মুহম্মদ মাহদিউল ইসলাম -blog


...


 


পহেলা বৈশাখের বাঙ্গালীয়ানা এবং থার্টি ফার্স্ট নাইটের খ্রীষ্টিয়ানা কোনটাই ৯৮ ভাগ মুসলমানের এদেশে চলতে পারে না।


এদেশে যারা পহেলা বৈশাখের নামে বাঙ্গালীয়ানার হুজ্জোতে মেতে উঠে তারাই আবার ইংরেজী থার্টি ফার্স্ট নাইটের অশ্লীলতায় মজে থাকে। পহেলা বৈশাখের বাঙ্গালীয়ানা এবং থার্টি ফার্স্ট নাইটের খ্রীষ্টিয়ানা কোনটাই ৯৮ ভাগ মুসলমানের এদেশে চলতে পারে না। পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ



যারা পবিত্র সুন্নত মুবারক প্রচার করবেন, উনাদেরকে সবসময় গায়িবী মদদ করা হবে


আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, ক্বায়িম মাক্বামে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মুত্বহ্হার, মুত্বহহির, আছ ছমাদ মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ১৪৪১ হিজরী শরীফ উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ০৭ই যিলহজ্জ



এক নজরে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, উম্মু আবীহা, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছালিছাহ


আফযালুন নিসা ওয়ান নাস বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনার সবচেয়ে বড় সম্মানিত পরিচয় মুবারক হচ্ছেন, তিনি



ইখলাছ হাছিল করতে হলে অবশ্যই একজন কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করে ইলমে তাছাউফ অর্জন


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমি তোমাদেরকে নির্দেশ দিচ্ছি খালিছভাবে আমার (সন্তুষ্টি মুবারক লাভের উদ্দেশ্যে) ইবাদত করো। প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলা, জ্বীন-ইনসান সকলের জন্যই ইখলাছ অর্জন করা এবং ইখলাছের সাথে প্রতিটি আমল করা ফরয। সুবহানাল্লাহ! কেননা ইখলাছ ব্যতীত কোন ইবাদত



মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আইয়্যামুল্লাহ শরীফ উনাদের পরিচিতি মুবারক এবং পালনের গুরুত্ব, তাৎপর্য ও ফাযায়িল-ফযীলত, বুযুর্গী-সম্মান মুবারক


اَيَّامٌ (আইয়্যামুন) শব্দ মুবারকখানা يَوْمٌ (ইয়াওমুন) শব্দ মুবারক উনার বহুবচন। অর্থ দিনসমূহ। আর শব্দ মুবারকখানা লফযে আল্লাহ (اَللهُ শব্দ মুবারক) উনার সাথে ইযাফত হয়ে- اَيَّامُ اللهِ (আইয়্যামুল্লাহ্) হয়েছেন। সুবহানাল্লাহ! আর اَيَّامُ اللهِ (আইয়্যামুল্লাহ্) উনার অর্থ হচ্ছেন- যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান



প্রতি আরবী মাসের বিশেষ বিশেষ দিনসমূহ সম্পর্কে জানার জন্য বর্ষপঞ্জিকার ব্যবহার অতীব গুরুত্বপূর্ণ।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আপনি বান্দা-বান্দী উনাদেরকে মহান আল্লাহ পাক উনার বিশেষ বিশেষ দিনগুলো স্মরণ করিয়ে দিন।’ সুবহানাল্লাহ! বাংলাদেশে পবিত্র জুমাদাল ঊলা শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করতে হবে আগামী ২৯শে রবীউছ ছানী শরীফ ১৪৪২ হিজরী, ১৭ই সাবি’



মসজিদে চেয়ার-টেবিলে নামায আদায়: পবিত্র মসজিদে চার্চ-গির্জার কালচার প্রবেশ করানোর অপচেষ্টা!


ইদানীং রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহর উপশহরের পবিত্র মসজিদগুলোতে সারি সারি চেয়ার টেবিল সাজানো দেখা যাচ্ছে। পবিত্র মসজিদে সাধারণভাবে যতই অন্য মুসল্লিরা আগে আসুন না কেনো, শেষের দিকে এসে ঠিকই কতিপয় বৃদ্ধ ছুরতধারী লোক সামনের কাতারে দখলে রাখা সেসব চেয়ার টেবিলে



সুমহান বরকতময় পবিত্র ২৪শে ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুন


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক উনার বিশেষ বিশেষ রাত ও দিনগুলো তাদেরকে স্মরণ করিয়ে দিন।’ সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান বরকতময় পবিত্র ২৪শে ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুন



অন্তর বা ক্বলব থেকে দুনিয়ার মুহব্বত দূর না করা পর্যন্ত হাক্বীক্বী ঈমানদার হওয়া যায় না


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “দুনিয়ার মুহব্বত সমস্ত গুনাহের মূল, দুনিয়ার মুহব্বত তরক করা সমস্ত ইবাদতের মূল।” সুবহানাল্লাহ! প্রত্যেক আদম সন্তানের অন্তরে দুনিয়ার মুহব্বত থাকে, দুনিয়ার মুহব্বত অন্তরে থাকলে ইচ্ছা অনিচ্ছায় মানুষ দুনিয়ার



সুমহান ও বরকতময় পবিত্র ৭ই ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাবি’ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার সেই উম্মতের জন্য আমার শাফায়াত মুবারক ওয়াজিব, যে উম্মত আমার হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করেন।’ সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান ও বরকতময় পবিত্র ৭ই ছফর



যারা হিদায়েত চায়, তাদের দায়িত্ব হচ্ছে- গোমরাহ শাসকদের অনুসরণ বাদ দিয়ে ওলীআল্লাহদের ছোহবত মুবারকে আসা


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “ মহান আল্লাহ পাক তিনি যাকে হিদায়েত দান করেন (যে হিদায়েত চায়) সেই হিদায়েত প্রাপ্ত হয়। আর যে গোমরাহীতে দৃঢ় থাকে, সে কোন ওলীয়ে মুর্শিদ বা পথ প্রর্দশক ওলীআল্লাহ



পাঠ্যপুস্তক, নাকি অমুসলিম-বিধর্মীদের ‘প্রশংসা-পুস্তক’?


বেখবর বাংলার কোটি কোটি মুসলমান! মুশরিক ও নাস্তিক-মুরতাদদের প্লানগুলো একে একে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রশাসনের প্রতিটি স্তরে স্তরে হিন্দুকরণ ও নাস্তিকদের পদায়নের পর এখন এ দেশের স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাঠ্যপুস্তকগুলোকে সেই নীলনকশা বাস্তবায়নের আয়ত্তে আনা হয়েছে এবং হচ্ছে। ক্লাস ওয়ান