পশ্চিমের দেশ আগে চাঁদ দেখবে এটি একটি ভুল ধারণা।


চাঁদ পৃথিবীর চারপার্শ্বে ঘুরছে এবং পৃথিবী তার কক্ষপথে ২৩.৫ ডিগ্রী কোণ করে সূর্যের চতুর্দিকে একটি উপবৃত্তাকার পথে ঘুরছে। পৃথিবীর এই কৌণিক অবস্থানে অবস্থান করে ঘুর্ণনের ফলে কখনও উত্তর গোলার্ধ সূর্যের দিকে হেলে থাকছে এবং কখনো দক্ষিণ গোলার্ধ সূর্যের দিকে হেলে থাকছে। এ বিষয়গুলো চাঁদ কোথায় দৃশ্যমান হবে তার সঙ্গে জড়িত।

যেমন- সূর্য দৃষ্টিগোচর হয় কম-বেশী উত্তর-দক্ষিণ দ্রাঘিমাংশ বরাবর কিন্তু‘ চাঁদের দৃশ্যমান হওয়াটা শুরু হতে পারে যে কোন স্থান থেকে এবং পশ্চিমে অধিবৃত্ত আকারে বিস্তৃত হতে পারে। অথবা বলা যেতে পারে আকাশে খালি চোখে দেখার মত চাঁদের ন্যূনতম আকৃতি ধারণ মুহূর্তে যে দেশে সূর্যাস্ত হবে অর্থাৎ সূর্যাস্তের সময় যে দেশে বা যে স্থানে কৌণিক দূরত্ব এবং দিগন্তরেখার উপর চাঁদের উ”চতার মান যথাক্রমে ৯-১২ ডিগ্রী এবং ৮-১০ ডিগ্রী হবে, সে স্থানে চাঁদ প্রথম দৃশ্যমান হতে পারে।

এখানে পূর্ব বা পশ্চিমের দেশ আগে দেখবে এরকম কোন শর্ত নেই। যে কোন দেশেরই সেই সৌভাগ্য হতে পারে। পৃথিবীর সব দেশেরই পশ্চিমে কোন না কোন দেশ রয়েছে এবং সব দেশই কোনো না কোন দেশের পশ্চিমে অবস্থান করছে। সুতরাং পশ্চিমের দেশ বলতে নির্দিষ্ট কোন দেশ বোঝায় না। তবে যখন কোন দেশে প্রথম বাঁকা চাঁদ দেখা যায় সেই দেশের পশ্চিমের অন্যান্য দেশগুলোতে যেহেতু আরও পরে সূর্যাস্ত হবে তাই সে দেশগুলো তাদের নিজ নিজ সন্ধ্যায় চাঁদ আরও একটু সহজভাবে দেখতে পাবে। কেননা চাঁদ প্রতি ঘন্টাতেই আকারে খুব সামান্য হলেও বৃদ্ধি পেতে থাকে। (প্রতি ঘন্টায় ০.৫ ডিগ্রী এবং ২৪ ঘন্টায় ১২/১৩ ডিগ্রী করে বাড়তে থাকে।)

আবার এমনও হতে পারে কোন এক দেশ খুব সামান্যের জন্য দেখতে পেল না অর্থাৎ চাঁদ তার ন্যূনতম পরিমাণ আলো পৃথিবীর দিকে প্রতিফলিত করেনি যাতে করে পৃথিবী থেকে দৃশ্যমান হয়ে উঠবে। সেক্ষেত্রে সেদেশের পশ্চিমে অবস্থিত অন্য দেশগুলোর বাঁকা চাঁদ দেখতে পাবার ভাল সম্ভাবনা থাকে। কারণ তাদের সূর্যাস্ত হবে পরে এবং এই সময়ের মধ্যে হয়তো চাঁদ তার নূন্যতম আলো পৃথিবীর দিকে প্রতিফলিত করবে, ফলে দেখা সম্ভব হবে।

তাই বলে আমরা বলতে পারি না যে, সউদী আরব আমাদের পশ্চিমে রয়েছে বলে আমরা দেখতে না পেলেও সউদী আরবেই প্রথম দেখা যাবে চাঁদ। এর কারণ হচ্ছে- প্রতিবারই এমন হবে না যে, আমরাই খুব সামান্যের জন্য চাঁদ দেখতে পারবো না এবং সউদী আরব থেকে তা দেখা যাবে। বরং এমনও হতে পারে সউদী আরব খুব সামান্যের জন্য চাঁদ প্রথমে দেখতে পারলো না ফলে কয়েক ঘণ্টা পর মরক্কো থেকে প্রথমে চাঁদ দেখা গেল। একইভাবে মরক্কোবাসীরা সামান্যের জন্য না পারলে আমেরিকার পূর্ব উপকুলীয় অঞ্চলবাসীরা তা দেখতে পাবে। একইভাবে ইন্দোনেশিয়রা যদি কখনও অল্পের জন্য চাঁদ দেখতে না পারে তাহলে আমরা বাংলাদেশে বসে প্রথম চাঁদ দেখার সৌভাগ্য অর্জন করতে পারি। এভাবে যে কোন দেশই বাঁকা চাঁদ প্রথমে দেখতে পারে। ফলে পশ্চিম দিকের দেশ বলে নির্দিষ্ট কোন দেশকে বোঝানো ঠিক নয়।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে