করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি কান চিলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনার মতই


এদেশের মানুষ হুজুগে মেতে উঠতে অভ্যস্ত। এজন্য হুজুগে বাঙাল বা হুজুগে বাঙ্গালী কথাটি বেশ পরিচিত। ঘটনা হচ্ছে, কোন এক ব্যক্তির পাশ দিয়ে চিল তার শিকারীকে ছোঁ মেরে উড়ে যাচ্ছিল আর উক্ত ব্যক্তির পাশে থাকা আরেক ব্যক্তি তাকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলো যে, চিলে তোমার কান নিয়ে উড়ে যাচ্ছে। তখন সে ব্যক্তি কান না দেখে চিলের দিকে দৌড় দেয় এবং ধাওয়া করে। ঠিক একই অবস্থা হয়েছে আমাদের এ দেশে করোনার ক্ষেত্রে। এদেশে করোনার নামগন্ধ বলতে কিছু নেই। তারপরেও ইহুদী-নাছারা, কাফির-মুশরিকদের এজেন্টগুলো করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ধোঁয়া তুলছে। নাউযুবিল্লাহ!
এদেশের মুসলমানরা জ্বর, সর্দি, হাঁচি, কাশি, শ্বাসকষ্ট ইত্যাদি বিভিন্ন রোগে রোগাক্রান্ত হয়। আর কাফির মুশরিকদের দালালগুলো উক্ত রোগসমূহকে করোনা বলে অপপ্রচার চালায়। এই অপপ্রচারকারীরা পশুর চেয়ে নির্বোধ হয়ে গেছে। তা না হলে, তারা নিজ পরিবারের কতজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলো তার হিসাবটুকু নিলেই তারা জানতে পারত যে, এদেশে করোনার কোন অস্তিত্বই নেই।
মোটকথা, করোনা হচ্ছে মুসলমান বিদ্বেষী কাফির-মুশরিকদের প্রতি আপতিত এক মহাগযব। তা শুধুমাত্র কাফির-মুশরিকদের প্রতি এবং কাফির-মুশরিকদের দেশেই নাযিল হয়েছে। তা কোন মুসলমানকে কিংবা কোন মুসলমান দেশে আক্রান্ত করেনি। তবে হ্যাঁ, যদি মুসলমান দেশের কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়ে থাকে তাহলে জানতে হবে, সে মুসলমান নামধারী মুনাফিক ও কাফির মুশরিকদের কাট্টা দোসর।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]