সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, আফদ্বলুন নাস ওয়ান নিসা বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আহলু


সম্মানিত ও পবিত্র ইসম বা নাম মুবারক: সাইয়্যিদাতুনা হযরত খাদীজাহ আলাইহাস সালাম। সম্মানিত কুনিয়াত মুবারক: উম্মুল হিন্দ আলাইহাস সালাম। সম্মানিত লক্বব মুবারক আইয়্যামে জাহিলিয়াতের যুগে: তখন তিনি সকলের মাঝে আত ত্বাহিরাহ, আত ত্বইয়্যিবাহ অর্থাৎ পূত-পবিত্রতা, পবিত্রতাদানকারিণী সম্মানিত লক্বব মুবারক-এ সারা আরবে, 

সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, উম্মুল মু’মিনীন আল ঊলা সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার আযীমুশ নিসবতে আযীম মুবারক এবং প্রাসঙ্গিক


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বরকতময় কোন বিষয় সাধারণ মানুষের মত নয়। তাই, সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত সাধারণ শব্দসমূহ উনার মুবারক শানে ব্যবহার করা যাবেনা। আর এ জন্য উনার মুবারক শানে শাদী, বিবাহ বা নিকাহ ইত্যাদী 

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি সাইয়্যিদু কুরাইশ, সাইয়্যিদুন নাস, মালিকুল জান্নাহ সাইয়্যিদুনা হযরত


পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, وَتَقَلُّبَكَ فِي السَّاجِدِينَ অর্থ: “(হে আমার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনার স্থানান্তরিত হওয়ার বিষয়টি ছিলো সম্মানিত সিজদাকারীগণ উনাদের মাধ্যমে” (পবিত্র সূরা শুয়ারা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ 

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নাম মুবারক উনার ফযীলত


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, হযরত আনাস ইবনে মালিক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ক্বিয়ামতের দিন মহান আল্লাহ পাক উনার সামনে দু’বান্দাকে দাঁড় করানো 

কায়িনাতের বুকে যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার এক অনন্য বেমেছাল মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতপূর্ণ ফযীলতপূর্ণ দিবস


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, وَذَكِّرْهُمْ بِاَيَّامِ اللهِ اِنَّ فِىْ ذٰلِكَ لَاٰيَاتٍ لِكُلِّ صَبَّارٍ شَكُورٍ. অর্থ: “আর (আমার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি তাদেরকে (সমস্ত জিন-ইনসান, তামাম 

আসমাউর রিজাল, জারাহ ওয়াত তা’দীল, উছুলে হাদীছ শরীফ উনার অপব্যাখ্যা করে অসংখ্য ছহীহ হাদীছ শরীফ উনাকে জাল বলছে ওহাবী


সবাই কি জারাহ করার যোগ্যতা রাখে? পবিত্র হাদীছ শরীফ পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণকারীদের অনেক গুণাবলি থাকতে হবে। যেমন তেমন লোক পবিত্র হাদীছ শরীফ নিয়ে বা কোন রাবী নিয়ে কোন মন্তব্য করতে পারবে না। হযরত আব্দুল হাই লখনবী রহমতুল্লাহি আলাইহি এ বিষয়ে কিতাবে 

আকরামুল আউওয়ালীন ওয়াল আখিরীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং উনার মহাসম্মানিত হযরত আহলু


কাফিল পাদ্রী নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নাম মুবারক উনার সাথে বেয়াদবী করার কারণে তার উপর সরাসরি মহান আল্লাহ পাক উনার গযব নাযিল হয়েছে। সে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে উসীলা 

উম্মুল মু’মিনীন আল ঊলা সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম তিনি একক ও অদ্বিতীয় খুছূছিয়্যাহ মুবারক উনার মালিক


স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক তিনি উম্মুল মু’মিনীন আল ঊলা সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার শান-মান, বুজুর্গী-সম্মান ও মর্যাদা মুবারক উনাকে বুলন্দ থেকেও বুলন্দতর করেছেন। আর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি স্বয়ং উনার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন, 

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত জিসমানী তথা শারীরিক পবিত্রতা


মহান আল্লাহ পাক তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত জিসিম মুবারক উনার মধ্যে এমন আখাছ্ছুল খাছ বিশেষত্ব মুবারক হাদিয়া মুবারক করেছেন, যা অন্য কারো দেহে হাদিয়া করা হয়নি। সুবহানাল্লাহ! উনার সম্মানিত জিসিম মুবারক থেকে নির্গত 

সম্মানিত সুন্নত মুতাবেক আমল করার মধ্যেই সম্মানিত সন্তুষ্টি রেযামন্দি নিহিত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলুন, যদি তোমরা মহান আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত পেতে চাও, তাহলে আমার অনুসরণ করো। তাহলে মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে মুহব্বত করবেন। 

হেদায়াত এমন একটি পবিত্র নিয়ামত যা, না চাইলে কাউকে দেয়া হয় না


  হেদায়াত এমন একটি পবিত্র নিয়ামত যা, না চাইলে কাউকে দেয়া হয় না।যারা সৎ পথের সন্ধানের চেষ্টা করবে, তাদেরকে সৎ পথের সন্ধান দেয়াই আল্লাহপাকের নীতি। হেদায়েত চায় নি বা ছিল না বলেই হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুজিযা শরীফ 

হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা ঈমান, আমল ও নাযাতের মূল


সম্মানিত হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা ঈমান, আমল ও নাযাতের মূল। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “উম্মুল মু’মিনীন হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্নিত। তিনি বলেন, من أحب شيئاً أكثر من ذكره অর্থ: মানুষ যাকে