উপমহাদেশের মুসলমান! হযরত খাজা হাবীবুল্লাহ রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার স্মরণে নবায়ন করো নিজ ঈমান


মহা ফযীলতপূর্ণ একটি মাস হলো বর্তমান পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছাম্ম। এ মাসের সম্মানিত প্রথম রাত্রিটি দোয়া কবুলের খাছ রাত্রি বলে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত হয়েছে। এছাড়া এ মাসের সম্মানিত পহেলা জুমুয়া উনার রাত্রি হলো পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে ঘোষিত সমস্ত মহান রাত্রির চেয়েও মহান যা পবিত্র লাইলাতুর রগায়িব নামে মশহুর। অপরদিকে ২৭শে রজব পবিত্র মি’রাজ শরীফ উনার রাত্রি। এতোগুলো মহান রাত্রির সমন্বয়ে যে মাস সেই পবিত্র মাহে রজবেই পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন ও পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করেন পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মহান গৌরব, ওলীকুল শিরোমণি, সুলত্বানুল হিন্দ, কুতুবুল হিন্দ, মুজাদ্দিদে মিল্লাত, আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ হযরত খাজা মুঈনুদ্দীন হাসান চীশতি আজমিরী সানজিরী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি। অধিকাংশ মতে ইরানের খোরাশান (বর্তমান মসূল) প্রদেশের সিজিস্তানের সনজর নামক গ্রামে মহান আল্লাহ পাক উনার এই মহান ওলী তিনি পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন।86786Hazrat Khwaja Ghareeb Nawaz 2 তিনি পিতৃ বংশধারায় আমীরুল মু’মিনীন হযরত আলী ইবনে আবি ত্বলিব আলাইহিস সালাম উনার থেকে হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম উনার হয়ে ইমামতের ধারায় সাইয়্যিদুনা ইমাম হযরত আলী রিদ্বা আলাইহিস সালাম উনার মাধ্যম দিয়ে এবং মাতৃ বংশধারায় সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম উনার হয়ে দুনিয়ার যমীনে তাশরীফ আনেন। কাজেই তিনি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার খাছ আওলাদের অন্তর্ভুক্ত। হযরত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, হযরত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক ইজাজত পেয়ে তিনি পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার হাদীরূপে হিন্দুস্তানে আগমন করেন। গোটা হিন্দুস্তান ছিল তখন মুশরিকী কার্যকলাপের পীঠস্থান। অতি অল্প সময়ের মধ্যে তিনি হিন্দুস্তানের কাফির-মুশরিকদের মাঝে এমন আলোড়ন সৃষ্টি করেন যে, দলে দলে লোকজন পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মাঝে দীক্ষিত হতে লাগলো। এভাবে উনার উসীলায় এক কোটিরও বেশি লোক পবিত্র ঈমান আনলো। সুবহানাল্লাহ! এজন্য কিতাবে লিখা হয়- ‘এই উপমহাদেশে যারাই পবিত্র ঈমান ও পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মহামূল্যবান সম্পদের অধিকারী হয়েছেন এবং ক্বিয়ামত পর্যন্ত হবেন এবং তাদের অধস্তন বংশধারা সকলেরই নেকীগুলি হযরত খাজা ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার আমল মুবারক-উনার অন্তর্ভুক্ত সুবহানাল্লাহ। উপরন্তু ভারতবর্ষে ক্বিয়ামত পর্যন্ত মুসলমানদের সংখ্যা যতই বৃদ্ধি পেতে থাকবে তার ছওয়াবের হাদিয়া শায়েখুল মাশায়িখ, কুতুবুল হিন্দ, হাবীবুল্লাহ হযরত খাজা ছাহিব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার খিদমত মুবারকে ততই পৌঁছতে থাকবে।’ সুবহানাল্লাহ!
অথচ আজ বড়ই আফসুস! ভারতবর্ষ তথা গোটা উপমহাদেশের মুসলমানগণ উনার মুবারক জিন্দেগী সম্পর্কে নেহায়েতই অজ্ঞ। খাছভাবে ভারতবর্ষ তথা উপমহাদেশের মুসলমানদের জন্য দায়িত্ব-কর্তৃব্য হলো- পবিত্র রজব মাসে উনার পবিত্র বিছালী শান মুবারক প্রকাশ দিবস উপলক্ষে বেশি বেশি পবিত্র মীলাদ শরীফ ও ইছালে সাওয়াবের মাহফিলের মাধ্যমে নিজ নিজ পবিত্র ঈমান আমলকে পরিশুদ্ধ করার খালিছ দীক্ষা গ্রহণ করা।
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]