হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত-ই ঈমানের মূল


১৫ রমাদ্বান শরীফ আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম উনার বিলাদত শরীফ দিবস। হাদীস শরীফে বলা হয়েছে, যে ব্যক্তি সম্মানিত হযরত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের মুহব্বত মুবারকে ইন্তেকাল করবেন, (১). তিনি শহীদী 

যাকাতের অন্যতম কিছু উপকারিতা


যাকাত হলো আত্মা, সম্পদ ও সমাজকে বিশুদ্ধকারী ও সম্পদ বৃদ্ধিকারী। আর যাকাত হলো ধনীদের সম্পদে গরিবদের জন্য ধার্যকৃত অধিকার বা পাওনা। যাকাতের গুরুত্ব ইসলামে অপরিসীম। যাকাতকে ইসলামের পঞ্চমূলে অন্তর্ভুক্ত করা যাকাতের গুরুত্ব ও মর্যাদার সুস্পষ্ট প্রমান। যাকাতের অন্যতম কিছু উপকারিতা নিম্নে 

তুমি অধম হলে, আমি উত্তম হবো না কেন?


তুমি অধম হলে, আমি উত্তম হবো না কেন? আর যদি উত্তম হতে না-ই হতে পারি তবে অধম কে অধম বলার কোন যৌক্তিকতাই নেই! আর অধম সেটা কুকুর-ই হোক না কেন…! মূলতঃ নিজেকে সবার থেকে বেশি গুনাহগার মনে করা হলে , আল্লাহপাক 

নারী বলে আমি হলাম দুনিয়া, আমার মধ্য আছে শুধু চাকচিক্য মোহ আর লোভলালসা….


এক অপুর্ব সুন্দরী নারী এক কৃষক কে বলল আমি তোমাকে বিবাহ করিব। কৃষক তো নারীর চেহারা দেখে পাগল। কৃষক দেরি না করে নারী কে নিয়ে কাজী অফিস গিয়ে বলল তাড়াতাড়ি আমাদের বিবাহ দাও। কাজী নারীর চেহারা দেখে সে নিজেও পাগল। কাজী 

সুমহান ১৮ই রমাদ্বান শরীফ মুবারক হো!


তখন দ্বীন ইসলাম উনার প্রথম জিহাদ, ঐতিহাসিক বদর জিহাদের জোরসোরে প্রস্তুতি চলছে। নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদেরকে নিয়ে জিহাদে গমন করেন। কিন্তু তিনি বিশিষ্ট ছাহাবী হযরত উছমান যুন্নুরাইন আলাইহিস 

বদর জিহাদে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ইহমে গইব ও মুজিযা শরীফ বহিঃপ্রকাশ


১৭ রমাদ্বান ঐতিহাসিক বদর জিহাদ, *বদর যুদ্ধ সংঘটিত হওয়ার একদিন আগে বদর প্রান্তরে পৌঁছেই হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জমিনে হাত মুবারক মেরে মেরে ইরশাদ করেছেন,এখানেই অমুক ব্যক্তি ধরাশায়ী হবে।এখানে এখানে অমুক অমুক ব্যক্তি ধরাশায়ী হবে। সাহাবী হযরত আনাস রাদিয়াল্লাহু 

উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম তিনি নিজ মাক্বাম মুবারকে অনন্যা


উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনাকে দশটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য মুবারক হাদিয়া করা হয়েছে। নিয়ামতের শুকরিয়াস্বরুপ তিনি নিজেই এই খুছুছিয়াত মুবারক গুলোর কথা বলতেন।   ১। হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মাঝে কেবল তিনি বাকেরা (কুমারী) অবস্থায় হুযূর পাক 

মক্কা শরীফ, মদিনা শরীফ, মজিদুল আক্বসা শরীফের ছবি সম্বলিত জায়নামাযে নামায পড়া প্রকৃতপক্ষে যায়েজ নেই।


ফিকির বা চিন্তার বিষয়!!! অনেকেই মক্কা শরীফ, মদিনা শরীফ, মজিদুল আক্বসা শরীফের ছবি সম্বলিত জায়নামাযে নামায পড়ে থাকেন যা প্রকৃতপক্ষে যায়েজ নেই। অনেকেই হয়ত বলবেন তুমি কি আলেম নাকি যে ফতুয়া দিচ্ছ? আমি উত্তরে বলব আমি আলেম নই ফতুয়াও দিচ্ছি না। 

স্বয়ং মহান রব্বুল আলামীন তিনি যাঁর পক্ষ হতে সুওয়ালের জওয়াব দিয়ে দেন তিনি কেমন মহিমাময়ী!


কেউ মারা গেলে তাকে দাফন করার পর তালক্বীন দেয়া হয়। এই তালক্বীন কিভাবে আসল জানেন?   উম্মুল মু’মিনীন হযরত খাদিজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম তিনি অন্তিম শয্যায় নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কাছে আরজ করেছিলেন, ইয়া রসূলাল্লাহ, 

সুমহান ১৭ই রমাদ্বান শরীফ মুবারক হো!


আজকের এই সুমহান দিনে তিনজন বিশেষ ব্যক্তিত্ব মুবারক মহান আল্লাহ পাক উনার দীদার পাকে তাশরীফ নিয়েছেন। উনারা হলেন, উম্মুল মু’মিনীন আল ঊলা হযরত খাদিজাতুল কুবরা আলাইহাস সালাম, উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছা হযরত আয়িশা ছিদ্দ্বীকা আলাইহাস সালাম এবং ইমামুল আউওয়াল হযরত আলী 

মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সেনা বাহিনীর লুটপাটের ইতিহাস ও সাহায্যের স্বরূপ


(সঙ্কলিত পোস্ট)- ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তি বাহিনী যখন দেশের ৯৫-৯৯ শতাংশ অঞ্চল মুক্ত করে ফেলেছিল, ঠিক তখন ৩রা ডিসেম্বর ভারতীয় আরদালী বাহিনী লুটপাট করার জন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করে। তারা ১৬ ডিসেম্বরের পর বাংলাদেশ জুড়ে নজির বিহীন লুটপাট চালিয়েছিলো। ৯৩ হাজার 

বিশ্বাসীদের জন্যে পৃথিবীতে নিদর্শনাবলী রয়েছে এবং তোমাদের নিজেদের মধ্যেও। তোমরা কি অনুধাবন করবে না?


একটি কিডনীর ওয়েট কত? সর্বোচ্চ ২০০ গ্রাম। মেডিকেল সাইন্সের দেয়া তথ্য অনুযায়ী প্রায় দেড়শ লিটার ব্লাড এই যন্ত্র ডেইলি ফিলটার করে। কত টাকা দিতে হয় এর জন্য আমাদের? এক টাকাও না। একটি ডায়ালাইসিস মেশিনের ওয়েট কত? কমপক্ষে ১০০ কেজি। এই একই