Posts Tagged ‘মালু’

৯ম-১০ম শ্রেণীর হিসাব বিজ্ঞান বইয়ে এত হিন্দু নাম কেন ?


  ক্লাস ৯-১০ এর হিসাব বিজ্ঞান বইয়ে বিভিন্ন অংকে ব্যবহৃত নামে হিন্দু নামের ছড়াছড়ি। যেমন: (১) দিপক (অধ্যায়-২, পৃষ্ঠা: ১৪) (২) আশীষ কুমার চক্রবর্তী (অধ্যায়-২, পৃষ্ঠা: ২১) (৩) মি. শংকর চন্দ্র সাহা (অধ্যায়-২, পৃষ্ঠা: ২১) (৪) রতন (অধ্যায়-২, পৃষ্ঠা: ৯) (৫)

চট্টগ্রাম থেকে দু’জন মুখোশধারী ইসলাম বিদ্বেষী নাস্তিক গ্রেফতার। তাদের ফাঁসি চাই


অজ চট্টগ্রাম থেকে কাজী রায়হান রাহী ও উল্লাস নামক দুই ইসলাম বিদ্বেষী নাস্তিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হযরত উম্মুল মুমেনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্পর্কে এরা ধৃষ্টতাপূর্ণ status এবং কমেন্ট করে। বিশেষ করে উম্মুল মু’মিনীন হযরত মারিয়া কিবতিয়া আলাইহাস সালাম উনার সম্পর্কে অশ্লীল

ভারতে মুসলিমবিদ্বেষ আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে


ভারতে মুসলিমবিদ্বেষ আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে : ট্রেনে মুসলমানদের খুঁজে বের করে শহীদ করা হয় : ত্রাণশিবিরে ঈদ করলেন আসামের মুসলমানরা ভারতে মুসলিম বিদ্বেষ আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। আসামে মুসলিম নিধনের মাধ্যমে এর বহিঃপ্রকাশ ঘটছে। হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি আসামের মুসলমানদের বাংলাদেশী

ঘুমিয়ে আছে ভারতমাতা সব মালুরই অন্তরে!


লিখতে খারাপ লাগছে। তবুও লিখছি। আমি মার্স্টারর্স এ পড়ছি। প্রায় ২০-২২ দিন আগে ক্যামপাসে কয়েক বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছিলাম, এদের বেশির ভাগই ছিল হিন্দু। (উল্লেখ্য যে আমার হিন্দু বন্ধুই বেশি, এবং চলার প্রতিটি ক্ষে্ত্রে কখনওই অমি সাম্প্রদায়িকতার চিন্তা মাথায় আনিনি। তাদের

এক মালুরে নিয়ে ছোট্ট একখান ছড়া..


ওহে বাংলার মালু ! খাও কি তুমি শুধু গো’চনা আর আলু? তাইতো বলি কেন তোমার গায়ে এত দুর্গন্ধ ! করতে যেয়ে মালুগো দালালি মুগুর খাও দিবারাতি। দিশাহারা হয়ে সারারাত ভাবে কেমনে বাবা এর থেকে বাঁচি ! নিয়ে মুসলমানের নাম করে মালুগো

হিন্দুরা কাক আর কুকুরের চেয়েও নিকৃষ্ট (অনেকদিন পর একটি বিশ্লেষণধর্মী পোস্ট লিখলাম)


কাক, কুকুর আর হিন্দু, এই তিনটি প্রাণীর মধ্যে মিল যেমন রয়েছে, তেমনি অমিলও আছে প্রচুর। এ তিনটি প্রাণীই কলহপ্রিয়, আবর্জনা এবং নোংরা অপবিত্রতার প্রতি এই তিনটি প্রাণীরই রয়েছে আত্মার টান। কুকুরের একটি বিশেষ দিক হলো, সে নির্লজ্জতায় অভ্যস্ত। একটি কুকুর তার

সামহোয়্যার ইন ব্লগের হিন্দুত্ববাদী ওয়েবপেইজ ডিজাইনারের আস্ফালন: মুসলমানদের রক্ত খেলে যার শান্তি হবে


অমিতাপ পান্ডে ! যৌন শক্তি বাড়ানোর জন্য গো মুত্র না খেয় মুসলমানের রক্ত-গোশত , আদা, রসুন, দিয়ে ভালোভাবে, রেধে খেতে পারেন। মুসলমানের রক্ত-গোশত খেলে যৌন শক্তি বাড়ে। গো মুত্র না খেয়ে মুসলমানের রক্ত-গোশত খান। তবে মুসলামনের রক্ত-গোশত খেলে মুসলমানের দুধ খেতে

বিমানের মালু প্রশাসকের কলিকাতা গমনের জন্য কেবিন ক্রুকে নামাইয়া দেয়া হইল!


