Posts Tagged ‘তাবলীগ’

তাবলীগ নামের দলটি মানুষকে বিভ্রান্ত করে বা করছে


মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “সম্মানিত দ্বীন উনার হুকুম-আহকামের ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম বাতিল ক্বিয়াস করে স্বীয় মতামত প্রকাশ করেছে ইবলিস। মহান আল্লাহ পাক তাকে বলেছিলেন

তাবলীগ সম্পর্কে কিছু তথ্য যার ব্যাখ্যা তাবলীগদের নিজেদেরও জানা নেই


১. তাবলীগরা “মুরুব্বি” শব্দটা বহুল ব্যবহৃত। তাবলীগের মুরুব্বিকে ইংরেজিতে এরা Elder বলে। আপনি কি জানেন এই মুরুব্বি বা Elder শুধু দুদল বেশি মান্য করে? ইহুদী ও তাবলীগরা। ১৯০৫ সালে ইহুদীদের “The protocol of the learned elders of Jews” বা “জ্ঞানী ইহুদী

শুনুন শুনুন মহাজন! শুনুন দিয়া মন! মসজিদ নাপাক করা তাবলীগের কাহিনী করি গো বর্ণন…………


১) ছয় উছূলী তাবলীগের লোকজন মসজিদের মধ্যে অবস্থান নেয়। কিন্তু স্বাভাবিকভাবে ঘুমের মধ্যে তো সবার স্বপ্ন (!) একরকম থাকে না। আর তাই দলবেধে মসজিদে ঘুমিয়ে এই গোষ্ঠীটি দ্বারা হরহামেশাই নাপাকি ছড়িয়ে থাকে। ( বি:দ্র: মসজিদে ইতিক্বাফের নিয়ত ছাড়া থাকা জায়িজ নেই)

JE SUIS TABLEEG গাট্রিওয়ালাদের চিল্লা নিয়ে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি মিথ্যাচার। নাউযুবিল্লাহ


প্রচলিত তাবলীগ জামায়াতের লোকেরা বলে থাকে যে, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম “গারে হেরায়” চিল্লা দেয়ার উসীলাই পবিত্র কুরআন শরীফ ও নুবুওওয়ত প্রাপ্ত হয়েছেন | যেমন এ প্রসঙ্গে তাদের কিতাবে বিবৃত হয়েছে- “হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ৪০ দিন

তাবলীগওয়ালারা নিজেদের লোকদের বিরুদ্ধে কিভাবে প্রতিবাদ করবে?


তাবলীগ নাকি সারা বিশ্বে ইসলাম প্রচার করে। অথচ সারাবিশ্বের এমন কোনো দেশ নাই যেখানে মুসলমান উনাদের শহীদ করা হচ্ছে না কিম্বা নির্যাতন করা হচ্ছে না। যেখানে মুসলমান উনাদের জীবন বিপন্ন সেখানে এরা কার কাছে ইসলাম প্রচার করে? ফিলিস্তিনে প্রতিদিন শত শত

তাবলীগও নিষিদ্ধ হচ্ছে ঢাবি ক্যাম্পাসে তাবলীগও নিষিদ্ধ হচ্ছে ঢাবি ক্যাম্পাসে


অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ক্যাম্পাসে পুলিশের টহল বৃদ্ধি, আবাসিক এলাকায় বহিরাগত মুক্ত করা, বহিরাগত তাবলীগ জামাতকে মসজিদে অবস্থান করতে না দেয়া, ভবনগুলোর প্রবেশমুখে নিরাপত্তারক্ষী বাড়ানো, গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা (সিসি টিভি) বসানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত ২১শে

নিজেদের মধ্যে কাদা ছোড়াছুড়িতে তাবলীগীরা নিজেরাই স্বীকার করেছে তাদের লুটপাট, সন্ত্রাসবাদী নেটওয়ার্ক ও অসামাজিক কার্যকলাপের কথা


  গত ১৯শে মে ২০১৪ ঈসায়ীতে দৈনিক আল ইহসান শরীফ উনার মধ্যে “তাবলীগ আমিরের বিরুদ্ধে ২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ। দেশব্যাপী নিজস্ব সন্ত্রাসী গ্রুপ ও নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে মালানা যোবায়ের ও ওয়াসিফুল” শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয় যে- “তাবলীগ

সোমবার ও শুক্রবার শরীফ বাদ দিয়ে রবিবার আখেরী মুনাজাত কেন??


আপনারা অনেকেই খেয়াল করে থাকবেন, তাবলিগীদের তথাকথিত বিদয়াতি ইস্তেমার আখেরী মুনাজাত বা মূল পর্বটা হয় “রবিবার”। সপ্তাহের সাতটা দিনের মধ্যে এই রবিবারকে বেছে নেয়ার কি কারন? কারনতো অনেক, তবে আসল কারন হচ্ছে প্রত্যেক জিনিস তার মূলের দিকে প্রত্যাবর্তন করে। যেহেতু ব্রিটিশদের

শুরু হয়ে গিয়েছে ইস্তেঞ্জার (ইসতেমা) ভাগাভাগি। মুজাদ্দিদে আযম আলাইহিস সালাম উনার নসীহত মোবারক অবশ্যই অবশ্যই সত্যে পরিণত হবে, হতেই হবে। সুবহানআল্লাহ !


মহান মুজাদ্দিদে আযম আলাইহিস সালাম ইরশাদ মোবারক করেছেন যে ইস্তেঞ্জা (ইসতেমা) আস্তে আস্তে ভাগ হতে থাকবে এবং ভাগ হতে হতে একসময় বন্ধই হয়ে যাবে। উনার সেই নসিহত মোবারক এরই প্রতিফলন হচ্ছে ২০১১সাল থেকে শুরু হওয়া ইস্তেঞ্জার(ইসতেমার) ভাগাভাগি… ৩২ জেলা এ বছর,

প্রসঙ্গঃ প্রচলিত ৬উসূলী তাবলীগ জামায়াত- ফাঁকা বুলির উন্মাদনা ৫% ইসলামী শিক্ষার প্রচারণা ——–> পর্ব-১


(১) প্রচলিত তাবলীগ জামায়াতের লোকদের লিখিত কিতাবে একথা উল্লেখ আছে যে, “মুর্খ হোক, আলেম হোক, ধনী হোক, দরিদ্র হোক, সকল পেশার সকল মুসলমানের জন্য তাবলীগ করা ফরজে আইন |” (হযরতজীর মালফূযাত-৪ পৃষ্ঠা-৭, তাবলীগ গোটা উম্মতের গুরু দায়িত্ব পৃষ্ঠা-৫৩, তাবলীগে ইসলাম পৃষ্ঠা-৩,

তাবলীগ আমিরের বিরুদ্ধে ২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ॥ দেশব্যাপী নিজস্ব সন্ত্রাসী গ্রুপ ও নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে মালানা যোবায়ের ও ওয়াসিফুল


তাবলীগ জামাতের আমির মালানা ওয়াসিফুল ইসলাম তাবলীগ ও কাকরাইল মসজিদ নির্মাণের নামে দেশ-বিদেশ থেকে টাকা তুলে দুই শত কোটি টাকা আত্মসাত করেছে বলে অভিযোগ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক এম মুশফিকুর রহমান চৌধুরী সমর্থিত তাবলীগ জামাতের শিক্ষকেরা। গতকাল ইয়াওমুল আহাদ (রোববার)

শুনুন শুনুন মহাজন! শুনুন দিয়া মন! মসজিদ নাপাক করা তাবলীগের কাহিনী করি গো বর্ণন…………


১) ছয় উছূলী তাবলীগের লোকজন মসজিদের মধ্যে অবস্থান নেয়। কিন্তু স্বাভাবিকভাবে ঘুমের মধ্যে তো সবার স্বপ্ন (!) একরকম থাকে না। আর তাই দলবেধে মসজিদে ঘুমিয়ে এই গোষ্ঠীটি দ্বারা হরহামেশাই নাপাকি ছড়িয়ে থাকে। ( বি:দ্র: মসজিদে ইতিক্বাফের নিয়ত ছাড়া থাকা জায়িজ নেই)