পবিত্র যিলক্বদ শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করবে আগামী ২৯শে শাওওয়াল শরীফ ১৪৪০ হিজরী, ২রা ছানী ১৩৮৭ শামসী, ৩রা


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘পবিত্র হজ্জ উনার মাসগুলো হচ্ছেন পবিত্র শাওওয়াল শরীফ, পবিত্র যিলক্বদ শরীফ, পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ।’ সুবহানাল্লাহ! বাংলাদেশ পবিত্র যিলক্বদ শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করবে আগামী ২৯শে শাওওয়াল শরীফ 

সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার বুযূর্গ মাতৃকুলের মুবারক পরিচিতি


মানুষের অবয়ব, মন, মনন, আচরণ, স্বভাব, চরিত্র ও মেধাসহ সকল বিষয়েই পিতা ও পিতৃকুলের প্রভাব প্রত্যক্ষ ভূমিকায় থাকে। এ ক্ষেত্রে মাতা, মাতৃকুল ও উনাদের উর্ধ্বতন পুরুষের প্রভাব, প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্বও অপরিহার্য। কথায় বলে: “পিতা-মাতা যেমন সন্তান তেমন।” এ বিষয়টি আওলাদে রসূল, 

সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার মুবারক বিলাদত শরীফ


ওলীয়ে মাদারজাদ, আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদ মুহম্মদ সালাহুদ্দীন আলাইহিস সালাম উনার অধস্তন মুবারক তৃতীয় পুরুষ আওলাদুর রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদ মুহম্মদ আব্দুস সবূর আলাইহিস সালাম উনার সঙ্গে ইতোপূর্বে উল্লিখিত ‘পাকু-া’ গ্রামের হযরতুল আল্লামা মুহম্মদ আব্দুল লতীফ খান ছাহিব আলাইহিস সালাম 

সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু মুজাদ্দিদে আ’যম, হাবীবাতুল্লাহ, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা


সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, عَنْ حَضْرَتْ عَبْدِ الرَّحْمٰنِ بْنِ الْعَلَاءِ الْحَضْرَمِيِّ قَالَ حَدَّثَنِىْ مَنْ سَمِعَ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُوْلُ إِنَّه سَيَكُوْنُ فِىْ اٰخِرِ هٰذِهِ الْأُمَّةِ قَوْمٌ لَـهُمْ مِثْلُ أَجْرِ أَوَّلِـهِمْ يَأْمُرُوْنَ بِالْمَعْرُوْفِ وَيَنْهَوْنَ عَنِ الْمُنْكَرِ 

উম্মু সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার বেমেছাল ফাযায়িল-ফযীলত


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র হাদীছে কুদছী শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “আমি পুশিদা ছিলাম। যখন আমার মুহব্বত হলো যে, আমি প্রকাশ পাই; তখন আমি আমার হাবীব, নূরে মুজাসাসম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে 

সুমহান পবিত্র ২৫শে শাওওয়াল শরীফ- রহমত, বরকত, নেয়ামত, মাগফিরাত হাছিল করার এক সুমহান দিবস


পবিত্র হাদীছ শরীফে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নিশ্চয় মহান আল্লাহ পাক উনার ওলীগণ মৃত্যুবরণ করেন না, বরং উনারা অস্থায়ী আবাস থেকে স্থায়ী আবাসের দিকে প্রত্যাবর্তন করেন।” (মিরকাত) প্রসঙ্গতঃ মহান আল্লাহ পাক উনার যমীনে অন্যতম সর্বশ্রেষ্ঠা ও সুমহান মহিলা ওলীআল্লাহ, মুজাদ্দিদে আ’যম, গাউছুল 

বেনযীর ছদক্বায়ে জারিয়াহর অতুলনীয়া মালিকা


প্রত্যেক সন্তানের গড়ে উঠা, বেড়ে উঠায় মায়ের অবদান সর্বাধিক। মায়ের তত্ত্বাবধানে শিশু বিশুদ্ধ ভাষা শিখে, গ্রহণ করে আদর্শ মুয়ামিলাতের দীক্ষা। মাতৃ মমতা সন্তানের হাতেখড়ির যোগান দেয়। সন্তানের শিক্ষা-দীক্ষায় মাতৃ তদারকি আশ্চর্য সাফল্য এনে দেয়। আদর্শ মানব হিসেবে সন্তানের আত্মপ্রকাশ মায়ের অক্লান্ত 

সাইয়্যদিাতুনা হযরত দাদী হুযুর ক্ববিলা আলাইহাস সালাম উনাকে মুহব্বত করা নাযাত লাভের কারণ


আজ মহমিান্বতি ২৫শে শাওওয়াল শরীফ। সুবহানাল্লাহ! আজ উম্মু মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, হাবীবাতুল্লাহ সাইয়্যদিাতুনা, মহাসম্মানতিা হযরত দাদী হুযূর ক্ববিলা আলাইহাস সালাম উনার সুমহান পবত্রি বছিালী শান মুবারক প্রকাশ দবিস। যিনি মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ র্মুশদি ক্ববিলা সাইয়্যদিুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ 

সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার বুযূর্গ পিতৃ পুরুষের মুবারক পরিচিতি


হাবীবাতুল্লাহ, হাবীবাতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ওলীয়ে মাদারজাদ, জাদ্দাতু খলীফাতুল উমাম আলাইহিস সালাম, উম্মু মুজাদ্দিদিল আ’যম আলাইহিস সালাম, ছহিবাতুল মুকাররামা লি আবী মুজাদ্দিদিল আ’যম আলাইহিস সালাম, আওলাদুর রসূল, সাইয়্যিদাতুনা দাদী হুযূর ক্বিবলা হযরত সাইয়্যিদাহ মুসাম্মত জাহানারা বেগম আলাইহাস সালাম উনার 

ত্বহিরা, ত্বয়্যিবাহ, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহাস সালাম উনাকে মুহব্বত মুবারক করা পবিত্র


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- لَا يَدْخُلُ قَلْبَ امْرَئِ ۣ الْاِيْـمَانُ حَتّٰى يُـحِبَّهُمْ لِلّٰهِ وَلِقَرَابَتِـىْ অর্থ: কোন লোকের অন্তরে ততক্ষণ পর্যন্ত ঈমান প্রবেশ করবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত তারা 

পর্দানশীন ও তাক্বওয়াসম্পন্না মাতা উনার মাধ্যমে আগমন ঘটে ৬ষ্ঠ শতাব্দীর মুজাদ্দিদ হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ॥ তাহলে


ষষ্ঠ শতাব্দীর মুজাদ্দিদ গাউছুল আ’যম হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সম্মানিতা মাতা ছিলেন অতি পর্দানশীন ও তাক্বওয়াসম্পন্না। উনার পবিত্র রেহেম শরীফ উনার মাঝে এই মহান ওলী উনার আগমন ঘটে। তাহলে যিনি সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, যিনি সরাসরি ক্বায়িম-মাক্বামে রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি 

আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম তিনি ছিলেন মহান আল্লাহ পাক উনার খাছ মাহবুবা


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি যুগে যুগে অসংখ্য অগণিত ওলীআল্লাহ (পুরুষ বা নারী) উনাদেরকে মানুষের হিদায়েত দানের জন্য পেরণ করেছেন, করছেন এবং ক্বিয়ামত অবধি প্রেরণ করবেন। খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি হাবীবাতুল্লাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত দাদী