Posts Tagged ‘নিকাহ’

উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার বাল্যাবস্থায় আক্বদ বা নিকাহ মুবারক সম্পন্ন হওয়ার ব্যাপারে যারা চু-চেরা করেছে; তারা চরম মিথ্যাবাদী, মুনাফিক ও আশাদ্দুদ্ দরজার জাহিলও বটে


  সম্প্রতি কিছু মুনাফিক শ্রেণীর লোক তারা পেপার-পত্রিকায়, বই-পত্রে, ইন্টারনেটে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আয়িশা ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার বয়স মুবারক নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তারা একথা ছড়াচ্ছে যে, “নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে উম্মুল মু’মিনীন

দাম্পত্য জীবন


পবিত্র মা’রিফাত-মুহব্বত মুবারক, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক, কুরবত-নৈকট্য মুবারক তালাশকারী পুরুষগণের উদ্দেশ্যে-(৩)     উম্মুল মু’মিনীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন হযরত সালমা আলাইহাস সালাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক খিদমতে আরজ করলেন নারীরা অর্ধেক আক্বল-সমঝ ও অর্ধেক

মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি মুবারক তালাশকারী মহিলা-পুরুষদের উদ্দেশ্যে (৪)


৮. আহালদের উচিত আহলিয়াদের পোশাক-পরিচ্ছদ, অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয় সামগ্রীর প্রতি খেয়াল রাখা তথা ব্যবস্থা করে দেয়া। কেননা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সুন্দর আহলিয়া মানেই তার আহাল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর। ৯. এমন অনেক আহাল রয়েছে- যারা বাইরে ভালো খাবার খেয়ে থাকে এবং বাসায় এসে আালিয়াকে

মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি মুবারক তালাশকারী মহিলা-পুরুষদের উদ্দেশ্যে (৩)


১. মহান আল্লাহ পাক তিনি একজন আহলিয়া দিয়েছেন, সেজন্য আহাল বা স্বামীকে শুকরিয়া করা উচিত। অনুরূপ মহিলা বা আহলিয়ার ক্ষেত্রেও তা করা উচিত। ২. আহাল বাইরে থেকে ঘরে প্রবেশ করেই আহলিয়াকে সালাম দিবে এবং বাইরে থেকে কোনো কিছু এনে থাকলে হাসি

মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি মুবারক তালাশকারী মহিলা-পুরুষদের উদ্দেশ্যে (২)


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- তোমরা আমার কাছ থেকে মহিলাদের (স্ত্রী) সাথে সদ্ব্যবহার করার শিক্ষা গ্রহণ করো। এছাড়া আমরা জানি- নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিতা পূত-পবিত্রা হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদেরকে

মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি মুবারক তালাশকারী মহিলা-পুরুষদের উদ্দেশ্যে (১)


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “তারা (মহিলারা) তোমাদের আবরণ এবং তোমরা (পুরুষেরা) তাদের আবরণ। (পবিত্র সূরা বাক্বারা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-১৮৭) অর্থাৎ পুরুষ ও মহিলা মিলে একটি পরিবার, একে অপরের আবরণ এবং সম্পূরক। সুবহানাল্লাহ! কাজেই মহান

মা’রিফাত-মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি, কুরবত-নৈকট্য, তালাশকারিনী মহিলাগণ উনাদের উদ্দেশ্যে ….


  সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- لوكنت امرا لاحد ن يسجد لاحد لامرت المراة ان تسجد لزوجها অর্থ: “আমি যদি কাউকে সেজদা করার আদেশ দিতাম তাহলে মহিলাদেরকে

মা’রিফাত-মুহব্বত সন্তুষ্টি-রেযামন্দি, কুরবত-নৈকট্য তালাশকারী পুরুষগণের উদ্দেশ্যে


উম্মুল মু’মিনীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন হযরত সালমা আলাইহাস সালাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক খিদমতে আরজ করলেন নারীরা অর্ধেক আক্বল-সমঝ ও অর্ধেক দ্বীন উনার অধিকারিণী তা কিরূপ? নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি

দাম্পত্য জীবন


পবিত্র মা’রিফাত-মুহব্বত মুবারক, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক, কুরবত-নৈকট্য মুবারক তালাশকারী পুরুষগণের উদ্দেশ্যে (২)     আহলিয়া বা স্ত্রী হচ্ছেন আহাল বা স্বামীর ভালো-মন্দের সত্যায়নকারিনী। আহলিয়া যদি সত্যায়ন করেন যে, উনার আহাল তথা স্বামী ভালো, তাহলে তিনি ভালো। আর আহলিয়া যদি বলেন যে, উনার

দাম্পত্য জীবন


পবিত্র মা’রিফাত-মুহব্বত মুবারক, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক, কুরবত-নৈকট্য মুবারক তালাশকারী পুরুষগণের উদ্দেশ্যে-(১)       খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- والله ورسوله احق ان يرضوه ان كانوا مؤمنين অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক উনাকে এবং উনার রসূল নূরে মুজাসসাম

আজ সুমহান বেমেছাল বরকতময় পহেলা রজবুল হারাম শরীফ- আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত আব্দুল্লাহ যবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম ও উম্মু রসূলিনা সাইয়্যিদাতুনা হযরত আমিনা আলাইহাস সালাম উনাদের মহাপবিত্র মহাসম্মানিত আযীমুশ্ শান নিকাহিল আযীম শরীফ দিবস। এই মহাসম্মানিত দিবস মুসলমান উনাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও নাজাতের উসীলা। সুবহানাল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আর (হে আমার হাবীব, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি তাদেরকে (সমস্ত জিন-ইনসান, তামাম কায়িনাতবাসীকে) আইয়্যামিল্লাহ তথা মহান আল্লাহ পাক উনার বিশেষ বিশেষ দিনগুলো সম্পর্কে স্মরণ করিয়ে দিন, জানিয়ে দিন। নিশ্চয়ই এই বিশেষ

আজ যিক্রুল্লাহ, খইরু খলক্বিল্লাহ, আস সিরাজুল মুনীর, ইমামুল মুত্তাক্বীন, মালিকুল জান্নাহ, আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার এবং সাইয়্যিদাতু উম্মাহাত, উম্মুল কায়িনাত, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, হাবীবাতুল্লাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু রসূলিনা আলাইহাস সালাম উনার সুমহান বরকতময় আযীমুশ শান নিকাহিল আযীম শরীফ দিবস। এবং উনাদের বরকতে পবিত্র পহেলা রজবুল হারাম শরীফ দিবস প্রসঙ্গ।


আজ সুমহান বরকতময় ১লা রজবুল হারাম শরীফ। ইহা সে-ই সুমহান তারিখ বা দিবস মুবারক; যে সুমহান তারিখের বরকতময় রাতে সুসম্পন্ন হয়- যিক্রুল্লাহ, খইরু খলক্বিল্লাহ, আস সিরাজুল মুনীর, ইমামুল মুত্তাক্বীন, মালিকুল জান্নাহ, আবূ রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস