মেঘমালা -blog


...


 


বিদয়াত ছেড়ে পবিত্র সুন্নত পালনে অভ্যস্ত করতে প্রতিষ্ঠা হয়েছে ‘আন্তর্জাতিক পবিত্র সুন্নত মুবারক প্রচার কেন্দ্র’


শুরুতেই তিনটি নছীহত মুবারক স্মরণ রাখা প্রয়োজন- (১) পবিত্র সুন্নত মুবারক পালন করা ফরয। (২) পবিত্র সুন্নত মুবারক তরক করা ফাসিকী আর (৩) পবিত্র সুন্নত মুবারক ইহানত করা কুফরী। উপরোক্ত বিষয় থেকে ১ম বিষয়ের উপর আমলে অভ্যস্ত করা এবং পরের ২টি



অনুসরণীয় ৪ মাযহাবের ফতওয়া মুতাবিক- নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশকারী, কটাক্ষকারীদেরকে


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্পর্কে, উনার সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম অর্থাৎ উনার সম্মানিত আব্বা-আম্মা আলাইহিমাস সালাম উনাদের সম্পর্কে, উনার সম্মানিতা আওয়াজে মুত্বহহারাত হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্পর্কে এবং উনার সম্মানিত আওলাদ



ইছনাইনিল আযীম শরীফ” (সোমবার) মহাপবিত্র ও মহাসম্মানিত বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করার কারণে এ মুবারক দিবসটি হচ্ছেন- সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইছনাইনিল আযীম শরীফ (সোমবার) পবিত্রতম বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ করেন।” সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি “ইছনাইনিল আযীম



মহাসম্মানিত ১২ই শরীফ সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ উনার সম্মানার্থে -কোটি কোটি কণ্ঠে বিশ্বজুড়ে পবিত্র মীলাদ শরীফ


রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার অনন্য আয়োজন: মহাসম্মানিত ১২ই শরীফ সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিল আ’দাদ শরীফ উনার সম্মানার্থে -কোটি কোটি কণ্ঠে বিশ্বজুড়ে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ -সুসজ্জিত পরিবহনে শহর প্রদক্ষিণ ও ইফতারী বিতরণ -গরু, খাসী জবাইয়ের মাধ্যমে বিশেষ আক্বীকা মুবারক -দেশের সকল জেলাসহ বিশ্বের



ঘৃণার যুদ্ধে মুসলমানরা নিজেদেরকে গোটা বিশ্বের তুলনায় অনেক পিছিয়ে রেখেছে।


ইউরোপের বিতাড়ন-সর্বস্ব ইতিহাস থেকে বর্তমানের কথিত মডারেট মুসলমানদের শিক্ষণীয় —ঘৃণার যুদ্ধে মুসলমানরা নিজেদেরকে গোটা বিশ্বের তুলনায় অনেক পিছিয়ে রেখেছে। একদা ইউরোপের অর্ধেকের বেশি জয় করেও মুসলমানরা আজ সেখান থেকে অপসারিত, কারণ ইউরোপের শক্ত-রুক্ষ মাটিতে শেকড় গাঁড়ার দৃঢ়তা ও কাফিরদের প্রতি ঘৃণার



সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাস উনার সম্মানার্থে অতিসত্বর মসজিদগুলো হতে সব বিধিনিষেধ বাতিল করা


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “কোন মু’মিন নর-নারীর জন্য জায়িয হবেনা, মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং উনার রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা যে ফায়ছালা মুবারক করেছেন, সে ফায়ছালার মধ্যে চু-চেরা, ক্বীল ও ক্বাল



মহাসম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার ফতওয়া অনুযায়ী- জামায়াতে নামায আদায়ের সময় কাতার সোজা করা ও ফাঁক বন্ধ করা ওয়াজিব।


নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা কাতারে পরস্পরে মিশে দাঁড়াও। দুই কাতারের মাঝে কিছু ফাঁক রাখ এবং কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াও। মহাসম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার ফতওয়া অনুযায়ী- জামায়াতে নামায আদায়ের সময় কাতার সোজা



কথিত ‘স্বাস্থ্যবিধি’ ও ‘সীমিত পরিসর’ দ্বীন ইসলামসম্মত নয়


সম্প্রতি করোনা ভাইরাস গযবে চীনসহ তাবৎ কাফির রাষ্ট্রে কোটি কোটি কাফির নিহত হয়েছে। এবং সে গযব থেকে বাঁচার জন্য তারা নিজ নিজ ঘর-বাড়িতে অবস্থানের জন্য লকডাউন ব্যবস্থা চালু করেছে। কিন্তু এতেও তারা স্বস্তি ও নিস্তার পায়নি। এখন কাফিরদের সাথে নামধারি মুসলমানদের



৯৮ ভাগ মুসলামন অধ্যুষিত এ দেশের বাজেটে যা হওয়ার কথা


বাংলাদেশের সরকারী বাজেটগুলোতে দেখা যায় বিনোদন, সংস্কৃতি ও ধর্মীয় খাতকে এক সাথে রাখা হয়। অথচ ধর্মীয় খাতকে আলাদা রাখা উচিত। ধর্মীয় খাত বলতে আবার দ্বীন ইসলাম, হিন্দু ধর্ম, বেীদ্ধ ধর্ম, খ্রিস্টানসহ অন্যান্য ধর্মকে বুঝায়। এই দেশে শতকরা ৯৮% মুসলমান। মুসলমানরা এই



কাফির-মুশরিকদের উপর আপতিত “করোনা ভাইরাস” নামক খোদায়ী গজব থেকে মুসলমানদের নাজাত লাভের অন্যতম একটি উছীলা হচ্ছে, মহাসম্মানিত মহাপবিত্র পবিত্র


খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি মহাসম্মানিত মহাপবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, إِنَّا أَنزَلْنَاهُ فِي لَيْلَةٍ مُّبَارَكَةٍ ۚ إِنَّا كُنَّا مُنذِرِينَ ﴿٣﴾ فِيهَا يُفْرَقُ كُلُّ أَمْرٍ حَكِيمٍ ﴿٤﴾ অর্থ : “নিশ্চয়ই আমি উহা (পবিত্র কুরআন



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুর রবি’ আলাইহিস সালাম উনার ইমামত উনার ব্যাপারে হাজরে আসওয়াদ উনার সাক্ষী


সাইয়্যিদুনা, ইমামুর রাবি’ আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত পিতা সাইয়্যিদু শাবাবী আহলিল জান্নাহ, সাইয়্যিদুশ শুহাদা, ইমামুছ ছালিছ আলাইহিস সালাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম উনার শাহাদতী শান মুবারক প্রকাশ করার পর উনার ক্বায়িম-মক্বাম বা গদ্দিনসীন হন। উনার ইমামতের মাক্বামটি তিনিই অলংকৃত



সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আর রবিয়া’হ আলাইহাস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহ উমরী মুবারক


পরিচিতি মুবারক: সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আর রবিয়া’হ ইবনাতু আবীহা আলাইহাস সালাম সাইয়্যিদুনা হযরত ফারুকে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত মেয়ে। পিতার বংশ: কুরাইশ বংশের বনু ‘আদী বিন কা‘ব শাখা। তিনি ও উনার সহোদর ভাই সাইয়্যিদুনা হযরত