সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

when shia started his structure? please give me information.


Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

  1. প্রভাতের সূর্য প্রভাতের সূর্য says:

    শিয়া বা রাফেজী ফিরকার আক্বীদাঃ
    তারা হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুকে অনুসরণ করার কথা বলে (যা বাস্তবতার নিরিখে চরম মিথ্যা) এবং সকল সাহাবা-ই-কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণের উপরে হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু, উনাকে প্রাধান্য দিয়ে থাকে তাই তাদেরকে শিয়ানে আলী বা শিয়া বলা হয়।
    । এদের উল্লেখযোগ্য কূফরীমূলক আক্বীদা হলঃ
    (১) হযরত আবূ বকর সিদ্দীক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু, হযরত ওমর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু, ও হযরত ওসমান রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু সহ সকল সাহাবীর চেয়ে হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু -এর মর্যাদা বেশী।
    (২) হুজুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর খেলাফতের পর অধিক হক্বদার ছিলেন হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু। তাঁকে খেলাফত না দেয়ায় সকলেই মুরতাদ হয়ে গেছে, ৪ জন ব্যতীত। তারা হলেন, হযরত আলী, আম্মার, মেকদাদ ইবনে আসওয়াদ ও সালমান ফার্সী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম।
    (৩) পৃথিবীর সকল নবীগণের চেয়ে হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু -এর মর্যাদা বেশী।
    (৪) হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুই নবী।
    (৫) হযরত জিব্রীল আলাইহিস সালাম ভুলে তাঁর( হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু) উপর ওহী নাযিল করেন নাই।
    (৬) আল্লাহ্ পাকের আকৃতি মানুষের আকৃতির ন্যায়।

  2. যদি হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনাকে অনুসরন করতো তাহলে তো শিয়াদের সাথে এত মত বিরোধ থাকতো না।
    শিয়াররা মূলত: ইহুদীদের দ্বারা বিভ্রান্ত এক দল। যারা মুসলিম দাবী করলেও হাক্বীকতে তারা ইহুদী।
    সর্বপ্রথম আবদুল্লাহ্‌ ইবনে সাবা’ নামে জনৈক ইয়াহূদী শিয়া মতবাদের মূলনীতি সমূহ রচনা করে; সে প্রতারণার উদ্দেশ্যে ইসলাম গ্রহণের ভান করে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে