বাংলাদেশের সংবিধানে শুধু রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম থাকলেই চলবে না, সাথে সাথে ‘মহান আল্লাহ পাক উনার উপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস’


প্রকৃত সত্য কি? মুক্তিযুদ্ধ কি ধর্মনিরপেক্ষতার জন্য হয়েছিল, নাকি মুসলমানদের দ্বীন ইসলাম উনার জন্য হয়েছিলো? তৎকালীন ৯৫ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত এই দেশের মুসলমান কি নাস্তিক আর ইসলামবিদ্বেষী হবার জন্য যুদ্ধ করেছিলো? দেশের আপামর জনগণ কি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বলতে তাই বুঝে? বাংলাদেশের 

আফসুস! নির্জীব মুসলমানদের জন্য!


কাফির-মুশরিকদের সুদূরপ্রসারী মহাপরিকল্পনার ফাঁদে আটকে মুসলমানগণ ঈমান হারিয়ে এখন আত্মাবিহীন মৃত মানুষে পরিণত হয়েছে। মৃতের লাশ ইচ্ছেমত কাটাছেঁড়া করা যায়। কারণ মৃত ব্যক্তির প্রতিবাদ করার শক্তি নাই। বর্তমান আখিরী যানামায় সারা বিশ্বের মুসলমানদের অবস্থাও মৃত ব্যক্তির মতোই। পৃথিবীতে প্রায় সাড়ে তিনশ 

পবিত্র দ্বীন ইসলামে নারীর মর্যাদা ও অধিকার: কন্যা-সন্তান হিসেবে নারীর মর্যাদা


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, بِأَيِّ ذَنْبٍ قُتِلَتْ وَإِذَا الْمَوْءُودَةُ سُئِلَتْ অর্থ : যখন জীবন্ত প্রোথিত কন্যা সন্তানকে জিজ্ঞেস করা হবে; কোন্ অপরাধে তাকে হত্যা করা হয়েছিল। (পবিত্র সূরা তাকভীর শরীফ, পবিত্র আয়াত শরীফ ৮-৯) কন্যা সন্তানের হত্যার এক 

উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ মুবারক


সাইয়্যিদাতু নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন, আফদ্বলুন নাস ওয়ান নিসা’ বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নসব মুবারকগত দিক থেকে সম্মানিত কুরাইশ বংশীয়। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত পিতা হচ্ছেন সাইয়্যিদুনা হযরত 

সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনারাই উম্মুল কায়িনাত


সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমাতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হচ্ছেন আবুল কায়িনাত আর তিনি যে সকল পূত-পবিত্রা সম্মানিতা মহিলা উনাদের সাথে নিসবতে আযীম মুবারক স্থাপন করেন উনারাই হচ্ছেন উম্মুল কায়িনাত। সুবহানাল্লাহ! স্মরণীয় যে, সমস্ত 

আদালতে এখনও ব্রিটিশ ছায়া: ৬ মাস বন্ধ থাকলে বিচার কাজ এগুবে কিভাবে?


সারা দেশের আদালতে বিচারাধীন মামলা ৩০ লাখের কোটা পেরিয়েছে অনেক আগেই। প্রতিদিন যোগ হচ্ছে নতুন মামলা। অথচ মামলার নিষ্পত্তিকারী সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান সুপ্রিম কোর্টই বন্ধ থাকছে বছরের অর্ধেক সময়। সুপ্রিম কোর্টের ২০১৮ সালের ক্যালেন্ডারের দিকে তাকালে দেখা যায়, বছরের ৩৬৫ দিনের মধ্যে 

বাল্যবিবাহের বিরোধিতা করলে যে করুণ পরিনতি বরণ করতে হবে


এক ব্যক্তি ছিল যে নিজেকে আলিম দাবী করতো। এক মজলিসে তার সামনে সাইয়্যিদাতুনা উম্মুল মু’মিনিন আছ ছালিছা হযরত ছিদ্দীকা আলাইহাস সালাম উনার শানের খেলাফ কথা বলা হলো। সে কোন প্রতিবাদ করলো না। সেই রাত্রেই সে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু 

হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হচ্ছেন- নিয়ামতে উযমা মুবারক বা সবচেয়ে মহান ও বড় নিয়ামত মুবারক অর্থাৎ


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, তোমাদের প্রতি মহান আল্লাহ পাক উনার প্রদত্ত্ব নিয়ামতসমূহকে তোমরা স্মরণ করো বা নিয়ামতসমূহের তোমরা আলোচনা করো। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘নিশ্চয়ই আমি মহাসম্মানিত নিয়ামত 

পবিত্র ইসলামে অশুভ বা কুলক্ষণ বলতে কিছু নেই, এবং ছোঁয়াচে বলে কোন রোগ নেই


সমাজে অনেক মানুষ আছে যারা বিভিন্ন মাস ও দিনকে অশুভ বা কুলক্ষনে মনে করে। এবং রোগ ব্যাধিকে সংক্রামক বা ছোঁয়াচে মনে করে থাকে। কিন্তু কোন রোগ মাস ও দিনকে অশুভ বা কুলক্ষন মনে করা এবং রোগ ব্যাধিকে সংক্রামক এবং ছোঁয়াচে মনে 

প্রত্যেকের এটা মনে রাখতে হবে- মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা ঈমানদারের বৈশিষ্ট্য; আর মসজিদ ভাঙ্গা কাফিরদের বৈশিষ্ট্য


মসজিদ যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত ঘর। মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট সর্বশ্রেষ্ঠ স্থান মসজিদ। মহান আল্লাহ পাক তিনি মসজিদ নির্মাণ ও আবাদ করার জন্য নির্দেশ মুবারক করেছেন। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- مَا كَانَ 

সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন হাদিয়া আশার আলাইহাস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহ উমরী মুবারক


পরিচিতি মুবারক: সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন হাদিয়াহ আশার আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত নাম মুবারক হচ্ছেন হযরত উম্মে হাবীবা বিনতে আবি সুফিয়ান আলাইহাস সালাম। তিনি কুরাইশ গোত্রের উমাইয়া শাখার অন্তর্ভূক্ত। হযরত হাবীবাহ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা উনার মেয়ের নাম, সেজন্য 

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন,


প্রথম শাদী মুবারক: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত খিদমত মুবারক-এ আসার পূর্বে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার শাদী মুবারক হয়েছিলো ‘উবাইদুল্লাহ ইবনে জাহাশের সাথে। তখন ‘সাইয়্যিদাতুনা