কুল-কায়িনাতের সকলের জন্য দায়িত্ব-কর্তব্য হচ্ছে- মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১২ই শরীফ উনাকে মহাপবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ হিসেবে উদযাপন করা। সুবহানাল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শন সম্বলিত দিবসগুলিকে স্মরণ করিয়ে দিন সমস্ত কায়িনাতকে। সুবহানাল্লাহ! আজ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১২ই মুহররমুল হারাম শরীফ। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যেহেতু “মহাসম্মানিত 

কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ তথা শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে- মুসলমানদের জন্য মূর্তিপূজা শিরক, অমার্জনীয় কবীরা গুণাহ ॥ শরীয়তের


মূর্তিপূজা তথা শিরক করা যে কত কঠিন একটি গুনাহ, এ সম্পর্কে খালিক মালিক রব মহান আল্লাহপাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “মহান আল্লাহ পাক তিনি শিরক-এর গুনাহ মাফ করবেন না। শিরক ছাড়া অন্য যত গুনাহ আছে সেগুলো যাকে ইচ্ছা মাফ করে দিবেন।’’ 

মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের আলোকে সম্মানিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত উনার


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি বিশুদ্ধ আক্বীদাহ মুবারক: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ¦াতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ সাইয়্যিদুনা মুহম্মদুর রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যিনি খালিক্ব মালিক রব 

পবিত্র কালিমা শরীফ থেকে “মুহম্মদুর রসূলুল্লাহ” ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে বাদ দেয়ার চিন্তা করাও কুফরী


পবিত্র কালিমা শরীফ “লাইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহম্মদুর রসূলুল্লাহ” (ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) উনাকে যারা অস্বীকার করছে তারা বাতিল ফিরক্বার অন্তর্ভুক্ত। তারা বলে থাকে যে, পবিত্র কালিমা শরীফ পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নেই। নাঊযুবিল্লাহ! তারা বিভিন্ন স্থানে মসজিদ থেকে পবিত্র কালিমা শরীফ 

সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার প্রচার-প্রসারে পবিত্র বাইতুল মাল উনার গুরুত্ব ও তাৎপর্য


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- يَأْتِـيَ عَلَى النَّاسِ زَمَانٌ لَا يَنْفَعُ فِيْهِ إِلَّا الدِّيْنَارُ وَالدِّرْهَمُ অর্থাৎ- “মানুষের মাঝে এমন একটি সময় আসবে যখন দীনার ও দিরহাম বা টাকা-পয়সা ব্যতীত ফায়দা হাছিল করা যাবে না।” কাজেই মাল ছাড়া দৈহিক 

মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত পরিচিতি ও মর্যাদা মুবারক


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি মানুষের হিদায়েতের জন্য যেভাবে যুগে যুগে হযরত নবী ও রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে প্রেরণ করেন ঠিক তেমনি সর্বশেষ নবী ও রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম 

প্রসঙ্গ: সুদভিত্তিক চলমান পুঁজিবাদী অর্থনীতির অসম চিত্র ও বৈষম্য এবং সুদবিহীন ব্যাংকিং পদ্ধতি


(১) পৃথিবীতে বেঁচে থাকার জন্য অর্থ ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। স্ষ্ঠুু, বৈষম্যহীন এবং একটি পরিকল্পিত অর্থনৈতিক ব্যবস্থার মাধ্যমে একটি জাতি তৃণমূল থেকে জাতীয় পর্যায়ে প্রত্যেকেই যার যার অর্থনৈতিক সুবিধা লাভ করে বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু যে অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কিছু 

স্কুল-কলেজের বইয়ে সরাসরি কুফরী শিখানো হচ্ছে!! পাঠ্যবইয়ে মহান আল্লাহপাক উনার সম্পর্কেই মারাত্মক কুফরী


৪র্থ শ্রেণীর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বইয়ের ‘বাংলাদেশের জনসংখ্যা’ অধ্যায়ে জনসংখ্যাকে সমস্যা হিসেবে বর্ণনা করে ‘জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ’ হিসেবে কয়েকটি কারণের মধ্যে একটি কারণ বলা হয়েছে ‘ধর্মীয় কারণ’। সেখানে বলা হয়েছে- “অনেক মানুষ বিশ্বাস করেন সৃষ্টিকর্তা যেহেতু আমাদের সৃষ্টি করেছেন তাই 

স্বকীয়তা ধারণ করে মুসলমানদের উচিত প্রকৃত মুসলমানে পরিণত হওয়া


আমরা সবাই নিজেদের মুসলমান এবং ঈমানদার বলে দাবি করি। অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “যদি তোমরা ঈমানদার দাবি করে থাকো তবে আল্লাহ পাক উনাকে ও উনার রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু 

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সরাসরি হাতে-কলমে হযরত ছাহাবা আজমাঈন উনাদেরকে ‘লিখা ও পড়া’


পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- اِنَّمَا الْعِلْمُ عِنْدَ اللّـهِ অর্থ: নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার কাছেই সমস্ত ইলিম মুবারক রয়েছে। (পবিত্র সূরা আহক্বাফ শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ২৩ এবং পবিত্র সূরা মূলক শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ২৬) পবিত্র 

জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি নিয়ে অপপ্রচার ও গুজবে সতর্ক হোন বরং ঈমানদার-মুসলমানদের জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি ও হাঁচি, কাশি


জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি হলেই করোনা নয়। জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি ও কাশি হওয়া খাছ সুন্নত উনার অন্তর্ভুক্ত। এ সম্পর্কে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, عن حضرت أَبِىْ عَسِيبٍ رضى الله تعالى عنه مَوْلَى رَسُولِ اللَّهِ 

কারবালার হৃদয় বিদারক ঘটনার সাথে সম্পৃক্তরা কঠিন খোদায়ী গযবে পতিত


সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ, ইমামুছ ছালিছ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সালাম উনাকে কারবালায় শহীদ করার ব্যপারে হযরত উলামায়ে কিরামগণ উনারা ইজমা করেছেন যে, বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে আশ্চর্যজনক, নির্মম, বেদনাদায়ক এবং হৃদয়বিদারক বিষয় হলো কারবালার ঘটনা। সাইয়্যিদুনা হযরত