সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার প্রচার-প্রসারে পবিত্র বাইতুল মাল উনার গুরুত্ব ও তাৎপর্য


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- يَأْتِـيَ عَلَى النَّاسِ زَمَانٌ لَا يَنْفَعُ فِيْهِ إِلَّا الدِّيْنَارُ وَالدِّرْهَمُ অর্থাৎ- “মানুষের মাঝে এমন একটি সময় আসবে যখন দীনার ও দিরহাম বা টাকা-পয়সা ব্যতীত ফায়দা হাছিল করা যাবে না।” কাজেই মাল ছাড়া দৈহিক 

মুজাদ্দিদে আ’যম, ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত পরিচিতি ও মর্যাদা মুবারক


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি মানুষের হিদায়েতের জন্য যেভাবে যুগে যুগে হযরত নবী ও রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে প্রেরণ করেন ঠিক তেমনি সর্বশেষ নবী ও রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম 

প্রসঙ্গ: সুদভিত্তিক চলমান পুঁজিবাদী অর্থনীতির অসম চিত্র ও বৈষম্য এবং সুদবিহীন ব্যাংকিং পদ্ধতি


(১) পৃথিবীতে বেঁচে থাকার জন্য অর্থ ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। স্ষ্ঠুু, বৈষম্যহীন এবং একটি পরিকল্পিত অর্থনৈতিক ব্যবস্থার মাধ্যমে একটি জাতি তৃণমূল থেকে জাতীয় পর্যায়ে প্রত্যেকেই যার যার অর্থনৈতিক সুবিধা লাভ করে বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু যে অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কিছু 

স্কুল-কলেজের বইয়ে সরাসরি কুফরী শিখানো হচ্ছে!! পাঠ্যবইয়ে মহান আল্লাহপাক উনার সম্পর্কেই মারাত্মক কুফরী


৪র্থ শ্রেণীর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বইয়ের ‘বাংলাদেশের জনসংখ্যা’ অধ্যায়ে জনসংখ্যাকে সমস্যা হিসেবে বর্ণনা করে ‘জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ’ হিসেবে কয়েকটি কারণের মধ্যে একটি কারণ বলা হয়েছে ‘ধর্মীয় কারণ’। সেখানে বলা হয়েছে- “অনেক মানুষ বিশ্বাস করেন সৃষ্টিকর্তা যেহেতু আমাদের সৃষ্টি করেছেন তাই 

স্বকীয়তা ধারণ করে মুসলমানদের উচিত প্রকৃত মুসলমানে পরিণত হওয়া


আমরা সবাই নিজেদের মুসলমান এবং ঈমানদার বলে দাবি করি। অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “যদি তোমরা ঈমানদার দাবি করে থাকো তবে আল্লাহ পাক উনাকে ও উনার রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু 

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সরাসরি হাতে-কলমে হযরত ছাহাবা আজমাঈন উনাদেরকে ‘লিখা ও পড়া’


পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- اِنَّمَا الْعِلْمُ عِنْدَ اللّـهِ অর্থ: নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার কাছেই সমস্ত ইলিম মুবারক রয়েছে। (পবিত্র সূরা আহক্বাফ শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ২৩ এবং পবিত্র সূরা মূলক শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ২৬) পবিত্র 

জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি নিয়ে অপপ্রচার ও গুজবে সতর্ক হোন বরং ঈমানদার-মুসলমানদের জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি ও হাঁচি, কাশি


জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি হলেই করোনা নয়। জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি ও কাশি হওয়া খাছ সুন্নত উনার অন্তর্ভুক্ত। এ সম্পর্কে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, عن حضرت أَبِىْ عَسِيبٍ رضى الله تعالى عنه مَوْلَى رَسُولِ اللَّهِ 

কারবালার হৃদয় বিদারক ঘটনার সাথে সম্পৃক্তরা কঠিন খোদায়ী গযবে পতিত


সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ, ইমামুছ ছালিছ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সালাম উনাকে কারবালায় শহীদ করার ব্যপারে হযরত উলামায়ে কিরামগণ উনারা ইজমা করেছেন যে, বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে আশ্চর্যজনক, নির্মম, বেদনাদায়ক এবং হৃদয়বিদারক বিষয় হলো কারবালার ঘটনা। সাইয়্যিদুনা হযরত 

যে বা যারা কথিত ছোঁয়াচে রোগ নামক শিরকী বিশ্বাসে বিশ্বাসী হয়ে মুসলমানদেরকে মসজিদে যেতে নিরুৎসাহিত করছে, কাতারে ফাঁক ফাঁক


পবিত্র মসজিদে আসার ব্যাপারে বাধা প্রদান করা, নিষেধ করার বিষয়ে মহান আল্লাহপাক উনার অত্যন্ত কঠিন সতর্কবাণী: পবিত্র মসজিদে আসার ব্যাপারে যারা বাধা প্রদান করে, নিষেধকারীদের প্রসঙ্গে স্বয়ং মহান আল্লাহপাক রাব্বুল আলামীন তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- وَمَنْ 

আজ ঐতিহাসিক তাৎপর্যমন্ডিত আশূরা মিনাল মুহররমুল হারাম শরীফ। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুশ শুহাদা, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছালিছ আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করো আমার সন্তুষ্টি মুবারক লাভের জন্য।’ সুবহানাল্লাহ! আজ ঐতিহাসিক তাৎপর্যমন্ডিত আশূরা মিনাল মুহররমুল হারাম শরীফ। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুশ শুহাদা, সাইয়্যিদুনা 

পবিত্র কারবালা উনার হৃদয় বিদারক ঘটনার স্মরণ ও অনুভব করা হবে মু’মিনের নাজাতের কারণ


পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ মুসলমানগণ উনাদের জীবনে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ রহমত, বরকত, সাকীনা ও মাগফিরাত মুবারক উনার মাস। আরবী মাসের প্রথম মাস পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ এবং পবিত্র মাস উনাদের একটি। এ মাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য বর্ণনার অপেক্ষা রাখে না। মানুষ 

পবিত্র ১০ই মুহররমুল হারাম শরীফ বা পবিত্র আশূরা শরীফ দিনের বিশেষ বিশেষ ওয়াকিয়াসমূহ


এই বরকতময় পবিত্র ১০ই মুহররমুল হারাম শরীফ উনার দিনেই সৃষ্টির সূচনা হয় এবং এই দিনেই সৃষ্টির সমাপ্তি ঘটবে। বিশেষ বিশেষ সৃষ্টি এ বরকতময় দিনেই করা হয় এবং বিশেষ বিশেষ ঘটনা এ বরকতময় দিনেই সংঘটিত হয়। যেমন :- এ দিনেই মহান আল্লাহ