মহিলাদের জামায়াত বন্ধ করতে হবে


পবিত্র ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে মহিলাদের পাঁচ ওয়াক্ত, জুমুয়া, ঈদাইন, তারাবীহসহ সর্বপ্রকার নামাযের জামায়াতের জন্য মসজিদ বা ঈদগাহে যাওয়া হারাম ও কুফরী। তা পবিত্র রমাদ্বান শরীফে হোক অথবা গাইরে রমাদ্বান শরীফে হোক।
বিশিষ্ট ছাহাবী আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি মহিলাদের জামায়াত নিষিদ্ধ করার ফতওয়া দেন। অতঃপর উক্ত ফতওয়া উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার মুবারক খিদমতে পেশ করা হলে তিনি তা তাছদীক্ব বা সত্যায়িত করেন। যা পরবর্তীতে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা সকলেই মেনে নেন। অর্থাৎ এ বিষয়ে ইজমায়ে আযীমত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। যা অস্বীকার ও অমান্য করা কাট্টা কুফরীর অন্তর্ভুক্ত। কাজেই সউদী আরবসহ পৃথিবীর যেসব মসজিদে মহিলাদের জামায়াত চালু আছে তা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে