Posts Tagged ‘মুহররম’

পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ উনার বিশেষ আমলসমূহ এবং ফযীলত মুবারক


পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাস উনার উল্লেখযোগ্য ও শ্রেষ্ঠতম দিন হচ্ছে ১০ই মুহররমুল হারাম শরীফ পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিন। এই মুবারক দিনটি বিশ্বব্যাপী এক আলোচিত দিন। কেননা সৃষ্টির সূচনা হয় এ দিনে এবং সৃষ্টির সমাপ্তিও ঘটবে এই দিনে। বিশেষ বিশেষ

মাহে মুহররমুল হারাম শরীফ উনার বিশেষ বিশেষ আইয়্যামুল্লাহ শরীফসমূহ


১ মুহররমুল হারাম: আমিরুল মুমিনীন, খলীফায়ে ছালিছ, সাইয়্যিদুনা হযরত যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম উনার খিলাফত মুবারক গ্রহণ দিবস। ২ মুহররমুল হারাম: সাইয়্যিদুনা যবিহুল্লাহ হযরত আবু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ দিবস। ৫ মুহররমুল হারাম: ক)

সরকারের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ উপলক্ষে কমপক্ষে ৩ দিন ছুটি ঘোষণা করা


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে এসেছে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “যে ব্যক্তি পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাস উনাকে তথা পবিত্র আশূরা শরীফ উনার দিনকে সম্মান করবে, খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক

পবিত্র মুহররম শরীফ মাসের বিশেষ আমল মুবারকসমূহ


পবিত্র মুহররম শরীফ মাসের উল্লেখযোগ্য ও শ্রেষ্ঠতম দিন হচ্ছে ১০ই মুহররম শরীফ ‘আশূরা’র দিনটি। এ দিনটি বিশ্বব্যাপী এক আলোচিত দিন। সৃষ্টির সূচনা হয় এ দিনে এবং সৃষ্টির সমাপ্তিও ঘটবে এ দিনে। বিশেষ বিশেষ সৃষ্টি এ দিনেই করা হয় এবং বিশেষ বিশেষ

পবিত্র আশূরা শরীফ উনার সম্পর্কিত পবিত্র হাদীছ শরীফসমূহ


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াা সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, পবিত্র রমাদ্বান শরীফ উনার পর সবচেয়ে ফযীলতপূর্ণ রোযা হচ্ছে- পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ তথা পবিত্র আশূরা শরীফ উনার রোযা। * নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া

পবিত্র মুহররমুল হারাম তথা পবিত্র আশূরা শরীফ উনার শ্রেষ্ঠতম আমল হচ্ছে হযরত আহলু বাইত আলাইহিমুস সালাম উনাদের সম্পর্কে আলোচনা করা


পবিত্র মুহররমুল হারাম তথা পবিত্র আশূরা শরীফ উনার শ্রেষ্ঠতম আমল হচ্ছে- হযরত আহলু বাইত আলাইহিমুস সালাম বিশেষ করে সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ, ইমামুছ ছালিছ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম উনার পূত-পবিত্রতম জীবন মুবারক উনার বিভিন্ন দিক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা-পর্যালোচনা করা।

আগামী ১৪ খমীস ১৩৮৪ শামসী, ১২ অক্টোবর ২০১৬ ঈসায়ী, ইয়াওমুল আরবিয়া বা বুধবার ‘পবিত্র আশূরা শরীফ’।


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা সম্মানিত মুহররমুল হারাম শরীফ মাস উনাকে এবং উনার মধ্যস্থিত বরকতময় পবিত্র আশূরা শরীফ উনাকে সম্মান করো।’ আগামী ১৪ খমীস ১৩৮৪ শামসী, ১২ অক্টোবর ২০১৬ ঈসায়ী, ইয়াওমুল আরবিয়া

পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ আক্বীদা শুদ্ধ করার, ঈমান হিফাযত করার সর্বোপরি ইস্তিকামত থাকার শিক্ষা গ্রহণ করার দিন


পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররম শরীফ এমন এক বিশেষ দিন, যে দিন অনেক হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের বিশেষ বিশেষ ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। যেমন, হযরত আদম আলাইহিমুস সালাম তিনি যমীনে তাশরীফ, হযরত মূসা আলাইহিস সালাম উনার লোহিত সাগর পার, হযরত ইউনূছ আলাইহিস

পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাস উনার বরকতপূর্ণ আমল সম্পর্কে মুসলমানরা আজ পুরোই বেখবর


  বর্তমানে আমরা দেখতে পাই আমাদের দেশে বাঙালি সংস্কৃতির নামে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। যেমন: পহেলা বৈশাখ, বসন্ত উৎসব, নবান্ন উৎসবসহ আরো কতো উৎসব। যার কোনোটাই মুসলমানগণ উনাদের সংস্কৃতির অন্তর্ভুক্ত নয় এবং এসব অনুষ্ঠান পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র

হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের ফাযায়িল-ফযীলত ও সম্মানিত কারামত শরীফ উনার মাহাত্ম্য এবং সাইয়্যিদাতুন নিসা, উম্মু উম্মিল উমাম, মাহজুবা, ত্বাহিরা, ত্বইয়িবা, তাওশিয়া, তাজিমা, তাকরিমা, শাফিয়াহ, মুশাফ্ফায়াহ, হাবীবাতুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, সাইয়্যিদাতুনা হযরত নানী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার গুটিকয়েক মুবারক কারামত বর্ণনা


“নিশ্চয়ই যে সকল মহান ব্যক্তিত্ব-ব্যক্তিত্বা উনারা মহান আল্লাহ পাক উনার বন্ধু, উনাদের কোনো ভয়ভীতি নেই এবং উনারা চিন্তিতও হবেন না।” (পবিত্র সূরা ইউনুস শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ-৬২) ‘আউলিয়া’ শব্দটি ‘ওলী’ শব্দের বহুবচন। আরবী ভাষায় ‘ওলী’ শব্দের অর্থ: নিকটবর্তী এবং দোস্ত, বন্ধু-

আজ মহিমান্বিত ৫ই মুহররমুল হারাম শরীফ- সাইয়্যিদাতুন নিসা, উম্মু উম্মিল উমাম, মাহজুবা, ত্বাহিরা, ত্বইয়িবা, তাওশিয়া, তাজিমা, তাকরিমা, শাফিয়াহ, মুশাফ্ফায়াহ, হাবীবাতুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব সাইয়্যিদাতুনা হযরত নানী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করার সুমহান দিবস। মুসলিম উম্মাহর উচিত- যথাযথভাবে এ দিনের হক্ব আদায়ে নিবেদিত হওয়া।


সমস্ত প্রশংসা মুবারক খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য; যিনি সকল সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, হযরত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, হযরত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম

আজ সুমহান ঐতিহাসিক পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররমুল হারাম শরীফ। যেদিনটি সকলের জন্যই রহমত, বরকত ও সাকীনা হাছিল করার দিন।


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করো আমার সন্তুষ্টি মুবারক লাভের জন্য।’ আজ সুমহান ঐতিহাসিক পবিত্র আশূরা মিনাল মুহররমুল হারাম শরীফ। যেদিনটি সকলের জন্যই রহমত,