আহমদ হুসাইন -blog


...


 


পবিত্র মীরাজ শরীফ রাতে বেপর্দা-বেগানা নারীদের শাস্তির বর্ণনা


♥পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে দোজখে বেপর্দা-বেগানা নারীদের শাস্তির বর্ণনা♥ হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি বর্ণনা করেন, একদা আমি এবং খাতুনে জান্নাত হযরত আন নুরুর রবি’য়াহ যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার



কারামতে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম {৩য় পর্ব}


♦♦কারামতে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম♦♦♦ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমরা মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম। আমাদের সাথে কারো কোনো ক্বিয়াস বা তুলনা করা যাবে না।’ (দায়লামী



ঢাকা যাত্রাবাড়ি শরীফ উনার মহাসম্মানিত শাইখুল মাশায়েখ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম


আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত সুলত্বানুন নাছীর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেন, কুতুবুল আলম, সুলত্বানুল আরিফীন, তাজুল মুফাসসিরীন, রঈসুল মুহাদ্দিছীন, ফখরুল ফুক্বাহা, ঢাকা যাত্রাবাড়ি শরীফ উনার মহাসম্মানিত শাইখুল মাশায়েখ হযরত মুরশীদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হিজরী



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্রতম চিকিৎসা পদ্ধতি মুবারক : হিজামা বা শিঙ্গা লাগানো-৩


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্রতম চিকিৎসা পদ্ধতি মুবারক : হিজামা বা শিঙ্গা লাগানো-৩ (পূর্ব প্রকাশিতের পর) হিজামার গুরুত্ব : হযরত জাবির রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া



পবিত্র পাগড়ী পরিধান করা দায়েমী সুন্নত মুবারক


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সর্বদা পাগড়ী মুবারক ব্যবহার করতেন। পাগড়ীর পরিমাপ: নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অধিকাংশ সময় যে পাগড়ী মুবারক ব্যবহার করতেন তা ছিল ৭ হাত লম্বা, যা পবিত্র হুযরা



চুলের মাঝখানে সিঁথি করার মহাসম্মানিত সুন্নতী তারতীব-১


চুলের মাঝখানে সিঁথি করার মহাসম্মানিত সুন্নতী তারতীব-১ পুরুষেরা মাথার মাঝখানে সিঁথি করবে। চুল লম্বা হলে মাঝে সিঁথি করা মহাসম্মানিত সুন্নত মুবারক। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বিশেষভাবে উনার মহাসম্মানিত নূরুল ফাতহ্ (মহাসম্মানিত চুল) মুবারক পরিপাটি করে



কারামতে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম {২য় পর্ব}


ই’জায শরীফে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমরা মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম। আমাদের সাথে কারো কোনো ক্বিয়াস বা তুলনা করা যাবে না।’



হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার তরফ থেকে সম্মানিত কুরবানী মুবারক দেয়া প্রত্যেক উম্মতের জন্য ফরযে আইন


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার তরফ থেকে সম্মানিত কুরবানী মুবারক দেয়া প্রত্যেক উম্মতের জন্য ফরযে আইন -১ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছেন-عَنْ حَضْرَتْ حَنَشٍ رَحْـمَةُ اللهِ عَلَيْهِ قَالَ رَاَيْتُ اِمَامَ الْاَوَّلِ



কারামতে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম {১ম পর্ব}


একজন পীরবোন বলেন, নতুন থাকা অবস্থায় আমি একজনের মাধ্যমে পবিত্র আল বাইয়্যিনাত শরীফ পাই। এরপর পবিত্র দরবার শরীফ উনার এক দায়িত্বশীল আপার সাথে যোগাযোগ করি। উনার মাধ্যমে আমাকে পাছ আনফাছ যিকির দেয়া হয়। আমাকে বলা হয়, আমি যেন বিপদ আপদে সকল



বেমেছাল সুন্নতী রঙে রঞ্জিত সুমহান পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ


আখিরী রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমি শেষ নবী, আমার পরে আর কোনো নবী নেই।” সুতরাং মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু



ঘুমানোর মহাসম্মানিত সুন্নতী তারতীব মুবারক সম্পর্কে-২


উক্ত পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার বর্ণনায় অনুরূপ আরো পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার বর্ণনায় অনুরূপ আরো পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- عن حضرت البراء بن عازب رضى الله تعالى عنه قال



ঘুমানোর মহাসম্মানিত সুন্নতী তারতীব মুবারক সম্পর্কে-১


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- عن حضرت البراء بن عازب رضى الله تعالى عنه أن رسول الله صلى الله عليه وسلم كان إذا أراد أن ينام قـال باسمك أحيى وباسمك أموت وإذا أصبح أو قام من فراشه قال