টিলা এলাকায় 

নূরেমুজাসসাম, হাবীবুল্লাহহুযূরপাকছল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লামউনারসম্মানার্থে“ফাল ইয়াফরাহু” বা খুশি করা কি ইবাদত?


নূরেমুজাসসাম, হাবীবুল্লাহহুযূরপাকছল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লামউনারসম্মানার্থে“ফাল ইয়াফরাহু” বা খুশি করা কি ইবাদত? উত্তর।: হ্যাঁ। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানার্থে ‘ফালইয়াফরাহু’ বা খুশি করা মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক। আর আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক পালন করা ইবাদত। শেয়ার 

আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ


সম্মানিত ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- عَنْ حَضْرَتْ ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِىَ اللهُ تَعَالى عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أُعْطِيْتُ جَوَامِعَ الْعِلْمِ . অর্থ: “হযরত ইবনে আব্বাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি 

কুকুর মরলে দুঃখ পাবো, কাফির মরলে নয়


একদিন বিকেলে, রাস্তা দিয়ে হাঁটার সময়ে রাস্তার মাঝখানে প্রায় দশ-বারোটি কুকুরছানা আমার চোখে পড়লো। ছানাগুলো একটি মাদী কুকুরকে ঘিরে কাড়াকাড়ি করে দুধ খাচ্ছে। একেকটি ছানার দুধ খাওয়া শেষ হচ্ছে, আর সেই ছানাটি এগিয়ে গিয়ে মাদী কুকুরটির মুখ চেটে দিচ্ছে। দৃশ্যটি দেখে 

সম্মানিত শরীয়ত অনুযায়ী এক মিনিট ‘নিরবতা’ পালন কেবলি প্রহসন


আমাদের দেশে আজকাল কেউ ইন্তেকাল করলে তার স্মরণে সে মানুষটির কর্মস্থলে বা তার তৈরি কোনো প্রতিষ্ঠানে বা সংগঠনে এক মিনিট ‘নিরবতা’ পালন করা হয়। বিস্ময়ের ব্যাপার হচ্ছে- আজকাল মুসলমানদের জন্যেও পালিত হচ্ছে এসব বিজাতীয় অদ্ভুত অনুষ্ঠান। যারা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে, 

পাঠ্যবই ও সিলেবাসে যদি ইসলামী শিক্ষা না থাকে, তাহলে কোথায় থাকবে?


পাঠ্যবই বিতর্ক এখন দেশজুড়ে। তবে নানা রকম বিতর্কের মাঝে অসাম্প্রদায়িক, ধর্মনিরপেক্ষ, দেশাত্মবোধক, মানবতাবাদী বিষয়গুলো নিয়েই আলোচনা বেশি। তারা(!) বলতে চায়- ইসলাম শিখবেন, দ্বীন শিখবেন বাসায়, বাড়িতে, মা-বাবার কাছে। আর স্কুল-কলেজে এসে বাকি বিষয় শিখবেন; স্কুল-কলেজ নাকি দ্বীন শিক্ষার জায়গা নয়। আমরা 

বাংলাদেশের এমপি-মন্ত্রীদের কি পরকালের কথা মনে পড়ে না?


কিছুদিন আগে একজন মন্ত্রী মৃত্যুবরণ করেছে। সে মৃত্যুর আগে প্রকাশ্যে ধূমপান ও সভায় ঘুমানোর কারনে সাংবাদিকদের কাছে বেশ আলোচিত ছিলো। কিন্তু তার চেয়ে বেশি আলোচিত ছিলো ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে। তবে সেটা ভালো মানুষ হিসেবে নয়। কারণ সে প্রকাশ্যেই মেয়েদের পর্দা করার 

সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের পবিত্র জীবন মুবারক থেকে নেয়া বাল্যবিবাহখানা


১। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সম্মানিত ছয় বছর বয়স মুবারকে উম্মুল মু’মিনীন আছছালিছাহ হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত নিছবাতুল আযীমা মুবারক সংঘটিত হয়। আর নয় বছর বয়স মুবারকে উম্মুল মু’মিনীন আছছালিছাহ আলাইহাস সালাম 

যারা বিনা হিসাবে জান্নাত লাভ করতে চায়, তাদের জন্য ফরয হচ্ছে ‘পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ’ পালন করা


প্রত্যেক মুসলমান মাত্রই সম্মানিত জান্নাত প্রত্যাশী। আর তা সম্ভব কেবল পবিত্র ঈমান উনার সাথে দুনিয়া থেকে বিদায় নিতে পারলেই। অতএব, যারা চায় তাদের দুনিয়া থেকে বিদায়টা হোক পবিত্র ঈমান উনার সাথে, তাদের জন্য বিশেষ খোশ সংবাদ হচ্ছে, আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত 

ক্বায়িদুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার তাবে’ সারা কায়িনাত। উনার মুবারক কর্তৃত্ব সারা


سَبَّحَ لِلّـهِ مَا فِى السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ অর্থ: “আসমান ও যমীনের মাঝে যা কিছু আছে, সবই মহান আল্লাহ পাক উনার তাসবীহ মুবারক পাঠ করে।” (পবিত্র সুরা হাদীদ শরীফ, পবিত্র আয়াত শরীফ ১) অন্য পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- إِنَّ