জুলফিকার -blog


...


 


‘মুনাফিকদের চিনে নিন’


আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “যেখানে প্রাণীর ছবি থাকে সেখানে রহমত উনার ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা প্রবেশ করেন না।” অথচ অনেক এলাকার মসজিদ উনার প্রবেশদ্বারেই রয়েছে অশ্লীল ছবি সম্বলিত বিলবোর্ড। প্রতিদিন



কথিত ‘বাঙালি সংস্কৃতি’র উৎস সন্ধানে


পলাশীর যুদ্ধের পর বাংলাদেশকে দখল করে নিল নৌদস্যু ব্রিটিশরা, তারা খুঁজতে লাগলো কিভাবে এই দেশ থেকে সম্পত্তি চুষে নেয়া যায়। ওয়ারেন হেস্টিংস হিসাব করে দেখলো যে, বাংলার চারভাগের একভাগ ভূ-সম্পত্তি মুসলিম ছূফী-দরবেশ ও আলিম-উলামাগণ উনাদের অধীনে রয়েছে। উনারা এসব সম্পত্তি আয়



কায়িনাতের বুকে মহান আল্লাহ পাক উনার এক অনন্য বেমেছাল মহাসম্মানিত বরকতপূর্ণ ফযীলতপূর্ণ দিবস হচ্ছেন ২২শে জুমাদাল ঊলা শরীফ


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, وَذَكِّرْهُمْ بِاَيَّامِ اللهِ اِنَّ فِىْ ذٰلِكَ لَاٰيَاتٍ لِكُلِّ صَبَّارٍ شَكُورٍ. অর্থ: “আর (হে আমার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি তাদেরকে (সমস্ত জিন-ইনসান,



পিলখানা হত্যা দিবসে বাংলাদেশ-ভারত ক্রিকেটিয় উল্লাস!!!


২৫ ফেব্রুয়ারী ২০০৯। বাংলাদেশের ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয়, নিন্দনীয় ও মর্মান্তিক দিবস। এ দিবসে পিলখানায় ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয়! অথচ অত্যন্ত জঘন্যতম বিষয় হচ্ছে- এ দিনেই বাংলাদেশ-ভারত ক্রিকেট খেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আর খুব স্বাভাবিক ভাবেই এ খেলার মধ্য



পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের দৃষ্টিতে সমস্ত প্রকার গান-বাজনা হারাম


পবিত্র কুরআন শরীফ ও সুন্নাহ শরীফ উনাদের দৃষ্টিতে গান-বাজনা হারাম ও কবীরা গুনাহ। তা যে কোনো গানই হোক না কেন! যেমন নবীতত্ত্ব, মুর্শিদী, জারী, কাওয়ালী, পল্লীগীতি, ভাওয়ালী, ভক্তিমূলক ইত্যাদি। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “মানুষের মধ্যে এমন কিছু লোক



আমেরিকার অর্থনীতির গোঙানী শব্দ


২০১৬ সালের শুরুতেই মার্কিন অর্থনীতির গোঙানীর আওয়াজ পাওয়া যাচ্ছিল। অর্থাৎ মৃত্যুর গড়গড়া উঠেছে মার্কিন অর্থনীতিতে। জানুয়ারি মাসটা জুড়েই আমেরিকার শীতল ঝড়ো হাওয়ার বাতাস নড়বড়ে শেয়ার মার্কেটের গায়েও লেগে লেগে যাচ্ছিল এবং বিনিয়োগকারীদের ভাষায় এই জানুয়ারীটা ছিল ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক মন্দার পর



পবিত্র মা’রিফাত-মুহব্বত মুবারক, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক, কুরবত-নৈকট্য মুবারক তালাশকারী পুরুষগণের উদ্দেশ্যে


উম্মুল মু’মিনীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন হযরত সালমা আলাইহাস সালাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুবারক খিদমতে আরজ করলেন নারীরা অর্ধেক আক্বল-সমঝ ও অর্ধেক দ্বীন উনার অধিকারিণী তা কিরূপ? নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি



মাশুকে মাওলা, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- رضوان من الله اكبر অর্থ: খালিক মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক সবচেয়ে বড়। (পবিত্র সূরা তওবা শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৭২) অর্থাৎ মাখলূক্বাতের জন্য সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি হচ্ছে মহান আল্লাহ পাক



পবিত্র সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ মুবারক হো! পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বরকতময় শান নিয়ে লিখিত


  ইদানীং সাইয়্যিদে ঈদে আকবর ওয়া ঈদে আ’যম পবিত্র ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তথা পবিত্র সাইয়্যিদুল আইয়াদ শরীফ উনার নাম শুনলে কিছু লোক বিদয়াত বিদয়াত বলে চিৎকার করে, কিতাবে নেই, পূর্বের কোনো আউলিয়াগণ করেননি ইত্যাদি ইত্যাদি নানা মিথ্যা



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম উনার মহা-সম্মানিত


সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হাসান বিন আলী বিন আবী তালিব আলাইহিস সালাম তিনি সম্মানিত কুরাইশ বংশের হাশেমী শাখায় তাশরীফ মুবারক আনেন। হিজরী ৩য় সনে পবিত্র শা’বান শরীফ মাস উনার ১৫ তারিখ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি



সউদী বর্বরতা থামছেই না; আবাসিক ভবনে আরো হামলা


ইয়েমেনের রাজধানী সানার আবাসিক ভবনে আবারো হামলা চালিয়েছে সউদী আরবের যুদ্ধবিমান। রাজধানী সানায় কয়কটি পরিবারের ওপর ভয়াবহ বিমান হামলা চালানোর একদিন পর এ হামলা হলো। রাজধানী সানার জাবাল আন-নাহদিয়ান এলাকায় প্রেসিডেন্ট ভবনের পাশেই গতকাল হামলা হয়। এছাড়া, সানার আস-সাবিন এলাকায়ও গতকালও



আপনি কতটুকু মুসলমান…?


আপনার পরনে খ্রিস্টানদের পোশাক শার্ট, প্যান্ট। গলায় টাই। মুখে নেই দাঁড়ি। মাথায় নেই সুন্নতী টুপি। কয়েকজন খ্রিস্টান, নাস্তিকদের সাথে থাকলে আপনাকে আলাদাভাবে চিনাই তো যাবে না। এরপরও আপনি দাবি করেন- আপনি মুসলমান। এ তো গেলো আপনার বাহ্যিক বেশভূষার কথা। আপনাকে যদি