♦♦মহাসম্মানিত সুন্নতী খাবার মধু খাওয়ার গুরুত্ব ও উপকারিতা♦♦


♦♦মহাসম্মানিত সুন্নতী খাবার মধু খাওয়ার
গুরুত্ব ও উপকারিতা♦♦

পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-
 عن حضرت ام المؤمنين الثالثة الصديقة عليها السلام قالت كان رسول الله صلى الله عليه وسلم يحب الحلواء والعسل. 
অর্থ : “সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ হযরত ছিদ্দীক্বাহ আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হাল্ওয়া ও মধু পছন্দ করতেন।” (ইবনে মাজাহ শরীফ : কিতাবুল ত্ব’য়ামাহ : পবিত্র হাদীছ শরীফ নং ঃ ৩৩২৩)

♥♥উপকারিতা : বহু রোগের প্রতিষেধক হিসেবে মধু ব্যবহার করা হয়। যেমনঃ- 
১. মধু সর্দি, কাশি, জ্বর, হাপানি, হৃদরোগ, পুরনো আমাশয় এবং পেটের অসুখ নিরাময়সহ নানাবিধ জটিল রোগের চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয়।

২. মধু পরিপাকে সহায়তা করে, ক্ষুধা বাড়ায়, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে। 
৩. মধু প্রিজারভেটিভ হিসেবেও কাজ করে।
৪. ক্ষত সারাতে মধু ব্যবহার করা যায় । 
৫. রূপচর্চায় বিভিন্ন ভাবে মধুর ব্যবহার হয়। ব্রণ সারাতে, মুখের আদ্রতা বৃদ্ধিতে, মসৃণ করতে ইত্যাদি।
৬. ডায়াবেটিকের রোগীরাও নির্ভয়ে চিনির বিকল্প হিসেবে মধু খেতে পারে।
৭. মধু মিষ্টি হলেও এতে রক্তের সুগার বাড়ে না।
৮. মধু ও লেবুর শরবত শরীরের বাড়তি মেদ কমাতে সাহায্য করে।
৯. শিশুদের শারীরিক বিভিন্ন সমস্যায় ওষুধের চেয়ে মধু অনেক বেশি কার্যকর।
♥আহমদ হুসাইন♥

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

Leave a Reply

[fbls]