প্রত্যেকের এটা মনে রাখতে হবে- মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা ঈমানদারের বৈশিষ্ট্য; আর মসজিদ ভাঙ্গা কাফিরদের বৈশিষ্ট্য


মসজিদ যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত ঘর। মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট সর্বশ্রেষ্ঠ স্থান মসজিদ। মহান আল্লাহ পাক তিনি মসজিদ নির্মাণ ও আবাদ করার জন্য নির্দেশ মুবারক করেছেন।
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
مَا كَانَ لِلْمُشْرِكِينَ أَنْ يَعْمُرُوا مَسَاجِدَ اللّهِ شَاهِدِينَ عَلٰى أَنْفُسِهِمْ بِالْكُفْرِ ۚ أُولٰئِكَ حَبِطَتْ أَعْمَالُهُمْ وَفِي النَّارِ هُمْ خَالِدُونَ . إِنَّمَا يَعْمُرُ مَسَاجِدَ اللّٰهِ مَنْ آمَنَ بِاللَّـهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ وَأَقَامَ الصَّلَاةَ وَآتَى الزَّكَاةَ وَلَمْ يَخْشَ إِلَّا اللّٰـهَ ۖ فَعَسَىٰ أُولٰئِكَ أَنْ يَكُونُوا مِنَ الْمُهْتَدِينَ
অর্থ: “মুশরিকদের এই যোগ্যতা বা অধিকার নেই যে, মহান আল্লাহ পাক উনার মসজিদসমূহকে তারা আবাদ করে, যে অবস্থায় তারা নিজেদের কুফরীর স্বীকারোক্তি করছে। তাদের সমস্ত আমল বরবাদ হবে এবং তারা অনন্তকাল জাহান্নামে থাকবে। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার মসজিদসমূহ আবাদ করা উনাদেরই কাজ যারা মহান আল্লাহ পাক উনার প্রতি এবং ক্বিয়ামত দিবসের প্রতি ঈমান আনেন এবং নামায ক্বায়িম করেন এবং যাকাত প্রদান করেন এবং মহান আল্লাহ পাক উনাকে ব্যতীত কাউকে ভয় করেন না। বস্তুতঃ উনারাই হিদায়েত প্রাপ্তগণের মধ্যে শামিল।” (পবিত্র সূরা তওবা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ১৭, ১৮)
মহান আল্লাহ পাক তিনি অন্যত্র ইরশাদ মুবারক করেন-
وَأَنَّ الْمَسَاجِدَ لِلّـهِ فَلَا تَدْعُوا مَعَ اللّٰـهِ أَحَدًا
অর্থ: “নিশ্চয়ই মসজিদসমূহ মহান আল্লাহ পাক উনারই জন্য অর্থাৎ মসজিদে সমস্ত ইবাদত মহান আল্লাহ পাক উনার জন্যেই করতে হবে। মহান আল্লাহ পাক উনার সাথে অন্য কাউকে ডেকো না বা অন্য কারো ইবাদত করো না বা শরীক করো না।” (পবিত্র সূরা জিন শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ১৮)
প্রতিভাত হলো যে, মসজিদের সম্পর্ক মু’মিন মুসলমান উনাদের সাথে। কাফির-মুশরিকদের সাথে মসজিদের কোনো সম্পর্ক নেই। তাদের সাথে সম্পর্ক হচ্ছে গীর্জা ও মন্দিরের। যেখানে তারা পূজা করে ও কুফরী কাজ করে। নাউযুবিল্লাহ!
কাফির মুশরিকরা সম্মানিত মুসলমানগণের শত্রু। তাই তারা মুসলমানগণের প্রতি বিদ্বেষবশতঃ যলুম-নির্যাতন করার পাশাপাশি মুসলমানগণের ইবাদত বন্দিগীর স্থান মসজিদ ভেঙ্গে ফেলার ষড়যন্ত্র করে মসজিদ ভেঙ্গে ফেলে। নাউযুবিল্লাহ!
কাজেই, যারা মসজিদ ভাঙ্গে তারা কেউই মুসলমান নয়, তারা কাফির-মুশরিক অথবা তাদের ঘনিষ্ঠ এজেন্ট মুনাফিক। এদেরকে প্রতিহত করা সমস্ত মু’মিন মুসলমানগণের উপর ফরয।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]