মহাসম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সম্পর্কে কিরূপ আক্বীদা পোষণ করতে হবে


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “যে ব্যক্তি হাক্বীক্বী মুত্তাক্বী হবেন আমি (মহান আল্লাহ পাক) তাকে গাইরুল্লাহ থেকে বের হওয়ার সমস্ত রাস্তা দেখিয়ে দিব এবং এমন রিযিক দান করব যা সে কল্পনাও করতে পারবে না। সুবহানাল্লাহ! এই পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে বলা হয়েছে যে, যে ব্যক্তি মুত্তাক্বী হবেন উনাকে এমন রিযিক দেয়া হবে, যা সে কল্পনাও করতে পারবে না। তাহলে যারা স্বয়ং ঈমান এবং মুত্তাক্বীগন উনাদেরও ঈমান, জান্নাত উনার মালিক উনাদেরকে কেমন রিযিক দেয়া হবে সেটা কোন ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। কিন্তু বর্তমানে কিছু নামধারী আলিম রয়েছে তারা বলে থাকে যে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আওলাদ আালাইহিমুস সালাম ও আওলাদ আলাইহিন্নাস সালাম উনারা নাকি গরীব ছিলেন। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! খাবার পেতেন না। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! ইত্যাদি উনাদের শান মুবারকে অনেক বেয়াদবীমূলক কথা বলে থাকে। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!
সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা সকল কিছুর উর্দ্ধে। উনাদের সাথে উদাহরণও শোভা পায় না তবুও বুঝার জন্য একটি উদাহরণ পেশ করব। সেটা হলো, কোন সন্তানদের পিতা-মাতা যদি অনেক সম্পদশালী হয় তাহলে কি লোকেরা বলে যে, অমুক ব্যক্তি অনেক সম্পদশালী কিন্তু তার সন্তানরা অনেক গরীব। এটা কখনই বলে না। এই কথা যেমন শোভা পায় না তেমনি বিশ্বাস করাও যায় না। তাহলে সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের শানে কি করে বলা যেতে পারে, উনারা গরীব ছিলেন। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! কেননা মশহুর বর্ণনায় বর্নিত রয়েছে যে, সমস্ত কুরাঈশ সম্প্রদায়ের যত সম্পদ ছিলো উম্মুল মু’মিনীন আল-উলা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম উনার একাই সেই পরিমান বরং বেশী সম্পদ ছিলো। সুবহানাল্লাহ! সুবহানাল্লাহ! সুবহানাল্লাহ! তাহলে উনার আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনারা কিভাবে গরীব হতে পারেন। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! মূলত উনারা এমন দান-খয়রাত করতেন মহান আল্লাহ পাক উনার রাস্তায় যার কোন নযীর পাওয়া যায় না। সুবহানাল্লাহ! উনাদের কাছে কোন সুওয়ালকারী আসলে কখনই খালি হাতে ফেরত যেত না। উনাদের কাছে যেটা থাকত সেটাই উনারা দান করে দিতেন। কাজেই উনাদেরকে গরীব বলা কাট্টা কুফরী হবে। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে উনাদের সম্পর্কে সঠিক আক্বীদা পোষন করার তাওফীক দান করেন। (আমীন)

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]