সকল প্রকার ‘খেলা’ বর্জন করুন; দ্বীন ইসলাম উনার মাঝে পরিপূর্ণভাবে প্রবেশ করুন


আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন, وَمَا خَلَقْنَا السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ وَمَا بَيْنَهُمَا لَاعِبِينَ. مَا خَلَقْنَاهُمَا إِلَّا بِالْحَقِّ وَلَكِنَّ أَكْثَرَهُمْ لَا يَعْلَمُونَ অর্থ: আমি নভোমন্ডল, ভূমন্ডল ও এতদুভয়ের মধ্যবর্তী কোনো কিছু ক্রীড়াচ্ছলে সৃষ্টি করিনি, আমি এগুলো যথাযথ উদ্দেশ্যে সৃষ্টি করেছি; কিন্তু তাদের 

দ্বীন ইসলাম উনার দৃষ্টিতে বাল্যবিবাহ সুন্নতে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “তোমাদের জন্য আমার সুন্নত মুবারক অবশ্যই পালনীয়। আমরা এই হাদীছ শরীফ দ্বারা বুঝতে পারি যে, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন 

পুলিশে প্রভাব বিস্তারে ব্যস্ত ‘ইসকন’


ইসকন নামক সংগঠনটি বাংলাদেশ পুলিশে তাদের প্রভাব বিস্তারে ব্যাপক কাজ করে, এটা অনুধাবন করা যায়। এক্ষেত্রেতারা বিভিন্ন পলিসি গ্রহণ করে। যেমন- তাদের ইসকনের বাংলাদেশের সভাপতি হিসেবে সিলেক্ট করা হয় পুলিশের একজন সাবেক ডিআইজি সত্য রঞ্জণ বাড়ৈকে। যেন পুলিশের ভেতরে নেটওয়ার্ক ঠিক 

প্রখ্যাত ইমাম-মুজতাহিদ উনাদের বর্ণনায় পবিত্র মক্কা শরীফ ও পবিত্র মদীনা শরীফে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনের ইতিহাস


বাতিল ফিরক্বার লোকেরা বলে থাকে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ নাকি এই সেদিন থেকে প্রচলিত হয়েছে। নাউযুবিল্লাহ! হারামাইন শরীফে এ দিবস পালন হতো না! নাউযুবিল্লাহ! অথচ ইতিহাস সাক্ষী- সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার শুরু থেকেই হারামাইন শরীফে পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন হতো। 

যারা হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহান শান মুবারক উনার খিলাফ কথা লিখেছে, বলেছে, লিখবে,


যারা ফেইসবুক, ব্লগ, পত্র-পত্রিকা বা কিতাবাদির মাধ্যমে সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহান শান মুবারক উনার খিলাফ কথা লিখেছে, বলেছে, লিখবে, বলবে এবং এদেরকে যারা সমর্থন ও সহযোগিতা করেছে ও করবে তারাও 

যে ঘরে বা স্থানে প্রকাশ্যে প্রাণীর ছবি, মূর্তি, ভাস্কর্য, ম্যানিকিন থাকে সেখানে রহমতের ফেরেশ্তা উনারা থাকেন না।


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘যে ঘরে বা স্থানে প্রকাশ্যে প্রাণীর ছবি, মূর্তি, ভাস্কর্য, ম্যানিকিন থাকে সেখানে রহমতের ফেরেশ্তা উনারা থাকেন না।’ প্রাণীর প্রতিকৃতি যেকোনো উদ্দেশ্যে তৈরি করা হোক না কেন, সবই মূর্তির 

আন নূরুল মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে মাটির বলা কুফরী


আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে ‘নূরের তৈরি’ হিসেবে অস্বীকার করা এবং তার বিপরীত উনাকে মাটির তৈরি বলা এবং নূর ও মাটি দ্বারা তৈরি বলা পবিত্র কুরআন শরীফ উনার আয়াত শরীফ 

কোনো সরকারই এ যাবৎ ‘চিকেনস নেক’-এর গুরুত্ব বুঝেনি। বাংলাদেশের উপর ভারতের প্রাধান্যের পরিবর্তে বাংলাদেশই ভারতের উপর প্রাধান্যের প্রভাব বিস্তারের


বাংলাদেশের দুই নদীপথে খননকাজ করার ব্যাপারে ভারতের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। দুটি নদীপথের ৪৭০ কিলোমিটার খনন করা হবে। এতে ব্যয় হবে ৩০৫ কোটি রুপি। যার ২৪৪ কোটি রুপিই ঋণ হিসেবে দেবে ভারত। চলতি ২০১৭ সালেই দরপত্র আহ্বান করা হবে। সেখানে বাংলাদেশের পাশাপাশি 

সমাজে অপরাধের সংখ্যা বৃদ্ধি: ৯৮ ভাগ মুসলমানের এদেশে অন্য কিছু নয় একমাত্র পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ


চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ সব ধরনের অপরাধ বেড়েছে। উদ্বেগজনকভাবে। রীতিমতো জ্যামিতিক হারে। বেড়েছে শিশু ও নারী অপহরণ। কয়েক বছর ধরেই সম্ভ্রমহরণের ঘটনা বেড়েছে। একথা ঠিক যে, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সব অপরাধ নির্মূল করা যাবে না। তবে কমানো যাবে। কিন্তু চুরি, ডাকাতি, খুন, দুর্নীতি 

ভারত কার্যতঃ বাংলাদেশকে মরুভূমি করার যুদ্ধ শুরু করেছে। ভারতের আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্পের বাস্তবায়ন তার সাক্ষাৎ প্রমাণ


বাংলাদেশের মনোলোভা, মনোরোমা, শস্য শ্যামলিমা, অভূতপূর্ব সবুজ নৈসর্গিক দৃশ্যের প্রাণ হলো নদী। আর নদী ঠিক থাকতে হলে উজান থেকে প্রবাহ সুষ্ঠু থাকতে হবে। কিন্তু বর্তমানে ভারতে যে আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে তাতে বাংলাদেশের নদীগুলোর অস্তিত্ব মহাসঙ্কটে পড়বে। বাকী নদীগুলোও বিলীন 

আমরা ছবিমুক্ত দেশ চাই


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “যেখানে প্রাণীর ছবি থাকে, সেখানে রহমতের ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা প্রবেশ করেন না।” অথচ এরপরও ৯৮ ভাগ মুসলমানদের জনবেষ্টিত। এই দেশের আনাচে-কানাচে কোথাও কোনো এতটুকু জায়গা নেই, এমন কোনো পণ্য-দ্রব্যাদি নেই যেখানে ছবি 

সম্মানিত ১২ শরীফ যে কারণে স্মরণীয় ও খুশি প্রকাশের দিন


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে সবচেয়ে মর্যাদা ও শ্রেষ্ঠত্বের অধিকারী করে সৃষ্টি করেছেন। শুধু তাই নয়, উনাকে এত অধিক মর্যাদা-মর্তবার অধিকারী করেছেন যে, উনার সাথে নিসবতযুক্ত