ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র শাহাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস সুমহান ২৮শে ছফর শরীফ


পবিত্র ছফর শরীফ মাসটিও সম্মানিত ও পবিত্র একটি মাস। এটি মহান আল্লাহ তায়ালা উনার নির্ধারিত পছন্দীয় মাস। এ মাস অনেক নিয়ামত, বরকত, রহমতে পূর্ণ। কারণ এ মাস হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সাথে সম্পর্কযুক্ত। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী আলাইহিস সালাম তিনি বেহেশতী যুবক উনাদের সাইয়্যিদ।” সুবহানাল্লাহ! (মিশকাত শরীফ)

সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কুরাইশ বংশের হাশিমী শাখায় ৩য় হিজরী সনের পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাস উনার ১৫ তারিখে পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। হযরত আনাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি বলেন, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি অপেক্ষা কেউ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অধিকতর সাদৃশ্যপূর্ণ ছিলেন না। সুবহানাল্লাহ!

সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ৪০ হিজরী সনের পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসে খলীফা মনোনীত হন। তিনি ৬ মাস পর্যন্ত খিলাফত মুবারক পরিচালনা করেন। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমার পর ৩০ বছর খিলাফত চলবে।”

তন্মধ্যে ২৯ বছর ৬ মাস পূর্ববর্তী চারজন খলীফা উনাদের সময়ে অতিবাহিত হয়। বাকি ৬ মাস সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পূর্ণ করেন। এই মহান ইমাম মারাত্মক বিষক্রিয়ার কারণে ৪৯ হিজরী সনের ২৮শে ছফর শরীফ প্রায় ৪৬ বছর বয়স মুবারকে পবিত্র শাহাদাতী শান মুবারক প্রকাশ করেন। সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওযা শরীফ পবিত্র জান্নাতুল বাক্বীতে অবস্থিত।

পবিত্র ছফর শরীফ মাস উনার খায়ের রহমত, বরকত, সাকীনা সকলের নছীব হোক। আমীন।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]