মানুষ -blog


...


 


মহিমান্বিত দশ দিন ও দশ রাত্রি


পবিত্র যিলহজ্জ্ব শরীফ মাস আগমনে করণীয়: পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, عَنْ حَضْرَتْ أُمِّ سَلَمَةَ عَلَيْهَا السَّلَامْ قَالَتْ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ مَنْ رَاٰي هِلَالَ ذِي الْحِجَّةِ وَ اَرَادَ اَنْ يُضَحِّيَ فَلَا يَاْخُذْ مِنْ شَعْرِه وَلَا مِنْ اَظْفَارِه. অর্থ:



নির্ধারিত স্থানে পবিত্র কুরবানীর পশু যবেহ করতে বাধ্য করা পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে এক গভীর ষড়যন্ত্র। নাউযুবিল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার পাকড়াও অত্যন্ত কঠিন।” পরিবেশ দুষণের ভূয়া ও মিথ্যা অজুহাতে সিটি কর্পোরেশনের নির্ধারিত স্থানে পবিত্র কুরবানীর পশু যবেহ করতে বাধ্য করা পবিত্র কুরবানীর বিরুদ্ধে এক গভীর ষড়যন্ত্র। নাউযুবিল্লাহ! তথাকথিত পরিবেশবাদীদেরকে



হিজরী ও শামসী ক্যালেন্ডারই মুসলমানদের অনুসরণ করা উচিত


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি চন্দ্র ও সূর্যের ঘূর্ণন বা আবর্তনের সাথে রাত-দিনের বা তারিখের পরিবর্তনের বিষয়টি নির্ধারণ করে দিয়েছেন। যার কারণে চন্দ্রের হিসাব অনুযায়ী-প্রবর্তন করা হয়েছে হিজরী সন ও ক্যালেন্ডার। আর সূর্যের হিসাব অনুযায়ী প্রবর্তন করা হয়েছে



সম্মানিত ইসলামী তর্জ-তরীক্বা এবং আইয়্যামুল্লাহ শরীফ সমূহকে গুরুত্ব না দেয়া এবং পালন না করার কারণেই মুসলমানরা হারাম-নাজায়িয ও বেদ্বীনী-বদদ্বীনী


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট একমাত্র মনোনীত দ্বীন হচ্ছেন সম্মানিত ইসলাম।” সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ সম্মানিত দ্বীন ইসলামই হচ্ছেন একমাত্র মনোনীত, হক্ব, পরিপূর্ণ ও সন্তুষ্টিপ্রাপ্ত দ্বীন। সুবহানাল্লাহ! অথচ তারপরও মুসলমানরা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনাকে অনুসরণ-অনুকরণ



চিরস্থায়ী বন্দোবস্তের নামে মুসলমানদের থেকে ছিনিয়ে নেয়া সম্পত্তি ফেরত দিতে হবে


ব্রিটিশরা এই উপমহাদেশে আসার পূর্বে ৯৯ ভাগ জমির মালিক ছিল মুসলমানগণ। মুসলমান উনাদের আরদালি ছিল সমস্ত বিধর্মীরা। বিধর্মীদের ইসলামী লিবাস ও ফার্সী ভাষা শিক্ষা ছিল বাধ্যতামূলক। যা পরিধান করে চাকরি-ব্যবসা বাণিজ্য করতে হত। ব্রিটিশরা যখন উপমহাদেশে মুসলিম শাসক ক্ষমতা ছিনিয়ে নিলো



বদরের জিহাদে সংঘটিত বিশেষ কয়েকটি ঘটনা


* হযরত মুয়ায রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি যখন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার খিদমতে হাযির হলেন, তখনো উনার হাতটি চামড়ার সাথে ঝুলছিল। তারপর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র মুখ মুবারক



‘লকডাউন’ ও ‘বিধিনিষেধ’ দ্বীন ইসলামে জায়িজ নয়


ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে মুসলমান দেশে লকডাউন করে ব্যবসা-বাণিজ্য, দোকান-পাট, মসজিদ-মাদরাসা, স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত, হাসপাতাল-চিকিৎসা ইত্যাদি বন্ধ ও সীমিত করে দেয়া সম্পূর্ণ দ্বীন ইসলাম বিরোধি, নাজায়িয, হারাম ও কুফরী। মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- فَإِذَا قُضِيَتِ



কাকে অনুসরণ করবেন আর কারে অনুসরণ থেকে দূরে থাকবেন?


আমরা প্রত্যেকেই কাউকে না কাউকে অনুসরণ করে থাকি। তবে বাজার দরে সবাইকে অনুসরণ করা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম, সম্মানিত শরীয়ত উনার সম্পূর্ণ খিলাফ ও গুনাহের কাজও বটে। কেননা মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত কালাম পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক



খাছ সুন্নতী বাল্যবিবাহকে অবৈধ বলার দুঃসাহস দেখাচ্ছে ওরা কারা?


প্রশাসন ও সরকার ব্রিটিশ বেনিয়াদের দ্বারা রচিত খাছ সুন্নতী বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন বাতিল করেছে। কিন্তু একইসাথে নতুন করে দেশিবিদেশী জাহিলদের কাছে মাথানত করে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল নতুন আঙ্গিকে সংসদে পাস করা হয়েছে। নাউযুবিল্লাহ! এর দ্বারা সরকারী আমলারা তাদের নির্বাচনী ওয়াদা থেকে



ইসলামিক ফাউন্ডেশন অনুবাদকৃত বুখারী শরীফ কিতাবের মধ্যেই ‘সংক্রমণ বা ছোঁয়াচে কোন রোগ নেই’ বলে উল্লেখ রয়েছে


বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন সম্পাদনা পরিষদের তত্ত্বাবধানে অনুদিত এবং তৎকর্তৃক সম্পাদিত প্রকাশকাল: র্মাচ ১৯৮৪ বুখারী শরীফ নবম খণ্ড বাবুল জুযাম বা কুষ্ঠরোগ অনুচ্ছেদের ২২৮৯ নং হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত হয়েছে- وَقَالَ عَفَّانُ حَدَّثَنَا سَلِيْمُ بْنُ حَيَّانَ حَدَّثَنَا سَعِيْدُ بْنُ مِيْنَاءَ قَالَ



মহান বরকতময় পবিত্র ১৩ই শা’বান শরীফ। সুবহানাল্লাহ! মহাপবিত্র উম্মুল মু’মিনীন আর রবি‘য়াহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত ইবনাতু আবীহা আলাইহাস সালাম উনার


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “হে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম! আপনারা অন্য কোন মহিলাদের মত নন।” সুবহানাল্লাহ! অর্থাৎ হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মত কেউ নেই। উনারা আখাছ্ছুল খাছভাবে মনোনীত। সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান বরকতময় পবিত্র ১৩ই শা’বান



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুর রবি’ আলাইহিস সালাম উনার ইল্ম ও পরহেযগারিতা মুবারক


হযরত ইমাম যুহরী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেছেন, আমি হযরত আলী আওসাত হযরত ইমাম যাইনুল আবিদীন আলাইহিস সালাম উনার চেয়ে শ্রেষ্ঠ ফকীহ আর দ্বিতীয় কাউকে দেখিনি। অথচ তিনি খুব কম পবিত্র হাদীছ শরীফ বর্ণনা করেছেন। সুবহানাল্লাহ! (তাযকিরাতুল হুফফাজ-১/৭৮) হযরত ইমাম আবু হাজিম