Posts Tagged ‘মুবারক’

ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, চতুর্থ খলীফা সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার বিশেষ খুছুছিয়াত তথা বৈশিষ্ট্য এবং গুণাবলী মুবারক


শেরে খোদা, বাবুল ইলম ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার খুছুছিয়াত ও গুণাবলী মুবারক বহুবিধ। প্রথমতঃ তিনি হচ্ছেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুলল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া

ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত পবিত্র সাওয়ানেহ উমরী মুবারক


হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মর্যাদা সম্পর্কে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি জানিয়ে দিন, আমি তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাচ্ছি না। আর চাওয়াটাও স্বাভাবিক

ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত খিলাফত উনার দায়িত্ব মুবারক গ্রহণ


সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার চাচাতো ভাই। অপরদিকে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আদরের দুলালী আন নূরুর রবি’য়াহ

সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাদিস আলাইহিস সালাম উনার মুবারক একটি স্বপ্ন


##  সাইয়্যিদুনা  হযরত ইমামুস সাদিস আলাইহিস সালাম উনার মুবারক একটি স্বপ্ন  ## আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাদিস আলাইহিস সালাম তিনি বলেন- ১৪৮ হিজরী সনের পবিত্র ১১ই রজবুল হারাম শরীফ পবিত্র জুমুয়াহ শরীফ উনার রাত্রে আমি যথারীতি পবিত্র কুরআন শরীফ তিলাওয়াত

আসুন এ মাসের বিশেষ দিনগুলির তারিখ জেনে নেই।


১লা রজবুল হারাম শরীফ হলো-দোয়া কবুলের খাছ রাত এবং আবু রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত যাবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার ও সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মু রসূলিনা আলাইহাস সালাম উনাদের সুমহান বরকতময় আযীমুশ শান নিকাহিল আযীম শরীফ দিবস। এবং ২রা রজবুল হারাম শরীফ হলো- আবূ রসূলিল্লাহ

যে ব্যক্তি সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত মুবারক-এ ইন্তেকাল করবেন, তিনি ক্ষমাপ্রাপ্ত হয়ে ইন্তেকাল করবেন।


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যে ব্যক্তি সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত মুবারক-এ ইন্তেকাল করবেন, তিনি শহীদি মৃত্যু পাবেন। সাবধান! যে ব্যক্তি সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম

হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের ফাযায়িল-ফযীলত ও সম্মানিত কারামত শরীফ উনার মাহাত্ম্য এবং সাইয়্যিদাতুন নিসা, উম্মু উম্মিল উমাম, মাহজুবা, ত্বাহিরা, ত্বইয়িবা, তাওশিয়া, তাজিমা, তাকরিমা, শাফিয়াহ, মুশাফ্ফায়াহ, হাবীবাতুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, সাইয়্যিদাতুনা হযরত নানী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার গুটিকয়েক মুবারক কারামত বর্ণনা


“নিশ্চয়ই যে সকল মহান ব্যক্তিত্ব-ব্যক্তিত্বা উনারা মহান আল্লাহ পাক উনার বন্ধু, উনাদের কোনো ভয়ভীতি নেই এবং উনারা চিন্তিতও হবেন না।” (পবিত্র সূরা ইউনুস শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-৬২) ‘আউলিয়া’ শব্দটি ‘ওলী’ শব্দের বহুবচন। আরবী ভাষায় ‘ওলী’ শব্দের অর্থ: নিকটবর্তী এবং দোস্ত, বন্ধু-

ঈমান, আক্বীদা হিফাজতের ওয়েবসাইট সমূহ


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি এবং সাথে সম্পর্কযুক্ত সব কিছু হচ্ছেন ঈমান।  উনাদের পবিত্র শান মুবারকে আক্বীদা শুদ্ধ রাখতে পারলেই আমরা পরিপূর্ণ ঈমানদার। কারণ মহান আল্লাহ পাক না করুন কারো যদি আক্বীদা শুদ্ধ না থাকে তাহলে

মাহবুবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, গাউছুল আ’যম, মুজাদ্দিদে যামান, আওলাদে রসূল হযরত বড়পীর সাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সাওয়ানেহে উমরী মুবারক উনার মধ্যে রয়েছে প্রত্যেক মুসলিম উম্মাহর জন্য ইবরত ও নছীহত


মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি উনার পবিত্র কালাম পাক উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, الا ان اولياء الله لا خوف عليهم و لا هم يحزنون অর্থ: “নিশ্চয়ই যাঁরা মহান আল্লাহ পাক উনার ওলী উনাদের চিন্তা, পেরেশানী ও ভয় নেই।” অর্থাৎ

হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হচ্ছেন “নূরে মুজাসসাম”


মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি উনার কালাম পাক উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেছেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার তরফ থেকে তোমাদের নিকট এক-প্রকাশ্য নূর মুবারক এসেছেন।” এখানে নূর মুবারক বলতে মহান আল্লাহ উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু

‘হাসান’ নাম মুবারক উনার মাহাত্ম্য


حسن ‘হাসান’ শব্দ মুবারকটি আরবী। এটি একবচন। বহুবচন হচ্ছে حسان ‘হিসান’। অর্থ হলো- উত্তম, ভালো, সৎ, সুন্দর, শুভ, সুদর্শন, মনোরম, চমৎকার ইত্যাদি। আভিধানিকভাবে ‘হাসান’ শব্দ মুবারকটি ‘ক্ববীহ’ অর্থাৎ মন্দ শব্দের বিপরীত। উছূল শাস্ত্রের পরিভাষায় ১. পরিপূর্ণ গুণকে ‘হাসান’ বলে। ২. জাগতিক উদ্দেশ্যাবলীর

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি সৃষ্টির সূচনা ও সৃষ্টির মূল


মহান আল্লাহ পাক তিনি একক উনার কোন শরীক নেই। তিনি খালিক্ব বা সৃষ্টা হিসেবে একক। মহান আল্লাহ পাক সর্বপ্রথম উনার যিনি হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে সৃষ্টি করেছেন যখন সৃষ্টির কোন