Posts Tagged ‘মুনাফিক’

মুনাফিকের অন্যতম একটা বৈশিষ্ট্য হলো গালি দেয়া।


ভালো মানুষ কখনো গালি দেয় না। দিতেই পারে না। কারো প্রতি রাগান্বিত হলেও সে খারাপ ভাষা ব্যবহার করে না। ভালো মানুষের রাগ প্রকাশের ভঙ্গিটাও হয় সুন্দর ও সংযত। পক্ষান্তরে মন্দ মানুষ যখন রাগান্বিত হয় তখন সে ভুলে যায় ভদ্রতা এবং তার

মুনাফিক নর-নারী তারা মানুষকে নেক কাজে বাঁধা দেয়


  যারা  ‘লাইলাতুন নিসফি মিন শাবান’ এর বিরুদ্ধে বলে বেড়ায়। তারা কি এর বিপক্ষে কুরআন শরিফ ও হাদীস শরিফ থেকে কোন দলীল দেখাতে পারবে? এদের কাজ হলো মানুষকে নেক কাজ থেকে গাফেল রাখা। মহান আল্লাহ পাক তিনি এইসব মুনাফিকদের কথায় কালামুল্লাহ শরীফে

যে ব্যক্তি যে সম্প্রদায়ের সাথে মুহব্বত রাখবে বা যার অনুসরণ-অনুকরণ করবে, তার হাশর-নাশর তাদের সাথেই হবে।”


যে ব্যক্তি যে সম্প্রদায়ের সাথে মুহব্বত রাখবে বা যার অনুসরণ-অনুকরণ করবে, তার হাশর-নাশর তাদের সাথেই হবে।” মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা মুনাফিক ও কাফিরদের অনুসরণ-অনুকরণ করো না।” নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু

==মু’মীন এবং মুনাফিকের পরিচয়ঃ


মু’মীন উনারা সৎ কাজে আদেশ করেন ও অসৎ কাজে বাঁধা প্রদান করেন। মুনাফিক তারা যারা সৎ কাজে আদেশ করে না এবং অসৎ কাজে বাঁধা প্রদান করে না ।

ধিক্কার জানার সেই সব মুসলমান নামধারী মুনাফিকদের যারা মুশরিকদের সামনে মাথা নত করতে দ্বিধা করে না


রবিবারের ফাইনালের জন্য শনিবার অনুশীলনে ব্যস্ত ছিল ভারত ও বাংলাদেশ দল। মাঠের একদিকে অনুশীলন করছিল টিম ইন্ডিয়া, অপর প্রান্তে ছিল বাংলাদেশ দল। এমন সময় বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা এগিয়ে আসে যেখানে ভারতের ক্রিকেটার যুবরাজ দাড়িয়ে ছিল। যুবরাজ মাশরাফির সঙ্গে করমর্দন করার

মুনাফিকদের যা স্বভাব তা তারা করবেই


    আগে মিথ্যা কথা শুনলে দুঃখ লাগতো। ভাবতাম কেন ওরা মিথ্যা বলে ? আবার মিথ্যা অপবাদও সইতে পারতাম না । ইস ! কেন যে ওরা মিথ্যা অপবাদ দেয়। অথচ এই মিথ্যাবাদীদের সম্পর্কে মহান আল্লাহ পাক জানিয়ে দিয়েছেন । যারা সত্য

সউদী রাজপরিবার ইহুদী বলেই পবিত্র মদীনা শরীফ উনার মধ্যে অবস্থিত পবিত্র রওযা শরীফ স্থানান্তরিত করার পরিকল্পনা করে চরম ধৃষ্টতা ও দুঃসাহস দেখিয়েছে


পবিত্র রওযা শরীফ উনার সাথে বেয়াদবী করা কোনো মুসলমানের পক্ষে কস্মিনকালেও সম্ভব নয়। সউদী শাসকগোষ্ঠী ইহুদী বলেই তাদের পক্ষে এমন ধৃষ্টতা প্রদর্শন করা সম্ভব হয়েছে। আর বর্তমান সউদী আরবের ওহাবী শাসকগোষ্ঠী যে প্রকৃতপক্ষে ইহুদী এবং তাদের সউদ পরিবারের পূর্বপুরুষ যে ইহুদী

মুনাফিক সউদী ওহাবীদের পবিত্র রওজা শরীফ ও পবিত্র মাজার শরীফ ভেঙ্গে ফেলার নিকৃষ্ট ইতিহাস


গত ২রা সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঈসায়ী তারিখে যুক্তরাজ্যের দৈনিক পত্রিকা ইনডিপেনডেন্ট পত্রিকায় নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহা পবিত্র রওযা  শরীফ সরিয়ে ফেলার সউদী ওহাবী ইহুদী সরকারের ঘৃণ্য পরিকল্পনার কথা প্রকাশিত হয়। এখবর প্রকাশিত হওয়ার পরে সারা বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের

হিন্দু তোষণকারী শাসকগোষ্ঠী ইতিহাস থেকে শিক্ষা গ্রহণ করবে কি?


যে জাতি তার ইতিহাস জানে না, সে জাতি উন্নত হতে পারে না। হিন্দুদের প্রশ্রয় দেয়ায় বাংলার ইতিহাসে মুসলমানদের এর আগেও ভরাডুবি হয়েছিলো, এখনো হচ্ছে। এদেশের মুসলমান শাসকশ্রেণী সেই ইতিহাস ভুলে গেছে। অতীতে এদেশের মুসলমানদের খেয়ে পরে মোটা চর্বিযুক্ত দেহের অধিকারী হয়েছিল

সব মুনাফিকের পরিণতিই খারাপ। কিছু মুনাফিকের পরিণতি দেখুন


মীর জাফরঃ শিয়া আক্বিদাধারী এই লোক দুরারোগ্য কুষ্ঠ রোগে আক্রান্ত হয়ে ক্রমে ক্রমে মৃত্যুবরণ করে। মীরনঃ ক্লাইভের চক্রান্তে করুণ মৃত্যু। মুহম্মদী বেগঃ মাথায় গড়বড় অবস্থায় বিনা কারণে কূপে ঝাঁপিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করে মারা যায়। মহারাজা নন্দকুমারঃ তহবিল তসরুফ ও অন্যান্য অভিযোগের

দেশে অবৈধভাবে বসবাসকারী ভারতীয়সহ বিদেশীদের সম্পর্কে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস, প্রশাসনে ষড়যন্ত্র, ভয়ঙ্কর নাশকতা, এমনকি দেশের স্বাধীনতা বিপন্নকারী মুনাফিক সম্প্রদায় তৈরি হয়েছে, মুসলমানগণ সাবধান


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা (মুসলমানরা) তোমাদের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে পাবে প্রথমতঃ ইহুদীদেরকে অতঃপর মুশরিকদেরকে তথা হিন্দুদেরকে।’ আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, ‘দেশের মুহব্বত পবিত্র ঈমান উনার অঙ্গ।’ দেশের মুহব্বতে স্বাধীনতা রক্ষার উদ্দেশ্যেই

সউদী ওহাবী মুনাফিক সরকার এ বছরও কোটি কোটি মুসলমান উনাদের হজ্জ নষ্ট করতে যাচ্ছে


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘নিশ্চয়ই মুনাফিকের স্থান জাহান্নামের অতল তলে।’ সউদী প্রেস এজেন্সীর ওয়েব সাইটে উল্লিখিত আরবী মাস উনার তারিখও বিভ্রান্তিকর। উম্মুল কুরা ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এ তারিখ নির্ধারিত হয়ে থাকলে সউদী আরবের জাতীয় সংবাদ সংস্থার একই দিনে দুটো