ক্ষণস্থায়ী দুনিয়ার প্রাচীর পেরিয়ে চিরস্থায়ী আখিরাতেও পাবেন উলামায়ে হক্কানী-রব্বানী ওলীআল্লাহ উনাদের সাথে সুসম্পর্কের ফল


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে, “হাশরের ময়দানে কিছু লোক উঠবে, যাদের জন্য জাহান্নাম ওয়াজিব হয়ে যাবে। মহান আল্লাহ পাক তিনি নির্দেশ দিবেন তাদেরকে জাহান্নামে নেয়ার জন্য, হে ফেরেশতারা! তাদেরকে জাহান্নামে পৌঁছে দাও। তখন সে লোকগুলো ধীরে ধীরে জাহান্নামের দিকে যেতে থাকবে, নানান চিন্তা-ফিকির করতে করতে। এমতাবস্থায় মহান আল্লাহ পাক তিনি সমস্ত কিছুই জানেন, দৃশ্য-অদৃশ্য সমস্ত কিছুই মহান আল্লাহ পাক তিনি জানেন, তারপরেও মহান আল্লাহ পাক তিনি বলবেন, ফেরেশতা জিবরীল আলাইহিস সালাম উনাকে, হে জিবরীল আলাইহিস সালাম! আপনি যান লোকগুলিকে জিজ্ঞাসা করুন, যে লোকগুলো এখন জাহান্নামে যাচ্ছে তাদের কোনো হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ উনার সাথে সম্পর্ক ছিলো কি? জিজ্ঞাসা করা হবে যে, হে ব্যক্তিরা! তোমরা যারা জাহান্নামে যাচ্ছ, তোমাদের সাথে কোনো হক্কানী-রব্বানী আলিম ওলীআল্লাহ উনাদের কোনো সম্পর্ক ছিলো কি? তারা বলবে যে, না, কোনো হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ উনার সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক ছিলো না।
মহান আল্লাহ পাক তিনি আবার জিজ্ঞাসা করবেন যে, হে জিবরীল আলাইহিস সালাম! আপনি আবার জিজ্ঞাসা করেন, হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ তিনি যে ঘরে বসবাস করেছিলে এমন কোনো ঘরে তোমরা কি বসবাস করেছিলে? তারা বলবে যে, আমরা তাও করিনি।
আবার জিজ্ঞাসা করা হবে, হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ তিনি যেখানে খেয়েছিলেন, উনার সাথে কি তোমরা খেয়েছিলে? তারা বলবে- আয় আল্লাহ পাক! আমরা খাওয়া-দাওয়াও করিনি। এরপর বলা হবে, হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ তিনি যেখানে দিয়ে হেঁটে গিয়েছিলেন, উনার পিছনে পিছনে তোমরা কি হেঁটেছিলে? তারা বলবে, না, আমরা কোনো হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ উনার পিছনে কখনো হাঁটিনি। যখন কোনো রকম উসীলা পাওয়া যাবে না। শেষ পর্যন্ত মহান আল্লাহ পাক তিনি বলবেন, হে জিবরীল আলাইহিস সালাম! জিজ্ঞাসা করুন, এলোকগুলোকে তাদের সাথে এমন কোনো লোকের তায়াল্লুক ছিলো কি? যেই লোকের সাথে কোন হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ উনার সাথে তায়াল্লুক ছিলো। যখন হযরত জিব্রাইল আলাইহিস সালাম তিনি জিজ্ঞাসা করবেন যে, হে ব্যক্তিরা, তোমাদের কোনো ওলীআল্লাহ উনার সাথে তায়াল্লুক ছিলো না সত্যই বুঝলাম, কিন্তু তোমাদের সাথে কি এমন কোনো লোকের তায়াল্লুক ছিলো? যেই লোকের সাথে কোনো আলিম বুযূর্গ ব্যক্তির তায়াল্লুক ছিলো? তারা বলবে হ্যাঁ, এমন একটা লোকের সাথে আমাদের তায়াল্লুক ছিলো। আমরা জানতাম সেই লোকের সাথে একজন মহান আল্লাহ পাক উনার ওলী, হক্কানী-রব্বানী আলিম উনার সাথে তায়াল্লুক ছিলো।” যখন তারা একথা বলবে, তখন মহান আল্লাহ পাক উনার কাছে হযরত জিবরীল আলাইহিস সালাম তিনি বলবেন, আল্লাহ পাক! হ্যাঁ, তাদের সাথে এমন এক লোকের তায়াল্লুক ছিলো যার সাথে হক্কানী-রব্বানী ওলীআল্লাহ উনার সম্পর্ক ছিলো।
মহান আল্লাহ পাক তিনি বলবেন, যান শুধু এ তায়াল্লুকের কারণে এবং সেই হক্কানী-রব্বানী আলিম তথা ওলীআল্লাহ উনার সম্মানার্থে আমি এ লোকগুলোকে নাজাত দিয়ে জান্নাত দিয়ে দিলাম। সুবহানাল্লাহ!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]