সব পাখি নীড়ে ফেরে, ঠিক তেমনি সব মালু বাসা বাঁধে ইন্ডিয়ায়। বাংলাদেশে জন্মালেও ম্লেচ্ছ মালুদের নাড়ি কলিকাতার ময়লার ভাগাড়ে পোঁতা থাকে। বিমানের পরিচালকের (প্রশাসন) স্ত্রী যাবেন কলকাতায়, কিন্তু উড়োজাহাজে আসন খালি নেই। তাই ফ্লাইট থেকে কর্তব্যরত ক্রুকে নামিয়ে দিয়ে তাঁর আসনে

গো চনা খেতে মত্ত আছে হিন্দ মালু যত্ত।


গো চনা খেতে মত্ত আছে হিন্দ মালু যত্ত। মুশরিক রা হল সর্ব অবস্থায় নাপাক জানেন যারা তারা খুলে দেখুন কুরআন পাক। মালুদের মাতা নাকি আছে যত গরু গরুর মুতের শরবত ওরা খাওয়া করল শুরু। গরুর গোস্তের পরিবর্তে খায় গরুর লেদা জ্ঞান

পাগলে কিনা বলে ছাগলে কিনা খায়!(জনৈক গোমূত্রখোর মালউনের স্বীকারোক্তিমূলক ফটোপোস্ট)


আমার পুঠিয়া ব্লগে আমি ইসকন নিয়ে সবুজবাংলাব্লগের পোস্টটি দিয়েছিলাম, স্বাভাবিকভাবেই তাতে কোন কোন হিন্দু তাদের মুখোশ খুলে যাওয়ায় তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে। ইসকনকে বাঁচাতে তাদের অনেকে গোমূত্রের পক্ষে ওকালতিও শুরু করে। আবার সাথে সাথে চলে মিথ্যাচার, নিজেদের মানসম্মান রক্ষার্থে। সে যাই হোক,

হিন্দুর সাথে ইন্দুরের মিল কোথায়?


ইন্দুর বা ইঁদুর হল মানুষের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকর প্রাণী। হাদীছ শরীফে এজন্য বলা হয়েছে এক বাড়িতে বড় ইঁদুর মারতে পারলে একশত ছওয়াব হাসিল হবে। ইঁদুর গ্রামাঞ্চলে কৃষকের জন্য সবচেয়ে ভয়ংকর, এমনকি বাঘের চেয়েও। শহুরে মানুষদের বিশ্বাস করতে কষ্ট হবে যে গ্রামে

মিথ্যাবাদী অমর্ত্য সেন মুসলমানদের ইসলাম ধর্ম ত্যাগ করার কথা বলে হিন্দুত্ববাদের উগ্রআস্ফালন করেছে। প্রমাণ করেছে- হিন্দুত্ববাদ মানেই হচ্ছে, ইসলামকে উৎখাত করা। মুসলমানদের কচুকাটা করে শহীদ করা।অসাম্প্রদায়িক চেতনার প্রচারণা সম্পূর্ণই ছলনা ও প্রতারণা। (রিপোস্ট)


না, কেউ না। ভারতীয় নোবেল লরিয়েট অমর্ত্য সেনও পারলো না। উচ্চ শিক্ষা, গবেষণা, নোবেল পুরস্কার, সংস্কৃতি, নিচু স্বরে মিষ্টি মিষ্টি কথা, সজ্জন খোলস কোনোটাই অমর্ত্য সেনের দিলের হাক্বীক্বতকে চুপিয়ে রাখতে পারলো না। মুসলমানদের প্রতি তার অসাম্প্রদায়িক, ভদ্রবেশী ও সজ্জন খোলসটা টিকলো